রায়েরবাগে পানির জন্য হাহাকার

পাম্প স্থাপনের দাবি

  দনিয়া প্রতিনিধি ২৩ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

রায়েরবাগে পানির জন্য হাহাকার
ছবি: যুগান্তর

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) ৬৫ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ রায়েরবাগের মুজাহিদনগর ও হাবিবনগর এলাকায় ৭ দিন ধরে পানি নেই। খাওয়ার পানি, গোসল, অজু, রান্না-বান্নাসহ পানিনির্ভর সব কাজ চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। পানির জন্য এলাকায় হাহাকার চলছে।

তাই মুজাহিদনগরে পানির পাম্প স্থাপনের দাবি ওঠেছে। অনেকে ৭ দিন ধরে গোসল করতে পারেননি এলাকাবাসী। মুজাহিদনগর ও হাবিবনগরের দুই বাসিন্দা তাদের নিজস্ব ডিপটিউবওয়েল থেকে স্থানীয়দের খাবার পানি দিয়ে সমস্যার কিছুটা সমাধান করছেন।

সরেজমিন জানা যায়, দক্ষিণ রায়েরবাগের মুজাহিদনগর ও হাবিবনগরে লক্ষাধিক লোকের বসবাস। এ এলাকার বাসিন্দারা মেরাজনগর পানির পাম্পের ওপর নির্ভরশীল। রায়েরবাগে একটি পানির পাম্প থাকলেও এ এলাকার জন্য তা তেমন উপকারে আসে না।

যার ফলে প্রায় সময়ই মুজাহিদনগর ও হাবিবনগর এলাকায় পানির সংকট দেখা দেয়। এতে করে এলাকার বাসাবাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, কারখানায় পানির হাহাকার বিরাজ করে। ১২ মার্চ থেকে এ এলাকায় পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে।

এলাকায় রয়েছে ফার্নিচার, ফ্যান ও কয়েল তৈরির সামগ্রী এবং প্লাস্টিকসহ বিভিন্ন কলকারখানা। পানির জন্য শ্রমিকরা সুষ্ঠুভাবে কাজ করতে পারছেন না। অনেকে বেকার সময় কাটাচ্ছেন।

মুজাহিদনগরের বাসিন্দা গৃহিণী নাজমা বেগম যুগান্তরকে বলেন, কিছু কিছু সমস্যা সারানো যায়, কিন্তু পানির সমস্যা সারানো যায় না। ৭ দিন ধরে এলাকায় পানি নেই। আরেকজনের বাসা থেকে পানি এনে কোনো রকমে রান্নাবান্নার কাজ সারছি।

মুজাহিদনগর উন্নয়ন কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আবুল বাশার বহরদার যুগান্তরকে বলেন, এ এলাকায় আমি ৩০ বছরেরও বেশি সময় বসবাস করে আসছি। আজ ৭ দিন ধরে পানির যে হাহাকার এলাকায় বিরাজ করছে তা আর কখনও দেখিনি। গোসল, অজু, টয়লেটে ব্যবহার করার পানিও নেই।

তিনি আরও বলেন, পানির লাইনগুলো ৩০ বছরের পুরনো। অনেক পাইপ নষ্ট হয়ে গেছে, ফেটে গেছে। যার ফলে আমরা যখন মোটরের সাহায্যে পানি নিই তখন কাঁদা ও ময়লাও আসে। পুরনো লাইনগুলো পরিবর্তন করে নতুন ও উঁচু করে পানির পাইপ স্থাপন করা প্রয়োজন।

মুজাহিদনগরের বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন যুগান্তরকে বলেন, এ এলাকায় বহু বছর ধরে পানির সমস্যা বিরাজ করছে। এলাকার বাসিন্দাদের সমস্যা দেখে আমার খুবই খারাপ লাগে। যার ফলে আমার বাসা থেকে এলাকার লোকজনকে প্রতিদিন প্রায় ৫-৬ ঘণ্টা পানি দিই।

