খিলক্ষেতে ইজিবাইকের এলোমেলো চলাচল

  আরিফ আহমেদ পলয় ১৪ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

খিলক্ষেতে ইজিবাইকের এলোমেলো চলাচল
খিলক্ষেতে এলোমেলোভাবে চলাচল করছে ইজিবাইক। ছবি: যুগান্তর

রাস্তার দুই পাশে ফল, সবজি আর মাছের বাজার। আছে রিকশা, ইজিবাইকের এলোমেলো চলাচল। খিলক্ষেত থেকে লেকসিটিগামী সড়কের দু’পাশে অবৈধভাবে দখল করে গড়ে উঠেছে কাঁচাবাজার আর রিকশার স্ট্যান্ড। ফলে এ সড়কে যানজট লেগে থাকছে।

সরজমিনে দেখা যায়, সড়কের দুই পাশের ফুটপাতসহ রাস্তার ওপর ফলের দোকান, রাস্তায় এলোমেলো রিকশা দাঁড়ানো। এরপর শুরু কাঁচা সবজি আর মাছের বাজার।

ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক যাত্রীর অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে আছে রাস্তায়। রাস্তার ওপর দাঁড়িয়ে বাজার করছেন অনেকে। দুই লেনের রাস্তা সরু হয়ে এখন এক লেনেরও কম হয়ে গেছে। একটু সময় পরপর সৃষ্টি হচ্ছে যানজট।

মূল সড়কে নেমে হাঁটতে গিয়ে গাঘেঁষে চলে যাওয়া রিকশা কিংবা ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকের ভয়ে আঁতকে উঠছেন অনেকে। এভাবে ঝুঁকি নিয়ে হেঁটে চলাচল করছেন অনেকে।

ওই সড়ক দিয়ে চলাচল করেন খিলক্ষেত এলাকাসহ বরুয়া, ডুমনি, পাটিরা, ইসাপুরাসহ রূপগঞ্জ এলাকার বাসিন্দারা। ওই পথে চলাচলকারী একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে কথা হলে তারা বলেন, সড়কের দুই পাশের ফুটপাতসহ রাস্তার ওপর ফলের দোকান, রাস্তায় এলোমেলো রিকশা দাঁড়ানো থাকায় চলাচলে অনেক সমস্যা হচ্ছে।

আর এসব কারণে সারাদিনই যানজট লেগে থাকে। তখন অনেক সময় আটকে থাকতে হয়। মধ্যপাড়ার বাসিন্দা রহিম মিয়া বলেন, ফুটপাতসহ রাস্তার ওপর হালিম, ডাবসহ ভেন রাস্তার ওপর থাকার কারণে ফুটপাতসহ রাস্তার অনেকটা দখল হয়ে আছে।

অন্যদিকে কাঁচাবাজার, ফলের দোকানের কারণে চলাচলে অনেক সমস্যা হচ্ছে। কারণ রাস্তার ওপর দাঁড়িয়ে লোকজন এখানে বাজার করে। তিনি আরও বলেন, অনেক সময় দেখা যায়, কোনো কোনো দোকানের মালামালের বস্তা বা খাঁচা রাস্তার ওপরেও রাখা হয়।

মান্নান প্লাজার এক দোকানদার বলেন, ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক এত দ্রুত চলে যায়, যার কারণে অনেকেরই হাত-পা ভেঙে গিয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যাটারিচালিত রিকশার চালকের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, এখানে গাড়ি চালানোর জন্য প্রতিদিন গাড়িপ্রতি ৬০ টাকা করে চাঁদা দিতে হয়। আর এই চাঁদা স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাদের নাম ভাঙিয়ে ৮ থেকে ১০ জনের একটি চক্র প্রকাশ্যেই তুলে থাকেন।

স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, খিলক্ষেত সিটি কর্পোরেশনের আওতায় থাকলেও এই অবৈধ ব্যাটারিচালিত রিকশা কীভাবে চলে। এ বিষয়ে অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার গোবিন্দ চন্দ্র পালের (ট্রাফিক গুলশান) সঙ্গে কথা হয়।

তিনি বলেন, সেদিনও ৩৮টি অবৈধ সিএনজি ইজিবাইক এবং ব্যাটারিচালিত রিকশা আটক করা হয়। প্রতিদিনই আমাদের এ অভিযান চলে।

আর ফুটপাত রাস্তা দখল করে যে দোকানপাট গড়ে উঠেছে সে বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ অবৈধ দোকানপাট ও ফুটপাত দখল এবং রাস্তা দখল মেনে নেয়া যায় না। আমরা দ্রুতই রাস্তায় এবং ফুটপাত দখলমুক্ত করব।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×