চার দশক উদযাপনের রোডম্যাপ মাইলসের

  সাংস্কৃতিক রিপোর্টার ১৮ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চার দশক উদযাপনের রোডম্যাপ মাইলসের
ছবি: যুগান্তর

দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যান্ড ‘মাইলস’। তাদের গানের প্রশংসা দেশের সীমানা ছাড়িয়েছে বিশ্বব্যাপী বাংলা ভাষাভাষীদের কাছে। এখন পর্যন্ত ‘মাইলস’র ১১টি অ্যালবাম প্রকাশ হয়েছে। এর পাশাপাশি চারটি বেস্ট অব অ্যালবাম প্রকাশ পায়।

যার মধ্যে ভারত থেকে দুটি এবং আমেরিকা থেকে দুটি প্রকাশিত হয়। দেখতে দেখতে ৪০ বছরে পদার্পণ করল মাইলস। পথচলার চার দশককে স্মরণীয় করে রাখার প্রত্যয়ে ও ৪০ বছর উদযাপনে দেশে ও বিদেশে অনেকগুলো কনসার্টের আয়োজন করতে যাচ্ছে এই দলটি।

ঢাকার ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) গালা কনসার্টের পাশাপাশি বিভাগীয় শহর চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী ও খুলনায়ও হবে বেশ কয়েকটি কনসার্ট ও রোড শো।

কনসার্ট ছাড়াও ৪০ বছর পূর্তির আয়োজনে আরও থাকছে মাইলস ব্যান্ডের সদস্যদের ব্যবহৃত বাদ্যযন্ত্রের প্রদর্শনী, মাইলসের বিভিন্ন সময়ের দুর্লভ ছবি প্রদর্শনী, ব্যান্ডটির বিভিন্ন অর্জন প্রদর্শনী, গানের লিরিক এবং তার পেছনের কাহিনীসহ প্রদর্শনী ও মাইলসের যেসব সদস্য প্রয়াত, তাদের স্মরণে আয়োজন।

ফলে নতুন প্রজন্মের ভক্ত বা শ্রোতারা জানতে পারবেন মাইলসের ইতিহাস।

দেশের এই আয়োজনে সহযোগিতায় থাকছে উইন্ডমিল অ্যাডভারটাইজিং লিমিটেড। এতে মাইলসের জনপ্রিয় গানের পাশাপাশি তাদের নিজেদের পছন্দের অনেক গান পরিবেশন করা হবে।

এছাড়া দেশের অন্য শীর্ষস্থানীয় ব্যান্ডগুলো মাইলসের বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় গানে ঢাকার কনসার্ট মাতাবে।

যারা এ কনসার্টে আসার সুযোগ পাবেন তারা এই ৪০ বছরের কালের সাক্ষী হয়ে থাকবেন। আর বিদেশে আমেরিকা, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়ায়ও হবে সাড়া জাগানো কনসার্ট। সোমবার রাজধানীর ডেইলি স্টার সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান দেশের শীর্ষস্থানীয় এই ব্যান্ডের সদস্যরা।

৪৮ বছর উদযানের বিস্তারিত তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলনে বক্তৃতা করেন শাফিন আহমেদ, হামিন আহমেদ, মানাম আহমেদ, সৈয়দ জিয়াউর রহমান তুর্য ও ইকবাল আসিফ জুয়েল।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন আয়োজক প্রতিষ্ঠান উইন্ডমিলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সাব্বির রহমান তানিম।

সংবাদ সম্মেলনে মাইলস সদস্য শাফিন আহমেদ বলেন, ৪০ বছরে পূর্তি একদিনের কনসার্টে শেষ হবে না, এটা আগামী ৫-৬ মাস ধরে চলবে। শুধু দেশেই নয়, দেশের বাইরে থাকছে নানা আয়োজন।

হামিন আহমেদ বলেন, এটা আমাদের জন্য আনন্দের একটি বছর। এটা আমাদের শ্রোতা, দর্শক এবং ভক্তদের নিয়ে। আমাদের শুরুটা হবে আমেরিকা সফর দিয়ে। চলতি মাসেই আমরা সেখানে বিভিন্ন কনসার্টে অংশগ্রহণ করব। যা শেষ হবে আগস্টের তৃতীয় সপ্তাহে।

আমেরিকার বিভিন্ন শহরে ১২টির অধিক একক শোতে অংশ নেবে মাইলস। এরপর সেপ্টেম্বরে কানাডা ট্যুরে অংশ নেব। সেখানেও ৬টি শো হবে। দেশে ফিরেই আবার অক্টোবরের তৃতীয় সপ্তাহে আমরা অস্ট্রেলিয়ায় ৫-৬টি শোতে অংশ নেব। তারপর দেশে।

বাংলাদেশি ব্যান্ড হিসেবে আমেরিকায় প্রথম শো ছিল ১৯৯৬-তে। যেখানে মাইলস একক আয়োজনে অংশগ্রহণ করে। ১৯৭৯ সালে মাইলস যাত্রা শুরু করলেও আমাদের জন্য ১৯৮২ সাল বেশ উল্লেখযোগ্য ছিল।

কারণ তখন সাধারণ শ্রোতাদের সামনে আমরা হাজির হই স্ব-শরীরে। এর আগে শুধু ইন্টারকন্টিনেন্টালে আমরা বাজাতাম, যেখানে সাধারণ শ্রোতার আনাগোনা কম ছিল।

প্রসঙ্গত, ১৯৭৯-তে যাত্রা শুরু করে মাইলস। বিভিন্ন ধারার মিউজিকের সমন্বয় ঘটিয়ে দেশে বাংলা রক মিউজিককে ভিন্নমাত্রার উচ্চতায় নিয়ে গেছে মাইলস। তাদের প্রথম বাংলা গানের অ্যালবাম ‘প্রতিশ্রুতি’ প্রকাশ হয় ১৯৯১ সালে। তার আগে প্রকাশিত হয় দুটি ইংরেজি গানের অ্যালবাম ‘মাইলস’ ও ‘এ স্টেপ ফারদার’। ব্যান্ডটির জনপ্রিয় গানগুলোর মধ্যে রয়েছে- ‘চাঁদ তারা সূর্য’, ‘প্রথম প্রেমের মতো’, ‘গুঞ্জন শুনি’, ‘সে কোন দরদিয়া’, ‘ফিরিয়ে দাও’, ‘ধিকি ধিকি’, ‘পাহাড়ি মেয়ে’, ‘নীলা’, ‘কি জাদু’, ‘কতকাল খুঁজব তোমায়’, ‘হৃদয়হীনা’, ‘স্বপ্নভঙ্গ’, ‘জ্বালা জ্বালা’, ‘শেষ ঠিকানা’, ‘পিয়াসী মন’, ‘বলব না তোমাকে’, ‘জাতীয় সঙ্গীতের দ্বিতীয় লাইন’, ‘প্রিয়তমা মেঘ’সহ অসংখ্য গান।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×