বাংলাদেশ-ভারতের বাংলা নাট্যোৎসব

  সাংস্কৃতিক রিপোর্টার ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

শিল্পকলা একাডেমি
ফাইল ছবি

মহাকাল নাট্য সম্প্রদায়ের তিন যুগ পূর্তিতে শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে শুরু হয়েছে ‘বাংলা নাট্যোৎসব’। উৎসবে বাংলাদেশের ২৭টি ও ভারতের ৫টি নাট্যদল অংশ নিচ্ছে।

যার মধ্য দিয়ে দু’দেশের বাংলা ভাষাভাষী মানুষের মাঝে সাংস্কৃতিক যোগাযোগ আরও গভীর হবে। সোমবার সন্ধ্যায় জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে ১০ দিনব্যাপী এ উৎসবের উদ্বোধন করেন ত্রিপুরা রাজ্য সরকারের চিফ হুইপ কল্যাণী রায়, নাট্যজন রামেন্দু মজুমদার এবং আতাউর রহমান।

প্রধান অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ এবং নাট্যজন কামাল বায়েজীদ। সভাপতিত্ব করেন মহাকাল নাট্য সম্প্রদায়ের সাবেক সভাপতি আফজাল হোসেন।

স্বাগত বক্তব্য দেন সংগঠনের সভাপতি মীর জাহিদ হাসান, শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন উৎসব পরিষদের আহ্বায়ক কবির আহামেদ।

উৎসবে ভারতের আসাম রাজ্য থেকে ‘ভাবিকাল থিয়েটার’, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য থেকে ‘এবং আমরা থিয়েটার’ ও ‘রঘুনাথগঞ্জ থিয়েটার গ্রুপ’ এবং ত্রিপুরা রাজ্য থেকে ‘শুভম নাট্যচক্র’ ও ‘লারনার্স থিয়েটার’ অংশ নিচ্ছে।

বাংলাদেশের অংশগ্রহণকারী দল : মহাকাল নাট্য সম্প্রদায়, দেশনাটক, প্রাচ্যনাট, থিয়েটার আর্ট ইউনিট, নাট্যচক্র, বুনন থিয়েটার, শব্দ নাট্যচর্চা কেন্দ্র, আরণ্যক নাট্যদল, থিয়েটার সার্কেল, মুন্সীগঞ্জ, ঢাকা থিয়েটার, ব্যতিক্রম নাট্যগোষ্ঠী, নাট্যতীর্থ, নাট্যম রেপর্টরী, লোক নাট্যদল (বনানী), সময়, নাগরিক নাট্যাঙ্গন অনসাম্বল, বটতলা, অনুরাগ থিয়েটার, চন্দ্রকলা থিয়েটার, নবনাট, পদাতিক নাট্য সংসদ (টিএসসি), বাংলাদেশের পুতুলনাট্য গবেষণা কেন্দ্র, কথক, নাট্যযোদ্ধা, বাঙলা নাট্যদল ও মেঠোপথ।

মনি হায়দারের ‘কিংবদন্তির ভাগীরথী’ উপন্যাসের মোড়ক উন্মোচন : মুক্তিযুদ্ধের ঘটনা অবলম্বনে কথাসাহিত্যিক মনি হায়দার রচিত ‘কিংবদন্তির ভাগীরথী’ উপন্যাসের মোড়ক জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে সোমবার বিকালে উন্মোচন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। সম্মানিত অতিথি ছিলেন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ আলোচক ছিলেন প্রাবন্ধিক গবেষক ড. সরকার আবদুল মান্নান ও নাট্যজন মাসুম রেজা। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কথাসাহিত্যিক হাসনাত আবদুল হাই।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ বাঙালির অহংকার, পাশাপাশি এই যুদ্ধে তৎকালীন পাকবাহিনীর বর্বরতা খুবই বেদনাদায়ক। মনি হায়দার সেই বর্বরতারই এক খণ্ডচিত্র তুলে ধরেছেন তার ‘কিংবদন্তির ভাগীরথী’ উপন্যাসে।

একাত্তরে মহকুমা শহর পিরোজপুরের উপকণ্ঠে এক রমণী ভাগীরথীর জীবনে যে মর্মান্তিক, নিষ্ঠুর ঘটনা ঘটেছিল তারই প্রতিচ্ছবি ফুটে উঠেছে এ উপন্যাসে। কেবল তিক্ত সর্বনাশ হয়, জীবনটাও নির্মম পাশবিক খেলায় জান্তব যন্ত্রণায় বিসর্জন দিয়েছিল সেই মহীয়সী।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×