সিটি নির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিটের শুনানি রোববার
jugantor
সিটি নির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিটের শুনানি রোববার

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৪ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন স্থগিত চেয়ে করা রিটের শুনানি আগামী রোববার। বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার শুনানির এ দিন ধার্য করেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নুর উস সাদিক।

ভোটার তালিকা হালনাগাদ না করায় ঢাকা সিটি নির্বাচন স্থগিত চেয়ে ২২ জানুয়ারি রিটটি করেন আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ।

রিট আবেদনে বলা হয়, ২০১০ সালের সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন বিধিমালায় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর ক্ষেত্রে ৩শ’ ভোটারের স্বাক্ষরের বিধান রয়েছে। কিন্তু দলীয় প্রার্থীর ক্ষেত্রে এ বিধান না থাকাটা বৈষম্যমূলক এবং এটি সংবিধানের ৭, ১৯, ২৬, ২৭, ২৮ ও ৩১ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। রিটে আরও বলা হয়, এ নির্বাচনের জন্য প্রথমে ৩০ জানুয়ারি তারিখ নির্ধারণ করে তফসিল ঘোষণা করা হয়।

সিটি নির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিটের শুনানি রোববার

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন স্থগিত চেয়ে করা রিটের শুনানি আগামী রোববার। বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার শুনানির এ দিন ধার্য করেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নুর উস সাদিক।

ভোটার তালিকা হালনাগাদ না করায় ঢাকা সিটি নির্বাচন স্থগিত চেয়ে ২২ জানুয়ারি রিটটি করেন আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ।

রিট আবেদনে বলা হয়, ২০১০ সালের সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন বিধিমালায় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর ক্ষেত্রে ৩শ’ ভোটারের স্বাক্ষরের বিধান রয়েছে। কিন্তু দলীয় প্রার্থীর ক্ষেত্রে এ বিধান না থাকাটা বৈষম্যমূলক এবং এটি সংবিধানের ৭, ১৯, ২৬, ২৭, ২৮ ও ৩১ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। রিটে আরও বলা হয়, এ নির্বাচনের জন্য প্রথমে ৩০ জানুয়ারি তারিখ নির্ধারণ করে তফসিল ঘোষণা করা হয়।