নিয়মিত বিল দিয়েও ৬ মাস পানি নেই

তুরাগে পানির জন্য হাহাকার

  মো. পলাশ প্রধান ২৬ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নিয়মিত বিল দিয়েও ৬ মাস পানি নেই
তুরাগে ফুলবাড়ি এলাকায় ওয়াসার পাইল লাইন থেকে পানি নেয়ার চেষ্টা করছেন এলাকাবাসী। ছবি: যুগান্তর

রাজধানীর তুরাগের ফুলবাড়িয়া এলাকার পারুল বেগম। নিয়মিত ওয়াসার বিল দিয়ে যাচ্ছেন, অথচ গত ছয় মাস ধরে লাইনে পানি পাচ্ছেন না। কথা হয় স্থানীয় মোয়াজ্জেম হোসেনের সঙ্গে।

তিনি বলেন, কয়েক মাস ধরে তুরাগের বেশকিছু এলাকায় বাসাবাড়িতে ওয়াসার লাইনে প্রচণ্ড দুর্গন্ধযুক্ত ময়লা পানি আসছে। দেখলে মনে হয় তুরাগ নদীর পানির চেয়েও খারাপ। তবে সেই পানি তেমন কোনো কাজে ব্যবহার করতে পারছি না।

ওয়াসার লোকজন এলে তাদের কাছে অভিযোগ করেও কোনো কাজ হচ্ছে না। আমরা এলাকার কিছুসংখ্যক বাড়িওয়ালা মিলে উত্তরা থেকে লাইন টেনে কিছুটা সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করছি।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) ৫৩ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা সখিনা বেগম বলেন, কয়েক মাস আগে নির্বাচনের সময় প্রার্থীরা অনেক আশ্বাস দিয়েছিলেন- নির্বাচিত হলে প্রথমে আমাদের পানির ব্যবস্থা করে দেবেন।

নির্বাচিত হওয়ার পর এই এলাকার জনপ্রতিনিধিদের একদিনও দেখা মেলেনি। মাঝে মধ্যে ফোন করলে ফোনও ধরেন না। পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় পানি উঠানো কষ্টকর হয়ে পড়েছে। ফলে তুরাগবাসীকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

তবে ওয়াসা বলছে, কিছু বাসাবাড়িতে পুরনো সংযোগ বন্ধ করে নতুন সংযোগ চালু করা হয়েছে। কিন্তু নতুন সংযোগ লাইন অনেক দিন যাবত অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে থাকায় ময়লা-আবর্জনা তৈরি হয়েছে; যা পানির লাইনের সঙ্গে বাসাবাড়িতে প্রবেশ করছে।

ওয়াসা সূত্রে জানা গেছে, তুরাগ এলাকায় চার লাখেরও বেশি মানুষের বসবাস। এখানে ৩৩টি গ্রাম ও উত্তরা মডেল টাউনের ১১, ১২, ১৩ ও ১৪নং সেক্টর ও রাজউকের ৩য় প্রকল্প এলাকা।

এ বিপুল জনগোষ্ঠীর পানির জন্য একমাত্র ভূ-গর্ভস্থ গভীর নলকূপ এবং ওয়াসার সাপ্লাই পানির ওপর নির্ভর করতে হয়। গরমের মৌসুমের শুরুতেই খায়েরটেক, রোশাদিয়া, কামারপাড়া, রাজাবাড়ী, ভাটুলিয়া, নয়ানীচালা, ধউর, আশুতিয়া, পুরানকালিয়া, ধরঙ্গারটেক, নলভোগ, নয়ানগর, শুক্রভাঙ্গা, শেখদিরটেক, দিয়াবাড়ী ও নিমতলীরটেক, দলিপাড়া, আহালিয়া, বাউনিয়া, কালীবাড়ি, বাদালদী, উলুদাহা, তাফালিয়া, পাকুরিয়া ও খানটেকে ওয়াসার পানির সমস্যা দেখা দিয়েছে।

অন্যদিকে কয়েক দিন ধরে তুরাগের বেশকিছু এলাকায় বাসাবাড়িতে ওয়াসার সরবরাহকৃত পানির সঙ্গে ময়লা আসছে এবং সেই পানি ছড়াচ্ছে দুর্গন্ধ। বিশেষ করে নলভোগ, রানাভোলা, ধরঙ্গারটেক, তারারটেক, নয়ানগর, কামারপাড়া, ধউর ও রাজাবাড়ি এলাকার পানিতে এ সমস্যা দেখা দিয়েছে। ফলে এ পানি ব্যবহারে গ্রাহকদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

এতে চর্মসহ নানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা করছেন তুরাগবাসী। ১১নং সেক্টরের ৫ তলা ভবনের সুপারভাইজার মো. দিদার হোসেন বলেন, কয়েক দিন ধরে বাড়িতে ওয়াসার পানিতে ময়লা আসছে। পানিতে দুর্গন্ধও রয়েছে।

ফলে পানি ব্যবহার করা যাচ্ছে না। এ পর্যন্ত যতবার ওয়াসার লোকজন বিল তৈরি করতে আসেন, মিটার না দেখেই বিল বানিয়ে দিয়ে যান। মিটার দেখার কথা বললে ওয়াসার লোকজন গুরুত্ব দেন না।

রানাভোলা এলাকার মো. অপু আহম্মেদ জানান, সব মিলিয়ে তার পরিবারের সদস্য সংখ্যা ১৬। বেশ কয়েক দিন ধরে পানি পাচ্ছেন না তিনি। পানির চাহিদা মেটাতে পুরো পরিবারকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

এছাড়া সরবরাহকৃত পানিতে পচা গন্ধ, অবিরাম ময়লা আসছে। ফলে দৈনন্দিন কাজ সারতে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

এ বিষয়ে মডস জোন-৯ এর উপসহকারী প্রকৌশলী শরিফুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি যুগান্তরকে জানান, আমাদের ওয়াসার পানি বিশুদ্ধ। এছাড়া কিছু এলাকায় লাইন ফুটো করে অবৈধভাবে কেউ কেউ পানির সংযোগ নেয়।

এতে পানিতে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। আমাদের ওয়াসার টিম কাজ করছে। দ্রুত এটি সমাধান হবে। মনগড়া বিল বানিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে টাকা আদায় করছে- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটি কোনোমতেই হতে পারে না। এমন অভিযোগ পেলে সঙ্গে সঙ্গে ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×