হাসপাতাল জীবাণুমুক্ত করার উদ্যোগ
jugantor
হাসপাতাল জীবাণুমুক্ত করার উদ্যোগ

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৫ মার্চ ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতাল করোনাভাইরাসের জীবাণুমুক্ত করার কার্যক্রম শুরু করেছে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি। এই কাজে সহযোগিতা করছে বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন। মঙ্গলবার উভয় সংস্থার পক্ষ থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, সোমবার রাতে স্বাস্থ্য অধিদফতরে করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম শুরু করা হয়। এ সময় বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ভাইস চেয়ারম্যান ও আইএফআরসির গভর্নিং বোর্ডের সদস্য প্রফেসর ডা. মো. হাবিবে মিল্লাত এমপি, স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন ডা. ইকবাল কবির, যুগ্ম ফোকাল পার্সন কোয়ারেন্টিন ম্যানেজমেন্ট ডা. মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিক, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির যুব ও স্বেচ্ছাসেবক বিভাগের পরিচালক ইমাম জাফর শিকদার, বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের ভাইস চেয়ারম্যান ফারুখ আহমেদসহ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও স্বেচ্ছাসেবকরা উপস্থিত ছিলেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরে কার্যক্রম শেষে স্বেচ্ছাসেবকরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যায়। সেখানে তারা মধ্যরাত পর্যন্ত হাসপাতালের জরুরি বিভাগসহ বিভিন্ন স্থানে জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম পরিচালনা করে। ডা. হাবিবে মিল্লাত বলেন, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি যে মানুষের কল্যাণে কাজ করে, আজকের এই জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। এই জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে।

ডা. ইকবাল কবির, কোয়ারেন্টিন বা আইসোলেশন ইউনিট খোলা হাসপাতালসহ রাজধানীর সব হাসপাতালকে জীবাণুমুক্ত করতে সারা রাত বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম পরিচালনা করবে। ফারুখ আহমেদ বলেন, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যারা রাতদিন সাধারণ মানুষের সেবার পাশাপাশি করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সেবায় নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন, তাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এটি একটি গ্রহণযোগ্য পদক্ষেপ এবং তাদের এই আত্মত্যাগে অনুপ্রেরণা জোগাবে। প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির স্বেচ্ছাসেবক ও বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবীরা যৌথভাবে এই জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম পরিচালনা করবে। যেসব স্বেচ্ছাসেবক এই কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকবেন, তাদের সব ধরনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।

হাসপাতাল জীবাণুমুক্ত করার উদ্যোগ

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৫ মার্চ ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতাল করোনাভাইরাসের জীবাণুমুক্ত করার কার্যক্রম শুরু করেছে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি। এই কাজে সহযোগিতা করছে বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন। মঙ্গলবার উভয় সংস্থার পক্ষ থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, সোমবার রাতে স্বাস্থ্য অধিদফতরে করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম শুরু করা হয়। এ সময় বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ভাইস চেয়ারম্যান ও আইএফআরসির গভর্নিং বোর্ডের সদস্য প্রফেসর ডা. মো. হাবিবে মিল্লাত এমপি, স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন ডা. ইকবাল কবির, যুগ্ম ফোকাল পার্সন কোয়ারেন্টিন ম্যানেজমেন্ট ডা. মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিক, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির যুব ও স্বেচ্ছাসেবক বিভাগের পরিচালক ইমাম জাফর শিকদার, বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের ভাইস চেয়ারম্যান ফারুখ আহমেদসহ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও স্বেচ্ছাসেবকরা উপস্থিত ছিলেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরে কার্যক্রম শেষে স্বেচ্ছাসেবকরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যায়। সেখানে তারা মধ্যরাত পর্যন্ত হাসপাতালের জরুরি বিভাগসহ বিভিন্ন স্থানে জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম পরিচালনা করে। ডা. হাবিবে মিল্লাত বলেন, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি যে মানুষের কল্যাণে কাজ করে, আজকের এই জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। এই জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে।

ডা. ইকবাল কবির, কোয়ারেন্টিন বা আইসোলেশন ইউনিট খোলা হাসপাতালসহ রাজধানীর সব হাসপাতালকে জীবাণুমুক্ত করতে সারা রাত বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম পরিচালনা করবে। ফারুখ আহমেদ বলেন, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যারা রাতদিন সাধারণ মানুষের সেবার পাশাপাশি করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সেবায় নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন, তাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এটি একটি গ্রহণযোগ্য পদক্ষেপ এবং তাদের এই আত্মত্যাগে অনুপ্রেরণা জোগাবে। প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির স্বেচ্ছাসেবক ও বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবীরা যৌথভাবে এই জীবাণুনাশক স্প্রে কার্যক্রম পরিচালনা করবে। যেসব স্বেচ্ছাসেবক এই কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকবেন, তাদের সব ধরনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।