তিনি আরও বলেন, মেরাজনগর পানির পাম্প চালক আমাদের পানির কষ্ট দেয়। বিদ্যুৎ চলে গেলে পাম্প বন্ধ থাকে, জেনারেটর চালু করতে চায় না। বলে তেল নেই, এটা নেই, ওটা নেই।

মুজাহিদনগর উন্নয়ন কমিটির চেয়ারম্যান মো. বেলায়েত হোসেন যুগান্তরকে বলেন, আমাদের এলাকার পানির সমস্যা দীর্ঘদিন ধরে। যা এলাকার সংসদ সদস্য (এমপি), কাউন্সিলর ও ওয়াসার ঊর্ধ্বতন ব্যক্তিরাও জানেন।

যার ফলে মুজাহিদনগর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন স্থানে পানির পাম্প বসানোর সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন। এখন ওয়াসার লোকজন যদি সদয় হয়ে দ্রুত পানির পাম্প বসানোর কাজ সম্পন্ন করে তাহলে এলাকাবাসী পানির কষ্ট থেকে রেহাই পাবেন।

বিশেষ করে আগামী ১ মাস পরই রমজান শুরু হচ্ছে। রমজানের আগে যদি পাম্প বসাতে পারে তাহলে উপকৃত হবে এ এলাকার বাসিন্দারা।

হাবিবনগর এলাকার মেসার্স জুলহাস অটো ডোর অ্যান্ড ফার্নিচারের প্রোপাইটর মো. জুলহাস মিয়া যুগান্তরকে বলেন, এলাকায় এক সপ্তাহ ধরে পানি নেই। আমার কারখানার শ্রমিকদের চরম সমস্যা হচ্ছে।

আশপাশের ডোবায় ময়লা পানিতে গোসল করে অনেকের চুলকানি হয়েছে। পানির অভাবে নানা সংকট বিরাজ করছে। এলাকার এক বাসিন্দা প্রতিদিন তার ডিপটিউবওয়েল থেকে সকালে ২ ঘণ্টা ও বিকালে ২ ঘণ্টা পানি দিচ্ছে। ফলে এলাকার শত শত মানুষ লাইন ধরে সেখান থেকে পানি নিয়ে খাবার পানির কিছুটা সমাধান করছে।

মাতুয়াইল ইউপির ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার আবদুল কুদ্দুছ যুগান্তরকে বলেন, মুজাহিদনগর, হাবিবনগরে পানির সমস্যা দীর্ঘদিনের। মুজাহিদনগর এলাকায় পাম্প বসানো জরুরি হয়ে পড়েছে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) ৬৫ নম্বর ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত কাউন্সিলর মো. সামসুদ্দিন ভূঁইয়া সেন্টু যুগান্তরকে বলেন, দক্ষিণ রায়েরবাগের মুজাহিদনগর ও হাবিবনগরের বাসিন্দারা দীর্ঘদিন ধরে পানির সংকট ভোগ করে আসছেন। ওই এলাকায় পানির পাম্প স্থাপনেরও দাবি জানানো হয়েছে এবং পাম্প স্থাপনের প্রক্রিয়া প্রায় সম্পন্ন। রমজান মাসের আগে যাতে পাম্প স্থাপন করা যায় সেজন্য আমি ওয়াসা কর্তৃপক্ষকে আবেদন জানাব।

ঢাকা ওয়াসার মডস জোন-৭-এর নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আবিদ হোসাইন যুগান্তরকে বলেন, মুজাহিদনগর ও হাবিবনগরে কয়েকদিন ধরে পানির সংকটের কারণে রায়েরবাগ ও মেরাজনগর পানির পাম্পে সমস্যা দেখা দিয়েছে। সে সমস্যার সমাধান করা হয়েছে। রাতের মধ্যেই বাসিন্দাদের পানির সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে। এছাড়া মুজাহিদনগরে পানির পাম্প স্থাপনের জন্য দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছেন এলাকাবাসী। সেখানে পাম্প স্থাপনের সব প্রক্রিয়া প্রায় সম্পন্ন। দ্রুত পাম্প বসানোর কাজ শুরু করা হবে।

ঘটনাপ্রবাহ : ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×