বাসচাপা দিয়ে শিক্ষার্থী আবরারকে হত্যা

অধিকতর তদন্তে নতুন কারও সম্পৃক্ততা পায়নি ডিবি

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৫ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাসচাপা দিয়ে শিক্ষার্থী আবরারকে হত্যা
ফাইল ছবি

বাসচাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহাম্মেদ চৌধুরী নিহতের ঘটনায় করা মামলাটি অধিকতর তদন্ত করে নতুন কারও সম্পৃক্ততা পায়নি মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

২৮ মে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবির ইন্সপেক্টর কাজী শরিফুল ইসলাম আদালতের সংশ্লিষ্ট শাখায় অধিকতর তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।

২৭ জুন মামলার ধার্য দিনে প্রতিবেদনটি আদালতে উপস্থাপন করা হবে। সোমবার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা শেখ রাকিবুর রহমান যুগান্তরকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চার্জশিট দাখিলের পর যেসব সাক্ষী ঘটনার সঙ্গে অন্য আসামিরা জড়িত আছে মর্মে তথ্য প্রদান করেছিলেন, তারা আসামি ও ঘটনা সংক্রান্ত নতুন কোনো সুনিদিষ্ট তথ্য-প্রমাণ দিতে পারেননি। নতুন কোনো সাক্ষ্য-প্রমাণও পাওয়া যায়নি। এ জন্য সম্পূরক কোনো চার্জশিট দাখিল করা সম্ভব হচ্ছে না।

এর আগে ৩০ এপ্রিল ডিবির ক্যান্টনমেন্ট জোনাল টিম উত্তর বিভাগের পুলিশ পরিদর্শক কাজী শরীফুল ইসলাম অধিকতর তদন্তের আবেদন করেন। ওই আবেদনে বলা হয়, শিক্ষার্থী আবরার নিহত ও অপর শিক্ষার্থী মুক্তা আহত হওয়ার ঘটনায় চার আসামির বিরুদ্ধে পৃথক দুটি চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করা হয়েছে।

চার্জশিট দাখিলের পর ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও আরও আসামিদের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে। ন্যায়বিচারের স্বার্থে মামলাটি অধিকতর তদন্তের প্রয়োজন।

এরও আগে ২৩ এপ্রিল আদালতের সংশ্লিষ্ট শাখায় বাস মালিক ননী গোপাল সরকারসহ চারজনকে আসামি করে দুটি চার্জশিট জমা দেয়া হয়।

প্রথম চার্জশিটে (১০৩ নম্বর) মিরপুর আইডিয়াল ল্যাবরেটরি কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্রী সিনথিয়া সুলতানা মুক্তাকে (১৬) বাস দিয়ে আঘাত করে গুরুতর আহত করার অভিযোগ দাখিল করা হয়।

এতে সুপ্রভাত বাসের চালক মো. সিরাজুল ইসলাম (২৪), বাসের হেলপার মো. ইব্রাহিম হোসেন (২১), বাসের কনডাক্টর মো. ইয়াসিন আরাফাত (২২) ও বাস মালিক ননী গোপাল সরকারকে (৪২) আসামি করা হয়।

দ্বিতীয় চার্জশিট (১০৪ নম্বর) বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহাম্মেদ চৌধুরীকে বাসচাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগে দাখিল করা হয়।

এই চার্জশিটে সুপ্রভাত বাসের কনডাক্টর ইয়াসিন আরাফাত ও বাস মালিক ননী গোপাল সরকারকে আসামি করা হয়। এ চার্জশিটে বাসের চালক সিরাজুল ইসলাম ও হেলপার মো. ইব্রাহিম হোসেনকে অব্যাহতির সুপারিশ করা হয়েছিল।

প্রসঙ্গত, বিইউপির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ১৯ মার্চ সকাল ৭টার দিকে শাহজাহানপুর বাসা থেকে বিশ্ববিদ্যালয় যাওয়ার উদ্দেশে ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে ড্রাইভারসহ বের হন। বসুন্ধরা গেটে আবরারকে নামিয়ে দিয়ে ড্রাইভার গাড়ি নিয়ে বাসার উদ্দেশে রওনা হন।

আবরার বিশ্ববিদ্যালয়ের গাড়িতে ওঠার জন্য বসুন্ধরা সিটি গেটের সামনে প্রগতি সরণি জেব্রা ক্রসিং দিয়ে রাস্তার পূর্বদিকে থেকে পশ্চিম দিকে পার হচ্ছিলেন। এ সময় ঘাতক বাসটি আবরারকে চাপা দেয়। এতে তার মৃত্যু হয়।

ঘটনাপ্রবাহ : বাসচাপায় আবরার নিহত

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×