বুড়িগঙ্গায় ওয়াসার স্যুয়ারেজ লাইন ছয় মাসের মধ্যে সরানোর নির্দেশ
jugantor
বুড়িগঙ্গায় ওয়াসার স্যুয়ারেজ লাইন ছয় মাসের মধ্যে সরানোর নির্দেশ

  যুগান্তর রিপোর্ট  

০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বুড়িগঙ্গায় ওয়াসার স্যুয়ারেজ লাইন ছয় মাসের মধ্যে সরানোর নির্দেশ

বুড়িগঙ্গা নদীতে থাকা ঢাকা ওয়াসার সব স্যুয়ারেজ লাইন সরিয়ে ফেলতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী ৬ মাসের মধ্যে সরকারি ওই সেবা সংস্থাকে এগুলো সরাতে বলা হয়েছে।

ওয়াসার করা এক সময় আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ রোববার এ আদেশ দেন।

একই সঙ্গে আদেশ বাস্তবায়নের বিষয়ে এক মাসের মধ্যে অগ্রগতি প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। আদেশের বিষয়টি জানান রিটকারী আইনজীবী মনজিল মোরসেদ।

এদিকে বুড়িগঙ্গায় ওয়াসার কোনো স্যুয়ারেজ লাইন পতিত হয়নি মর্মে ১৮ জুন যে অসত্য তথ্য সংবলিত এফিডেভিট দেয়া হয়েছিল তার জন্য জন্য হাইকোর্টে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি)। আদালত বলেছেন, স্যুয়ারেজ লাইন সরানোর ওপর নির্ভর করে এ বিষয়ে আদেশ দেয়া হবে।

এ ছাড়া পরিবেশ অধিদফতরের ছাড়পত্র ছাড়া বুড়িগঙ্গার দুই তীরে গড়ে ওঠা শিল্পপ্রতিষ্ঠান এবং যেসব শিল্পপ্রতিষ্ঠান থেকে বর্জ্য বুড়িগঙ্গায় পড়ছে সেইসব প্রতিষ্ঠান আগামী এক মাসের মধ্যে বন্ধ করতে পরিবেশ অধিদফতরকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ওয়াসার পক্ষে সময়ের আবেদন করেন অ্যাডভোকেট উম্মে সালমা। পরিবেশ অধিদফতরের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আমাতুল করিম। রিটের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ।

বুড়িগঙ্গায় ওয়াসার স্যুয়ারেজ লাইন ছয় মাসের মধ্যে সরানোর নির্দেশ

 যুগান্তর রিপোর্ট 
০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
বুড়িগঙ্গায় ওয়াসার স্যুয়ারেজ লাইন ছয় মাসের মধ্যে সরানোর নির্দেশ
ফাইল ছবি

বুড়িগঙ্গা নদীতে থাকা ঢাকা ওয়াসার সব স্যুয়ারেজ লাইন সরিয়ে ফেলতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী ৬ মাসের মধ্যে সরকারি ওই সেবা সংস্থাকে এগুলো সরাতে বলা হয়েছে।

ওয়াসার করা এক সময় আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ রোববার এ আদেশ দেন।

একই সঙ্গে আদেশ বাস্তবায়নের বিষয়ে এক মাসের মধ্যে অগ্রগতি প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। আদেশের বিষয়টি জানান রিটকারী আইনজীবী মনজিল মোরসেদ।

এদিকে বুড়িগঙ্গায় ওয়াসার কোনো স্যুয়ারেজ লাইন পতিত হয়নি মর্মে ১৮ জুন যে অসত্য তথ্য সংবলিত এফিডেভিট দেয়া হয়েছিল তার জন্য জন্য হাইকোর্টে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি)। আদালত বলেছেন, স্যুয়ারেজ লাইন সরানোর ওপর নির্ভর করে এ বিষয়ে আদেশ দেয়া হবে।

এ ছাড়া পরিবেশ অধিদফতরের ছাড়পত্র ছাড়া বুড়িগঙ্গার দুই তীরে গড়ে ওঠা শিল্পপ্রতিষ্ঠান এবং যেসব শিল্পপ্রতিষ্ঠান থেকে বর্জ্য বুড়িগঙ্গায় পড়ছে সেইসব প্রতিষ্ঠান আগামী এক মাসের মধ্যে বন্ধ করতে পরিবেশ অধিদফতরকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ওয়াসার পক্ষে সময়ের আবেদন করেন অ্যাডভোকেট উম্মে সালমা। পরিবেশ অধিদফতরের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আমাতুল করিম। রিটের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ।