কালরাত্রির আলোচনায় বক্তারা

গণহত্যার দোসররা এখনও নির্মূল হয়নি

  সাংস্কৃতিক রিপোর্টার ২৬ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

স্বাধীনতার সপক্ষের শক্তি রাষ্ট্রক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়ে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করেছে। তবে কলঙ্কমুক্তির কাজ এখনও শেষ হয়নি। বহু যুদ্ধাপরাধী ও সংগঠন এখনও বিচারের আওতায় আসেনি। সমাজের সর্বস্তর থেকে যুদ্ধাপরাধী এবং গণহত্যার দোসররা এখনও নির্মূল হয়নি।

১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ রাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী পরিচালিত হত্যাযজ্ঞে শহীদদের স্মরণে গণহত্যা দিবস উপলক্ষে বাংলা একাডেমি আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। সোমবার বিকালে একাডেমির রবীন্দ্রচত্বরে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে ‘গণহত্যা : হাড়ের এ ঘরখানি’ শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন লেখক ও সাংবাদিক জাহীদ রেজা নূর। আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটির সভাপতি ও ডাকসুর সাবেক ভিপি মাহফুজা খানম, জাতীয় সংসদ সদস্য আরমা দত্ত এবং প্রজন্ম ৭১-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মো. সাইদুর রহমান। সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। স্বাগত ভাষণ দেন একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী।

জাহীদ রেজা নূর তার প্রবন্ধে বলেন, যারা মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন তাদের সবাই একদিন মারা যাবেন, কিন্তু টিকে থাকবে এই দেশটা, যার নাম বাংলাদেশ। আর এই বাংলাদেশ টিকে থাকবে যদি এ দেশের মানুষেরা যুগের পর যুগ তাদের গৌরবের মুক্তিযুদ্ধকে লালন করে। যদি এ দেশমাতৃকার জন্য যারা প্রাণ দিয়েছেন, তাদের সম্মান করেন এবং আক্ষরিক অর্থেই বুঝে বলেন, ‘দাম দিয়ে কিনেছি বাংলা, কারো দানে পাওয়া নয়।’

হাবীবুল্লাহ সিরাজী বলেন, পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর নৃশংস গণহত্যার কালরাত পেরিয়ে বাংলাদেশ একাত্তরে জেগে উঠেছে মুক্তিযুদ্ধের মহা-ভোরের মোহনায়। এই জাগরণকে আজ জাতীয় জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে সত্য ও সার্থক করে তুলতে হবে।

আলোচকরা বলেন, স্বাধীনতার ঊষালগ্নে নৃশংস ও নির্মম হত্যাযজ্ঞের মধ্য দিয়ে পাক হানাদার বাহিনী বাংলার আত্মাকে বিধ্বস্ত ও বিনষ্ট করার চেষ্টা করেছে। কিন্তু এ অঞ্চলের উদার-অসাম্প্রদায়িক-মানবতাবাদী মানুষ তাদের স্বাধীনতার অদম্য আকাক্সক্ষাকে বঙ্গবন্ধুর অসাধারণ নেতৃত্ব-নৈপুণ্যে বাস্তবে রূপ দিয়ে পাকবাহিনীর বর্বরতার জবাব দিয়েছে।

সভাপতির ভাষণে জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেন, আজকের দিনটি আমাদের সবার জন্যই বড় বেদনার। ’৭১-এর আজকের এই দিনে বাঙালিদের ওপর যে নির্মম গণহত্যা শুরু হয়, তা চলে পুরো নয় মাস। তিনি বলেন, বাংলাদেশে পাকিস্তানি বাহিনী পরিচালিত নৃশংস গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি এখনও অর্জন হয়নি। আশা করি, সরকারের প্রয়াস এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের শুভ বিবেক- অবশ্যই এই স্বীকৃতি আদায় করবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×