ডিএসসিসি কাউন্সিলর নির্বাচন ২০২০ : ১২ নম্বর ওয়ার্ড

বাসযোগ্য ওয়ার্ড গড়ার অঙ্গীকার

  মো. বিল্লাল হোসেন ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ডিএসসিসি
ফাইল ছবি

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) ১২নং ওয়ার্ডের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা মাদকমুক্ত একটি আধুনিক ও বাসযোগ্য ওয়ার্ড গড়ার অঙ্গীকার করেছেন। একই সঙ্গে সড়কবাতি, সিসি ক্যামেরা স্থাপন, সড়ক উন্নয়ন, বিনোদন কেন্দ্র স্থাপন, পরিচ্ছন্ন এবং প্রতিহিংসামুক্ত ওয়ার্ড করার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন তারা।

ডিএসসিসির ১২নং ওয়ার্ডে ভোটার প্রায় ৪২ হাজার হলেও জনসংখ্যা দুই লাখ রয়েছে। হোল্ডিং রয়েছে প্রায় ২ হাজার তিনশ’। মালিবাগ, গুলবাগ, শান্তিবাগ, বকসিবাগ, ইন্দ্রপুরী এ ওয়ার্ডের অন্তর্ভুক্ত।

ডিএসসিসির ১২নং ওয়ার্ডের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা হলেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক শেখ সেকান্দার আলী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বর্তমান কাউন্সিলর গোলাম আশরাফ তালুকদার, ১২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. এনায়েত কবির, আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর হায়দার চৌধুরী। বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থী ফজলে রুবায়াত পাপ্পু ও আবুল মনসুর।

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, বর্তমান কাউন্সিলর বিগত বছরে ওয়ার্ডে তেমন কোনো উন্নয়ন করতে পারেননি। বাসিন্দারা অনেক নাগরিকসুবিধা থেকে বঞ্চিত। গ্যাস ও বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকট রয়েছে।

রাস্তার অলিগলির তেমন সংস্কার করা হয়নি। বর্ষা মৌসুমে সামান্য বৃষ্টিতে সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। বাসাবাড়ির ময়লা-আবর্জনা যেখানে-সেখানে ফেলা হচ্ছে। নেই কোনো পাঠাগার, শিশুদের জন্য বিনোদন কেন্দ্র, শরীরচর্চা কেন্দ্র, কমিনিউটি সেন্টার।

যদিও কাউন্সিলর বলছেন, বর্তমান যাদের বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান চলছে তাদের কারণে এ ওয়ার্ডে তেমন উন্নয়ন করা সম্ভব হয়নি।

শেখ সেকান্দার আলী বলেন, আমি এলাকায় স্কুল, মাদ্রাসা, মসজিদ, প্রতিষ্ঠা করেছি। সামাজিক উন্নয়ন প্রতিনিয়ত করে যাচ্ছি। এ ওয়ার্ডের অন্যতম সমস্যা হল মাদক। এ মাদক আমি নির্মূল করব।

জলাবদ্ধতা ও রাস্তার যে সমস্যা রয়েছে তা সমাধান করব। সব প্রকার নাগরিক সুবিধাসহ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও একটি কমিনিউটি সেন্টার করা হবে।

বর্তমান কাউন্সিল গোলাম আশরাফ তালুকদার বলেন, আমি কাউন্সিলর নির্বাচিত হলে মাদক, সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজমুক্ত ওয়ার্ড গড়ব। আমি এ এলাকার অলিগলি শতভাগ বিদ্যুতের আলোর আওতায় আনতে পেরেছি। রাস্তাঘাট ভালো। কিন্তু বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের কারণে এগুলো নষ্ট হয়েছে। যার ফলে জনগণের কিছুটা ভোগান্তি হয়েছে।

মো. এনায়েত কবির বলেন, বর্তমান কাউন্সিলর ইচ্ছা থাকলেও অনেক কাজ করতে পারে নাই। দল মনোনয়ন দিলে আমি নির্বাচন করব। নির্বাচিত হলে সব প্রকার নাগরিক সুবিধাসহ রাস্তাঘাট সংস্কার করব। মাদক অনেকটা কমে গেছে।

আমি নির্বাচিত হলে সব প্রকার নাগরিক সুবিধাসহ একটি আধুনিক কমিনিউটি সেন্টার তৈরি করব। জাহাঙ্গীর হায়দার চৌধুরী বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা দল থেকে যাকে মনোনয়ন দেন তার পক্ষে কাজ করব।

যদি বিতর্কিত কাউকে মনোনয়ন দেন তাহলে তার প্রতিবাদ করব। আমি তৃণমূল থেকে রাজনীতি করে এসেছি। নেত্রীর নির্দেশ মোতাবেক কাজ করব।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×