৪৭ বছর ধরে ছড়াচ্ছে আলো

মাতুয়াইল বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয়

  খোরশেদ আলম শিকদার ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

৪৭ বছর ধরে প্রকৃত মানুষ গড়ার অভিযাত্রী হিসেবে সুশিক্ষিত জাতি গঠনে জ্ঞানের আলো ছড়াচ্ছে নগরীর ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ মাতুয়াইল বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয়। আধুনিক শিক্ষায় গড়ে তুলছে শিক্ষার্থীদের আলোকিত ভবিষৎ জীবন। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই বিদ্যালয়টি শিক্ষার মানোন্নয়নে ধারাবাহিকতা অব্যাহত রয়েছে। নগরীর বৃহত্তর ডেমরা বর্তমান যাত্রাবাড়ী থানায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসির) ৬৪নং ওয়ার্ডের (সাবেক মাতুয়াইল ইউপির ৭ নম্বর ওয়ার্ড) মাতুয়াইল মধ্যপাড়া সবুজ-শ্যামল নিবিড় মনোরম পরিবেশে বিদ্যালয়টি অবস্থিত। বিদ্যাপীঠের কোলঘেঁষে রয়েছে নগরীর ঢাকা-চট্টগ্রাম ও যাত্রাবাড়ী-ডেমরা এবং কোনাপাড়া-বাদশা মিয়া সড়ক। অত্র এলাকায় উচ্চশিক্ষায় কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান না থাকায় মাতুয়াইল এলাকার সচেতন জনগণ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন। কত সালে স্থাপিত হয়েছে সঠিকভাবে কেউ বলতে পারেনি। তবে ১৯৪৮ সালে স্থাপিত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

১৯৬৯ সালে জুনিয়র হাইস্কুলে উন্নীত করার প্রয়াসে মাতুয়াইলের শিক্ষানুরাগী ব্যক্তিরা নতুন ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন করে ৯ম শ্রেণীতে ছাত্রছাত্রী ভর্তি করে হাইস্কুলের যাত্রা শুরু করে। ১৯৬৯ সালের ১ জানুয়ারি বিদ্যালয়টি একাডেমিক স্বীকৃতি লাভ করে। ১৯৭০ সালে প্রথম হাইস্কুল হিসেবে ঢাকা বোর্ডের স্বীকৃতি লাভ করে। ১৯৮১ সালে বিদ্যালয়টি এমপিওভুক্তি করা হয়। ১৯৭১ সালে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার কথা থাকলেও বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা সংগ্রাম চলাকালে ওই বছরের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা সম্ভব হয়নি। ১৯৭২ সালে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে প্রথম ব্যাচেই শতভাগ পাস করে।

পূর্ব থেকেই মাতুয়াইল গ্রামটি জনবহুল ছিল এবং বিদ্যালয়ের আশপাশে মাধ্যমিক স্কুল না থাকায় বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে থাকে। এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতায় বিদ্যালয়ের প্রয়োজনীয় অবকাঠামো তৈরি করা হয়। পিইসি, জেএসসি, এসএসসিতে প্রতি বছরই সন্তোষজনক ফলাফলসহ জিপিএ-৫ পেয়ে থাকে এ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয়টিতে এল আকৃতির দুটি ৪র্থ তলা ভবন রয়েছে। এতে সুপরিসর কক্ষ রয়েছে ৪০টি। প্রশাসনিক কক্ষ, মাল্টিমিডিয়া শ্রেণী কক্ষ, সুসজ্জিত বিজ্ঞানাগার ও কম্পিউটার ল্যাব, ইন্টারনেট কানেকশন রয়েছে। শিক্ষা প্রকৌশল অধিদফতরের ৬ তলা ভবনের কাজ নির্মাণাধীন রয়েছে। শিক্ষার মানোন্নয়নে হয়েছে অগ্রগতি। বিদ্যালয়টিতে পাঠ্যসূচি পরীক্ষা, ছুটির তালিকাসহ একাডেমিক তালিকা নিখুঁতভাবে অনুসরণ, দৈনন্দিন কার্যক্রম ডায়েরির মাধ্যমে অভিভাবকদের অবহিতকরণ, ছাত্রছাত্রীদের আলাদা শিফটে ক্লাসের ব্যবস্থা রয়েছে। একঝাঁক দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষকমণ্ডলী, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের চেষ্টা এবং রয়েছে এলাকাবাসীর আন্তরিক সহযোগিতা। যার ফলে ২০১৭ সালের জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষায় যাত্রাবাড়ী থানায় দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে এ স্কুল।

বিদ্যালয় গভর্নিং বডির সভাপতি বেলায়েত হোসেন বাবুল যুগান্তরকে বলেন, নিয়মানুবর্তিতা ও শিক্ষার গুণগতমান ধরে রাখাসহ আধুনিক শিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষকদের নিরলস প্রচেষ্টা আর পরিচালনা কমিটির তদারকি এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতা এবং অভিভাবকদের সচেতনতার কারণে বিদ্যালয়টিতে ভালো ফলাফল নিশ্চিত হয়েছে। প্রতিষ্ঠানে যুগোপযোগী শিক্ষা বিস্তারে শিক্ষক-শিক্ষকা এবং গভর্নিং বডির সদস্যদের চেষ্টায় বিদ্যালয়টি আগামীতে আরও ভালো ফলাফল করবে বলে তিনি আশাবাদী। মাতুয়াইল বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আমিন মিয়া যুগান্তরকে বলেন, যাত্রাবাড়ী থানার অন্যতম প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী বিদ্যালয় হিসেবে মাতুয়াইল বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয়ের সুখ্যাতি রয়েছে। ঢাকা ৫ আসনের সাংসদ মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ হাবিবুর রহমান মোল্লার দিক-নির্দেশনা ও সার্বিক সহযোগিতায় বিদ্যালয়টি অবকাঠামোসহ শিক্ষায় এগিয়ে যাচ্ছে। সঙ্গে রয়েছে বিদ্যালয় গভর্নিং বডির সদস্যদের তদারকি। দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষক-শিক্ষিকা মণ্ডলীর নিরলস প্রচেষ্টা, এলাকাবাসী, অভিভাবক ও শুভানুধ্যায়ীদের আন্তরিকতায় পাবলিক পরীক্ষার ভালো ফল করছে এ বিদ্যাপীঠের শিক্ষার্থীরা। ২০১৭ সালেও জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষায় যাত্রাবাড়ী থানায় দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে। দেশের কয়েকটি বিদ্যালয়ের মধ্যে অন্যতম প্রতিষ্ঠান হিসেবে খ্যাতি অর্জন করতে চেষ্টা করছে। সেক্ষেত্রে প্রধান শিক্ষক আমিন মিয়া সবার সার্বিক সহযোগিতা ও দোয়া চেয়েছেন।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter