সূত্রাপুর সড়কের বেহাল দশা

এক যুগেও ভালোভাবে সংস্কার হয়নি * চলাচলে নাকাল এখানকার বাসিন্দারা

প্রকাশ : ১৬ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  সানমুন আহমেদ

সূত্রাপুর সড়কের বেহাল দশা। ছবি: যুগান্তর

সংস্কার না করায় পুরান ঢাকার সূত্রাপুরের প্রধান সড়কটির এখন বেহাল দশা। সড়কের পিচ ও খোয়া ওঠে গেছে। সৃষ্টি হচ্ছে খানাখন্দ। এবড়োখেবড়ো রাস্তা হওয়ায় সূত্রাপুর থেকে একরামপুর রোড দিয়ে চলাচলে নাকাল হচ্ছে এখানকার বাসিন্দারা।

পূর্বে এ রাস্তা দিয়ে সব রকম যানবাহন চলাচল করলেও বর্তমানে ভালোভাবে চলাচল করতে পারছে না।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, নির্বাচন এলে জনপ্রতিনিধিদের ইশতেহারে রাস্তাটি ঠিক করার কথা থাকলেও নির্বাচিত হওয়ার পর সড়কটির কথা ভুলে যায় তারা। এক যুগেও সড়কটি ভালোভাবে সংস্কার করা হয়নি।

স্থানীয় বাসিন্দা সাংবাদিক আয়াজ উর রহমান যুগান্তরকে জানান, এক সময় সূত্রাপুরের এ সড়কটিকে প্রধান সড়ক হিসেবে ব্যবহার করা হতো। অথচ সড়কটি বেহাল হওয়ায় যানবাহন চলাচল আগের মতো করে হচ্ছে না।

এতে করে এ রোড দিয়ে যাতায়াতকারী পথচারীদের পড়তে হয় নানা সমস্যায়। এ এলাকার দুর্ভোগ নিয়ে এখানকার জনপ্রতিনিধির কারো কোনো মাথা ব্যথা নেই বললেই চলে।

সরেজমিন পুরান ঢাকার সূত্রাপুরে গেলে দেখা যায়, রাস্তা খানাখন্দে ভরা। সড়কটি সংস্কার না করায় বেহাল হয়ে পড়ে আছে। রাস্তার দুই পাশে যানজট লেগেই থাকে। এছাড়া সড়কের পাশে যেখানে সেখানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে ময়লা-আবর্জনা। ড্রেনের বেশির ভাগ ঢাকনাই খোলা অবস্থায় রয়েছে। যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

আবদুল কাদের নামের এখানকার মুদি দোকানি জানান, বিশ বছর ধরে এ ওয়ার্ডে বসবাস করছি। এ রোডে সামান্য বৃষ্টি হলেই তা তলিয়ে যায়। আমাদের ব্যবসায়িক মালামাল আগের মতো করে ভালোভাবে আনতে পারছি না এ রাস্তা দিয়ে।

এতে করে আমরা যারা এখানে ব্যবসা-বাণিজ্য করি রাস্তাটি খারাপ হওয়ায় আমাদের প্রতিনিয়ত লোকসান গুনতে হয়। সরকার যদি আমাদের এ রাস্তাটি সংস্কার করে দিত তাহলে খুব ভালো হতো।

কবি নজরুল কলেজ পড়ুয়া আয়েশা জাহান নামের এক শিক্ষার্থী জানান, আমাদের পুরান ঢাকায় কয়দিন পরপর অগ্নিকাণ্ডের মতো বড় ধরনের দুর্ঘটনা লেগেই থাকে।

রাস্তার বেহাল দশা হওয়ায় অনেক সময় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাদের গাড়ি ভালোভাবে ঘটনাস্থলে নিয়ে কাজ করতে পারে না। এতে করে অগ্নিকাণ্ডে অনেক মানুষকে মারা যেতে হয়।

সূত্রাপুর রোডের যে অবস্থা এখানে যদি এ রকম কোনো বড় ধরনের দুর্ঘটনা হয় তাহলে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাদের গাড়ি নিয়ে ঢুকতে পারবে না। এর ফলে কঠিন সমস্যায় পড়তে হবে এখানকার বাসিন্দাদের।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বাসিন্দা জানান, সূত্রাপুরের রাস্তাটি সংস্কার না হওয়ার বড় কারণ কিছু অসাধু ঠিকাদার। তারা সরকারের টাকা হাতিয়ে নিয়ে ক’দিন রাস্তার কাজ ধরে কোনো সংস্কার শেষ না করেই চলে যায়।

তাদের জন্য মূলত এ রাস্তাটি পুরোপুরি সংস্কার আজও হয়নি। এ বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৪৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. আবদুস সাহেদ মন্টু জানান, আমার এলাকার বাসিন্দাদের জন্য প্রতিনিয়ত আমি কাজ করে যাচ্ছি। সূত্রাপুরের রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে খারাপ অবস্থায় ছিল। রাস্তার ড্রেনেজের কাজ চলছে। দ্রুত রাস্তার কাজ হয়ে যাবে।