বুড়িগঙ্গা তীরের আরও ১১৯ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

  কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি ১১ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বুড়িগঙ্গা তীরের আরও ১১৯ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ
বুড়িগঙ্গা তীরে নির্মাণাধীণ একটি দোতলা ভবন বুধবার উচ্ছেদ করেছে বিআইডিব্লউটিএ। ছবি: যুগান্তর

বুড়িগঙ্গার তীর দখল করে গড়ে ওঠা আরও ১১৯টি অবৈধ স্থাপনা বুধবার উচ্ছেদ করেছে বিআইডব্লিউটিএ। বাবুবাজার ব্রিজ থেকে পোস্তগোলা শ্মশানঘাট পর্যন্ত বুড়িগঙ্গার উভয় তীরে দিনব্যাপী অভিযান চালিয়ে এসব স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

এছাড়াও নদীর তীরে রাখা মালামাল তাৎক্ষণিক নিলামের মাধ্যমে বিক্রি করে ১৫ লাখ টাকা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা করা হয়।

বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা নদীবন্দরের যুগ্ম পরিচালক একেএম আরিফ উদ্দিন, উপপরিচালক মিজানুর রহমান।

নৌপুলিশ ও আনসার সদস্যরা উচ্ছেদ অভিযানে সহযোগিতা করেন। এর আগে মঙ্গলবার ৪৭টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছিল।

ঢাকা নদীবন্দরের উপপরিচালক মিজানুর রহমান জানান, বুধবার সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত বাবুবাজার ব্রিজ থেকে পোস্তগোলা শ্মশানঘাট পর্যন্ত বুড়িগঙ্গার উভয় তীরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়।

এ সময় ১১৯টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে দোতলা ভবন একটি, একতলা ভবন ৭টি, আধাপাকা ভবন ১৫টি, টিনের ঘর ৬৫টি ও দোকান ঘর ৩১টি।

তিনি আরও জানান, এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের মাধ্যমে নদীর ১ একর জায়গা দখলমুক্ত করা হয়েছে। এছাড়াও চরমীরেরবাগ এলাকায় নদীতে পুরনো একটি জাহাজ ডুবিয়ে রেখে পানির স্বাভাবিক প্রবাহে বাধা দেয়ায় জাহাজটি নিলামে ৯ লাখ টাকা বিক্রি করা হয়েছে।

বাদামতলী ফলঘাট এলাকার নদীর তীরে পাথর, বালু, বাঁশ ও টিন ফেলে রাখায় সেগুলো নিলামের মাধ্যমে লাখ টাকায় বিক্রি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×