উত্তরায় ওয়াসার শতাধিক অবৈধ সংযোগ

পর্যাপ্ত পানি পাচ্ছেন না বৈধ গ্রাহকরা

  রফিকুল ইসলাম ১৯ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

উত্তরায় ওয়াসার শতাধিক অবৈধ সংযোগ
ফাইল ছবি

উত্তরায় ওয়াসার পানি চুরির হিড়িক লেগেছে। শতাধিক অবৈধ সংযোগ থেকে এ পানি চুরি করা হচ্ছে। এতে রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। দিনের বেলা বিভিন্ন এলাকার বৈধ গ্রাহকরা পর্যাপ্ত পানি পাচ্ছেন না। এতে তাদের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে।

পানির সংযোগ নেয়ার জন্য কিছু নিয়ম থাকলেও সেগুলো মানছেন না অবৈধ ব্যবহারকারীরা। তারা মাঠ পর্যায়ের অসাধু কর্মীদের মাসোয়ারা দিয়ে লাইন নিচ্ছে।

কোনো অনুমোদন ছাড়াই লাইন টেনে হোটেল রেস্তোরাঁ, বস্তি, রাস্তার পাশে ফুটপাতে দোকানসহ বিভিন্ন স্থাপনায় ওয়াসার পানি ব্যবহার করা হচ্ছে। সেক্টরগুলোতে গড়ে ওঠা অবৈধ কাঁচা বাজারেও এভাবেই অবৈধ পানির লাইন টেনে ব্যবহার করা হচ্ছে।

১০ নং সেক্টরের ১৮ নম্বর রোডের একটি চা দোকানের পাশেই দেখা যায় আলাদা পাইপ সংযোগ দিয়ে পানি নিয়ে হোটেল ও গ্যারেজে ব্যবহার করা হচ্ছে। ১২নং সেক্টরেও একই অবস্থা।

উত্তরা পাসপোর্ট অফিস সংলগ্ন বিভিন্ন টং দোকান ও বস্তিতে অবৈধ পানির লাইন ব্যবহার করতে দেখা যায়। ৩ নং সেক্টর জসীমউদ্দীন রোড পাকার মাথায় অবৈধ জমিতে গড়ে ওঠা একাধিক হোটেল ও দোকানে অবৈধ লাইনের পানি

ব্যবহার করা হয়।

আজমপুরের বাসিন্দা সাগর শিকদার যুগান্তরকে বলেন, আজমপুর ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় ওয়াসার অনেক অবৈধ পানির লাইন রয়েছে। শুধু তাই নয়, পরিত্যক্ত ড্রেন বা নর্দমার মধ্যে ওয়াসার পাইপ কেটে অবৈধ সংযোগ দেয়া হয়েছে।

এতে পাইপ লিকেজ হয়ে ওই এলাকার ওয়াসার পানি পানের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। তিনি আরও বলেন, অবৈধ সংযোগে ওয়াসার প্রচুর পানি নষ্ট হওয়ায় বৈধ বাসিন্দারা প্রায়ই পানি সংকটে ভোগেন।

উত্তরার আরেকজন বাসিন্দা আবদুল মান্নান যুগান্তরকে বলেন, উত্তরা ও এর পার্শ্ববর্তী এলাকায় অবৈধভাবে গড়ে ওঠা বহু হোটেল-রেস্তোরাঁ দোকান-কলকারখানায় অবৈধ পানির সংযোগ দেয়া হয়েছে। এসব কারণে সরকার লাখ লাখ টাকার রাজস্ব বঞ্চিত হচ্ছে।

এছাড়া বৈধ সংযোগ গ্রহণকারীরা দূষিত পানি পান করে বিভিন্ন ধরনের রোগব্যাধি ও পেটের পীড়ায় ভুগছেন। ঢাকা ওয়াসার উত্তরা বিভাগের রাজস্ব জোন-৯ এর রাজস্ব কর্মকর্তা এনায়েত করিম যুগান্তরকে বলেন, অবৈধ সংযোগের বিষয়টি শনাক্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×