নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস করায় মানুষ ভোটবিমুখ : মঈন খান
jugantor
নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস করায় মানুষ ভোটবিমুখ : মঈন খান

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান।

সরকার নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করেছে বলেই জনগণ ভোটবিমুখ হয়ে গেছেন- এমন দাবি করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান। তিনি বলেন, বাঙালিরা হল পৃথিবীর সব থেকে রাজনৈতিক সচেতন জাতি।

সর্বত্র তাদের রাজনৈতিক আলাপ। স্টলে বসে মানুষ চা খাওয়া বাদ দিয়ে রাজনীতি নিয়ে আলোচনা করেন। অথচ তারাই আজ ভোটবিমুখ।

শনিবার বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে তৈমূর আলম খন্দকার রচিত ‘জাতীয় নির্বাচন-২০১৮ পোস্টমর্টেম’ গ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সভাপতির বক্তব্যে ড. মঈন আরও বলেন, বর্তমানে নির্বাচন ব্যবস্থা একটি মৃতদেহে পরিণত হয়েছে। ২০১৮ সাল থেকে ভোটার উপস্থিতি কমছে। সঠিক সময়ে সঠিক একটি বই প্রকাশে তৈমূর আলমকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেন, বাঙালিরা যেই পরিমাণ ভোট দেন, সে পরিমাণ ভোট দেয়ার নজির পৃথিবীর কোথাও নেই।

ব্রিটিশবিরোধী নির্বাচন, পাকিস্তানের সময়ের নির্বাচনে এর প্রমাণ। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, হাইকোর্টের বিচারপতিরা কোর্টের মতোই অন্ধ-বধির।

খালেদা জিয়ার জামিনের জন্য যে ডাক্তারি প্রতিবেদন বিএনপি জমা দিয়েছিল তা খুলেও দেখেনি। তিনি আরও বলেন, এ বইটা আমাদের সবাইকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, আমি বলি- ২০১৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ধ্বংস হয়ে গেছে। একটা ঘটনার পরে আপনি বাসে, লঞ্চে, ট্রেনে যান, একটা মানুষ পাবেন না, যারা এ সরকারের প্রশংসা করেছে।

ড. মঈন খানের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, অধ্যাপক নুরুল আমীন বেপারী প্রমুখ।

নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস করায় মানুষ ভোটবিমুখ : মঈন খান

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান।
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান। ফাইল ছবি

সরকার নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করেছে বলেই জনগণ ভোটবিমুখ হয়ে গেছেন- এমন দাবি করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান। তিনি বলেন, বাঙালিরা হল পৃথিবীর সব থেকে রাজনৈতিক সচেতন জাতি।

সর্বত্র তাদের রাজনৈতিক আলাপ। স্টলে বসে মানুষ চা খাওয়া বাদ দিয়ে রাজনীতি নিয়ে আলোচনা করেন। অথচ তারাই আজ ভোটবিমুখ।

শনিবার বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে তৈমূর আলম খন্দকার রচিত ‘জাতীয় নির্বাচন-২০১৮ পোস্টমর্টেম’ গ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সভাপতির বক্তব্যে ড. মঈন আরও বলেন, বর্তমানে নির্বাচন ব্যবস্থা একটি মৃতদেহে পরিণত হয়েছে। ২০১৮ সাল থেকে ভোটার উপস্থিতি কমছে। সঠিক সময়ে সঠিক একটি বই প্রকাশে তৈমূর আলমকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেন, বাঙালিরা যেই পরিমাণ ভোট দেন, সে পরিমাণ ভোট দেয়ার নজির পৃথিবীর কোথাও নেই।

ব্রিটিশবিরোধী নির্বাচন, পাকিস্তানের সময়ের নির্বাচনে এর প্রমাণ। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, হাইকোর্টের বিচারপতিরা কোর্টের মতোই অন্ধ-বধির।

খালেদা জিয়ার জামিনের জন্য যে ডাক্তারি প্রতিবেদন বিএনপি জমা দিয়েছিল তা খুলেও দেখেনি। তিনি আরও বলেন, এ বইটা আমাদের সবাইকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, আমি বলি- ২০১৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ধ্বংস হয়ে গেছে। একটা ঘটনার পরে আপনি বাসে, লঞ্চে, ট্রেনে যান, একটা মানুষ পাবেন না, যারা এ সরকারের প্রশংসা করেছে।

ড. মঈন খানের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, অধ্যাপক নুরুল আমীন বেপারী প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন