সন্দেহ হলে চালককে ডোপ টেস্ট করান

মাদকাসক্ত কেউই পরিবহনে থাকতে পারবে না

- ডিএমপি কমিশনার

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৬ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া
ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। ফাইল ছবি

ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, মাদকাসক্ত কোনো চালক বা হেলপারের হাতে গাড়ির স্টিয়ারিং তুলে দেবেন না। চালক কিংবা হেলপারকে মাদকাসক্ত মনে হলে তার ডোপ টেস্ট করান। এ বিষয়ে সার্বিক সহযোগিতা আমরা করব।

শনিবার রাজধানীর মহাখালী আন্তঃজেলা বাস টার্মিনালে আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় পরিবহন মালিকদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন তিনি।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, মাদকাসক্ত কেউই পরিবহনে যুক্ত থাকতে পারবে না। মাদকাসক্তরা আমাদের জাতীয় শত্রু। মাদকের কারণে অনেক বড় বড় দুর্ঘটনা ঘটে। গণপরিবহনের চালক-হেলপার মাতাল থাকলে ঝুঁকি আরও বেশি।

কোনো মাদকাসক্ত যেন পরিবহনে হেলপার বা চালক হতে না পারে এ বিষয়ে পরিবহন মালিক-শ্রমিককে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ঈদযাত্রার সময় রাজধানীর যেসব পয়েন্টে গাড়ি বের হয় এবং প্রবেশ করে সেগুলো ফাঁকা ও যানজটমুক্ত রাখতে হবে।

বেশি ভাড়া আদায়ের ব্যাপারে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে যে ভাড়া নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে তার বেশি ভাড়া নেয়া যাবে না। নির্দেশনা অমান্য করে টিকিট বেশি দামে বিক্রি করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

টার্মিনালগুলোতে অজ্ঞান পার্টির কার্যক্রম সম্পর্কে ডিএমপি কমিশনার বলেন, গত ১৯ দিনে রাজধানীতে কোনো ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেনি। আমরা দিনরাত কাজ করে যাচ্ছি। মানুষ নিরাপত্তার সঙ্গে গভীর রাত পর্যন্ত ঈদ কেনাকাটা করে নিরাপদে বাড়ি ফিরছে। কারণ আমরা প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছি।

ডিএমপি প্রধান বলেন, কৌশলী অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা বিভিন্ন বাস, রেল ও নৌ টার্মিনালে হকার বেশে ঢুকতে পারে। তাদের বিষয়ে আমরাও সতর্ক আছি। তবে যাত্রী এবং পরিবহন কর্তৃপক্ষকেও সতর্ক থাকার অনুরোধ জানাচ্ছি।

কমিশনার বলেন, মালিক-শ্রমিক ও ট্রাফিক পুলিশের সমন্বয়ে গঠিত কমিটি নিশ্চিত করবেন, কেউ যাতে ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি নিয়ে টার্মিনাল ছেড়ে যেতে না পারে। এছাড়া প্রতিটি বাসের ফিটনেস ও ড্রাইভারের বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স চেকিং ছাড়া কোনো গাড়ি টার্মিনালের বাইরে যাবে না।

চালকরা গাড়ি চালানোর সময় অনেক সাবধান হয়ে গাড়ি চালাবেন। ফাঁকা রাস্তা পেয়ে এমনভাবে গাড়ি চালাবেন না যাতে কেউ গাড়িচাপা পড়ে।

ঈদ-পরবর্তী নিরাপত্তা সম্পর্কে কমিশনার বলেন, এই ঈদে লম্বা ছুটি। শহর অনেকটা ফাঁকা হয়ে যাবে। এই ফাঁকা শহরে নাগরিকদের অনুরোধ করছি আপনার ব্যবসা-বাণিজ্য, বাসাবাড়িতে নিজস্ব সিকিউরিটি গার্ড রেখে যাবেন।

সবাইকে ঈদে একসঙ্গে ছুটি দেবেন না। বাকিটা আমরা পুলিশি টহল বৃদ্ধি করব, চেকপোস্ট ও তল্লাশি করে নিরাপত্তা জোরদার করব। এলাকাভিত্তিক সিকিউরিটি গার্ডের সঙ্গে পুলিশের সমন্বয় করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরালো করা হবে।

অনুষ্ঠানে ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস্) কৃষ্ণ পদ রায়, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-দক্ষিণ) মফিজ উদ্দিন আহম্মেদ, যুগ্ম পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-উত্তর) মোসলেহ উদ্দিন আহমদ, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক উসমান আলী, মহাখালী বাস টার্মিনাল মালিক সমিতির সভাপতি হাজী আবুল কালামসহ ডিএমপি’র ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×