‘বঙ্গবন্ধু স্মারক বক্তৃতামালা’র ৩য় পর্ব অনুষ্ঠিত

  সাংস্কৃতিক রিপোর্টার ২৩ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নিয়মিত কর্মসূচির ১০০টি বক্তৃতামালার অংশ হিসেবে শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হল ‘বঙ্গবন্ধু স্মারক বক্তৃতামালা’র ৩য় পর্ব। বৃহস্পতিবার একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার স্টুডিও থিয়েটার হলে অনুষ্ঠিত এ বক্তৃতামালায় বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক দর্শন নিয়ে বক্তৃতা করেন জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান এবং বঙ্গবন্ধু হত্যা-পরবর্তী বাংলাদেশ বাস্তবতাবিষয়ক বক্তৃতা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবু মো. দেলোয়ার হোসেন। সভাপতিত্ব করেন একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। অনুষ্ঠানের শুরুতেই বঙ্গবন্ধু এবং ১৫ আগস্ট শাহাদতবরণকারী সবার প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর ‘দুঃখিনী বাংলা জননী বাংলা’ গানের সঙ্গে দলীয় নৃত্য পরিবেশন করে একাডেমির শিশুনৃত্য দল। আনিসুজ্জামান বলেন, ৭ মার্চের ভাষণ কোনো লিখিত ভাষণ ছিল না। তা ছিল সম্পূর্ণ তাৎক্ষণিক। এই ভাষণে তিনি সরাসরি স্বাধীনতার ডাক না দিয়েও স্বাধীনতার জন্য বাঙালিকে প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। এ ভাষণের মধ্য দিয়েই সবাই স্বাধীতা সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত হতে শুরু করেন। তিনি আরও বলেন, পৃথিবীতে অনেক জননেতাকে শত্রুর হাতে প্রাণ দিতে হয়েছে। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর ক্ষেত্রে পরিবারের সবাইকেই প্রাণ হারাতে হয়েছে। যারা হত্যাকারী, তারা আবার দেশকে পাকিস্তানের ধারায় ফিরিয়ে নিতে চেয়েছিল। বঙ্গবন্ধুর নাম ইতিহাস থেকে মুছে ফেলতে চেয়েছিল। কিন্তু তাদের চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। কারণ বাংলার মানুষ নিশ্চিতভাবে জেনেছিল এবং বিশ্বাস করেছিল যে বঙ্গবন্ধুর জন্যই আমরা একটা স্বাধীন দেশ পেয়েছি। সবশেষে সম্মেলক কণ্ঠে ‘ধন্য মুজিব ধন্য’ ও ‘শোন একটি মুজিবরের থেকে’ গান দুটি পরিবেশন করে শিল্পকলা একাডেমির শিশুসঙ্গীত দল। প্রসঙ্গত, নিয়মিত এ আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর ১০০টি স্মারক বক্তৃতানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। গত ৭ আগস্ট ‘বঙ্গবন্ধু স্মারক বক্তৃতামালা’ কর্মসূচির উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম পর্বে স্মারক বক্তৃতা করেন জাতীয় অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম।

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আলোচনা : বঙ্গবন্ধুর ৪৪তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করেছে জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদতবার্ষিকী জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি। গতকাল বিকালে সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। জাতীয় অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে এতে আরও বক্তৃতা করেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনীতিবিষয়ক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান ও ফোকলোরবিদ শামসুজ্জামান খান। স্বাগত বক্তৃতা করেন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×