হাতিরপুল কাঁচাবাজার: দীর্ঘদিনেও অবকাঠামো উন্নয়ন হয়নি

নেই অগ্নিনির্বাপণের ব্যবস্থা

  মো. আরমান ভূঁইয়া ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

হাতিরপুল কাঁচাবাজার: দীর্ঘদিনেও অবকাঠামো উন্নয়ন হয়নি
হাতিরপুল কাঁচাবাজার। ছবি: যুগান্তর

নগরীর হাতিরপুল কাঁচাবাজার নানা সমস্যায় জর্জরিত। দীর্ঘদিন বাজারের অবকাঠামোর কোনো উন্নয়ন হয়নি। টিনশেডে তৈরি এ বাজারে সামান্য বৃষ্টিতে পানি পড়ে। নেই কোনো টয়লেট।

নেই অগ্নিনির্বাপণের ব্যবস্থা। ক্রেতা ও বিক্রেতাদের নানা অভিযোগ থাকলেও কর্তৃপক্ষের কোনো ভূমিকা নেই। বাজারের একাংশ ফুটপাত ও রাস্তা দখল করে দোকান বসানো হয়েছে।

প্রতি বছর সরকার রাজস্ব আদায় করলেও বাজারটিতে কোনো উন্নয়নের ছোঁয়া না লাগায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন এলাকাবাসী।

এছাড়াও অন্যান্য বাজার থেকে এ বাজারে বেশি দাম রাখারও অভিযোগ করেন ক্রেতারা। হাতিরপুল ও এর আশপাশের এলাকায় বাসিন্দারা এ বাজার থেকে কেনাকাটা করেন। এ বাজারে মাছ, মাংস, কাঁচাবাজারসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি পাওয়া যায়।

জানা যায়, ১৯৮৫ সালে এ বাজারটি টোল হিসেবে চালু করেন এখানকার ব্যবসায়ীরা। ১৯৯০ সালে সিটি কর্পোরেশন থেকে বরাদ্দ দেয়া হয় ২৪৭টি দোকান। অভিযোগ রয়েছে, ২৪৭টি দোকান বরাদ্দ থাকলেও দলীয় প্রভাবে দোকান রয়েছে প্রায় ৩শ’টি।

সরেজমিন দেখা যায়, হাতিরপুল-কাঁটাবন সড়কের পাশে গড়ে উঠেছে এ বাজার। বাজারের বেশিরভাগ সবজির দোকান ফুটপাত ও সড়কের একাংশ দখল করে গড়ে তোলা হয়েছে।

এতে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ক্রেতা ও পথচারীদের। ফুটপাত ও সড়ক দখল করে সবজি বিক্রি করছেন বহু দোকানি। এদের মধ্যে একজন দোকানদার মো. কবির হোসেন বলেন, এ বাজার তো এমনিতে ছোট।

জায়গা খুবই কম। আর মুরগির দোকানে পাশ দিয়ে তেমন মানুষ চলাচল করে না। তাই এখানে দোকান দিয়েছি। তিনি আরও বলেন, মাঝে মধ্যে সিটি কর্পোরেশন উচ্ছেদ করে। তারা চলে গেলে আবার দোকান দেই। কি করব সংসারতো চালাতে হবে।

টিন দিয়ে তৈরি বাজারের কোনো সংস্কার না করায় সামান্য বৃষ্টিতে পানি পড়ে ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন মালামালের ক্ষতি হচ্ছে। কেনাকাটা করতে আসা ক্রেতাদেরও পড়তে হচ্ছে নানা বিরম্বনায়।

বাজারের মুদি দোকানদার আবদুল লতিফ বলেন, সামান্য বৃষ্টি হলেই এ বাজারের দোকানে পানি পড়ে। আবার টিনের নিচে কিছু না থাকায় রোদে প্রচণ্ড গরম থাকে। আমরা বিভিন্ন জোড়াতালি দিয়েও পানি পড়া বন্ধ করতে পারছি না।

বাজারের ভেতরে পানি পড়ে কাঁদা হয়ে যায়। এতে বাজার করতে আসা কাস্টমারদের পড়তে হয় দুর্ভোগে। বাজারে ক্রেতা অথবা বিক্রেতাদের জন্য নেই কোনো টয়লেট। এতে নানা বিরম্বনায় পড়তে হচ্ছে।

বিশেষ করে টয়লেটের জন্য দোকানিদের যেতে হচ্ছে বিভিন্ন জায়গায়। একই সঙ্গে বাজারের আশপাশের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। সম্প্রতি বেড়েছে অগ্নিদুর্ঘটনা। বাজারটি অগ্নিঝুঁকি থাকলেও নেই কোনো ব্যবস্থা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×