জাতীয় বৃক্ষমেলার শেষ দিন আজ

সাতাশ দিনে সাড়ে নয় কোটি টাকার গাছ বিক্রি

  শেকৃবি সংবাদদাতা ২০ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সাতাশ দিনে সাড়ে নয় কোটি টাকার গাছ বিক্রি
ফাইল ছবি

আজ শেষ হচ্ছে জাতীয় বৃক্ষমেলা। এবারের মেলায় বেশি বিক্রি হয়েছে বাড়ির ছাদ ও বেলকনির শোভাবর্ধনকারী গাছ। ফুল বা পাতাবাহার ছাড়াও টবে লাগানোর আম, আমলকী ও লটকন গাছের চাহিদাও ছিল বেশি।

বন বিভাগের তথ্য মতে, ২০ জুন শুরু হয় বৃক্ষমেলা। ১৭ জুলাই পর্যন্ত ২৭ দিনে মোট গাছ বিক্রি হয়েছে ১৫ লাখ ৪২ হাজার ৪০৯টি। যার মূল্য ৯ কোটি ৫৯ লাখ ২৬ হাজার ১২০ টাকা।

মেলায় সাজানো স্টলগুলোতে থোকায় থোকায় ফুটে আছে বিভিন্ন দেশ থেকে আনা বনসাই জিনসিন ফাইকাস, চায়না বট, দেশি মিনি বট, পাকুরসহ আরও মূল্যবান সৌন্দর্যবর্ধক গাছ। ফুলের মধ্যে ছিল অলকানন্দা, মাধবী, অপরাজিতা, লাল মুচুন্ডা, জুঁই, চামেলি প্রভৃতি।

জলে ভাসছে পদ্ম, শাপলা ও বিশাল আকারের আমাজন লিলি। রাজধানীতে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনের মাঠে জাতীয় বৃক্ষ মেলায় প্রবেশ করলেই দেখা মেলে প্রকৃতির রং মাখা একখানা উদ্যান।

গাছে ঝুলে আছে তোতাপুরী, চাকাপাত, ডাবল ক্যাপ্টেন নামের বিচিত্রসব বিদেশি জাতের আম। সাথে আছে লটকন, করমচা, চালতা, আমলকীসহ অজস্র দেশি-বিদেশি ফলের গাছ।

একসময় খোলা জায়গা ও বাগানে রোপণ করা হলেও এখন বাড়ির ছাদে ও বেলকনির টবেও লাগানোয় ব্যাপক জনপ্রিয়তা পাচ্ছে এসব গাছ।

ছাদে টবে লাগানোর উপযোগী ঈশ্বরমূল, সর্পগন্ধা, শ্বেতচন্দন, অশোক হলুদ, উলটচন্ডাল, জ্যৈষ্ঠ মধু, গন্ধভাদুলিয়া, গোলাচিসহ দুশ’ প্রজাতির ওষুধি গাছ।

আছে জয়ফল, কর্পূর, পিনাট, দারুচিনি, তেজপাতা, গোলমরিচসহ মসলা জাতীয় গাছের চারাও। আঙুর, কমলা, মাল্টা, সফেদাসহ বাহারি গাছের বিক্রি সবচেয়ে বেশি।

জনসচেতনতা সৃষ্টিতে দুই যুগ ধরে হচ্ছে বৃক্ষমেলা। মেলায় বন বিভাগে নিয়োজিত বন্যপ্রাণী পরিদর্শক নিগার সুলতানা জানান, এ বছর মেলা শুরুর দিকে অপেক্ষাকৃত বিক্রি কম হওয়ায় জুলাই মাসের ২৭ তারিখ পর্যন্ত মেলার সময় বাড়ানোর সম্ভাবনা আছে।

তবে অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর রেকর্ড ছাড়াতে পারে বলে জানান তিনি। স্ত্রী সন্তানসহ মেলায় আসা সাদিকুল ইসলাম জানান, চাকরিতে ব্যস্ততার কারণে মেলায় আসতে পারিনি। আজ এসে জানলাম মেলা নাকি শেষের দিকে। আরও কিছু দিন মেলার মেয়াদ বাড়ালে খুব ভালো হয়।

পুরো বর্ষা মৌসুমে এ মেলা চালু রাখার দাবি জানান বিক্রেতা ও বৃক্ষপ্রেমীরা। বন বিভাগের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে গাছের প্রতি সচেতনতা বেড়েছে উপহার হিসেবে গাছের প্রচলনও বেড়েছে নগর জীবনে। তাই এবার বিক্রিও বেশি।

বৃক্ষপ্রেমীদের কথা চিন্তা করে এর সময় ৭ দিন বাড়াতে প্রধান বন সংরক্ষক কর্মকর্তা মন্ত্রীর নিকট উপস্থাপন করবে বলে জানিয়েছেন নিগার সুলতানা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×