৩১ নম্বর ওয়ার্ড

ডিএসসিসি কাউন্সিলর নির্বাচন ২০২০: মডেল ওয়ার্ড গড়ার অঙ্গীকার

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

শফিকুর রহমান, জুবায়েদ আদিল, সোয়েব আহাম্মদ ও আনোয়ারুল হক রনি। ছবি: যুগান্তর

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) ৩১ নম্বর ওয়ার্ডকে মডেল ওয়ার্ড হিসেবে গড়তে চান সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা। তারা ড্রেনেজ ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থার আধুনিকায়ন করে জলাবদ্ধতা নিরসন করতে চান।

মাদক নিয়ন্ত্রণ ও মশক সমস্যা সমাধান করারও অঙ্গীকার করেছেন অনেকে। কমিউনিটি সেন্টার, ব্যায়ামাগার, খেলার মাঠ, পাঠাগারসহ নাগরিকদের বিনোদনের ব্যবস্থাকে আধুনিকায়ন করার অঙ্গীকার করছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা।

আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচনটি অবাধ, নিরপেক্ষ ও স্বচ্ছ হলে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী বলে জানান সব প্রার্থী। নির্বাচনী প্রস্তুতির পাশাপাশি জয় নিশ্চিত করতে স্থানীয় রাজনীতিতে অবস্থান শক্ত করতে কাজ করছেন অনেকে।

দলীয় মনোনয়ন পেতে উচ্চপর্যায়ের নেতাদের সঙ্গেও নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা প্রায় ১৭ হাজার হলেও ওয়ার্ডটিতে ২ লক্ষাধিক মানুষের বসবাস। ওয়ার্ডটি ঘিঞ্জি ঘনবসতিপূর্ণ ছোটখাটো সরু গলিতে ভরা একটি বাণিজ্যিক এলাকা।

ওয়ার্ডটিতে মৌলবিবাজার, বেগমবাজার, আরমানীটোলা, বেচারাম দেউরি নূর বক্স লেন, আবুল খয়রাত লেন, সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগার, নাবালক মিয়া লেন, ঐতিহাসিক তারা মসজিদসহ ২৬টি পাড়া-মহল্লা রয়েছে।

বর্তমান ওয়ার্ড কাউন্সিলর কয়েক বছর ধরে এলাকায় থাকেন না। স্থানীয় বাসিন্দারা জন্ম-মৃত্যুসনদ, নাগরিক সনদ ও ওয়ারিশ সনদ পাচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন। এলাকার পলিথিন ও প্লাস্টিক সামগ্রী বিক্রেতাদের কাছ থেকে নিয়মিত মাসোহারা আদায় করছে কতিপয় লোকজন।

এসব বিষয়ে বক্তব্য জানতে কাউন্সিলর রফিকুল ইসলাম রাসেলের মোবাইল ফোনে বারবার কল ও খুদেবার্তা পাঠালেও তিনি সাড়া দেননি।

তবে স্থানীয় বিএনপির একটি সূত্র জানায়, বর্তমান কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে অনেক মামলা থাকায় তিনি এলাকায় থাকেন না। তাছাড়া তিনি আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন। এ কারণে কারও সঙ্গে যোগাযোগ করেন না।

এ ওয়ার্ডে সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী হলেন- ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ইরোজ আহমেদ অভ্রু, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য শফিকুর রহমান জাহাঙ্গীর, ঢাকা মহানগর যুবলীগের নেতা শেখ মো. আলমগীর, ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি এমএ কাইয়ুম, চকবাজার থানা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ারুল হক রনি, ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইমরান আহমেদ রনি ও ওয়ার্ড যুবদলের সভাপতি সোয়েব আহাম্মদ ফারুক।

এছাড়া জুবায়েদ আদিল স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন বলে জানা গেছে। চকবাজার থানাধীন ডিএসসিসির ৩১ নম্বর ওয়ার্ড এলাকাটি বানিজ্যিক ও আবাসিক হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

ওয়ার্ডের মৌলবিবাজার দেশের অন্যতম বৃহৎ মসলা ও মুদি পণ্যের পাইকারি বাজার। ওয়ার্ডের অধিকাংশ রাস্তায় খোলা ড্রেনেজ রয়েছে। সেখান থেকে মাছি-মশাসহ ক্ষতিকর পোকামাকড় জন্মাচ্ছে।

সফিকুর রহমান জাহাঙ্গীর যুগান্তরকে বলেন, দল থেকে মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচিত হলে এলাকায় মাদক নির্মূল ও জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ করব। নতুন কমিউনিটি সেন্টার ও পুরাতন কারাগারের জায়গায় একটি মহিলা কলেজ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন তিনি।

যুবলীগ নেতা শেখ মো. আলমগীর যুগান্তরকে বলেন, দল থেকে মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচিত হলে ওয়ার্ডের যানজট সমস্যা সমাধান করব। এছাড়া পূর্ণাঙ্গ মাতৃসদন চালু ও কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণ করব।

ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি এমএ কাইয়ুম যুগান্তরকে বলেন, দল থেকে মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচিত হলে এ ওয়ার্ডকে ব্যবসা-বানিজ্যবান্ধব হিসেবে গড়ে তুলব।

চকবাজার থানা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ারুল হক রনি যুগান্তরকে বলেন,দল থেকে মনোনয়ন দিলে নির্বাচন করতে আগ্রহী।

আমি কথায় নয়, কাজে বিশ্বাসী। বিএনপির ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক ইমরান আহমেদ রনি যুগান্তরকে বলেন, আমি দল থেকে মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচিত হলে এলাকার উন্নয়নে কাজ করব।

ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও নূর বক্স লেন সমাজকল্যাণ পঞ্চায়েত কমিটির সাধারণ সম্পাদক সোয়েব আহাম্মদ ফারুক যুগান্তরকে বলেন, আমি কাউন্সিলর নির্বাচিত হলে সবার আগে মাদক নিয়ন্ত্রণ করে যুবসমাজকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষায় কাজ করব।

স্বতন্ত্র প্রার্থী জুবায়েদ আদেল যুগান্তরকে বলেন, ভোটারদের সমর্থন পেয়ে নির্বাচিত হলে মাদকের বিরুদ্ধে কাজ করব। একটি ফায়ার সার্ভিস স্টেশন স্থাপন করার চেষ্টা করব।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত