শিক্ষার্থীদের সচেতন করতে অধ্যাপক বারকাতের চিঠি
jugantor
শিক্ষার্থীদের সচেতন করতে অধ্যাপক বারকাতের চিঠি

  ঢাবি প্রতিনিধি  

২৫ মার্চ ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সাম্প্রতিক সময়ে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পৃথিবীতে মহামারী আকার ধারণ করে। আর এর প্রকোপ থেকে মুক্তি পায়নি বাংলাদেশও। ফলে এই মহামারী থেকে বাঁচার জন্য আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন থাকার জন্য শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে চিঠি লিখেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত। চিঠিতে তিনি লিখেন- সুপ্রিয় শিক্ষার্থী, করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ এ বিপর্যস্ত সভ্যতার ক্রান্তিকালে একান্ত মানবিক দায়িত্ববোধ থেকে তোমাদের একজন শিক্ষক হিসেবে পত্রটি লিখছি। শিক্ষার্থী-শিক্ষকের প্রাণ সেই শিক্ষার্থী যখন মাতা-পিতা-ভাই-বোন-আত্মীয়-স্বজন-পাড়া-প্রতিবেশীসহ জীবন-প্রাণ নিয়ে অনিশ্চয়তার মাঝে দিনাতিপাত করতে বাধ্য হয় তখন শিক্ষক হিসেবে আমাদের মানবিক-নৈতিক দায়িত্ব-দায়বদ্ধতা শতগুণ বেড়ে যায়, এটাই স্বাভাবিক। যত দূর জানে করোনাভাইরাসের জীববিজ্ঞানগত-রোগতত্ত্বগত কার্যকারণ-বিবর্তন নিয়ে সংশ্লিষ্ট গবেষকরা এখন পর্যন্ত খুব বেশি জানেন না। একই সঙ্গে আমরা জানি না যে, এ রোগের সম্ভাব্য সামাজিক ও অর্থনৈতিক প্রভাব-অভিঘাত এলে কেমন হতে পারে, জানি না।

শিক্ষার্থীদের সচেতন করতে অধ্যাপক বারকাতের চিঠি

 ঢাবি প্রতিনিধি 
২৫ মার্চ ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সাম্প্রতিক সময়ে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পৃথিবীতে মহামারী আকার ধারণ করে। আর এর প্রকোপ থেকে মুক্তি পায়নি বাংলাদেশও। ফলে এই মহামারী থেকে বাঁচার জন্য আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন থাকার জন্য শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে চিঠি লিখেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত। চিঠিতে তিনি লিখেন- সুপ্রিয় শিক্ষার্থী, করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ এ বিপর্যস্ত সভ্যতার ক্রান্তিকালে একান্ত মানবিক দায়িত্ববোধ থেকে তোমাদের একজন শিক্ষক হিসেবে পত্রটি লিখছি। শিক্ষার্থী-শিক্ষকের প্রাণ সেই শিক্ষার্থী যখন মাতা-পিতা-ভাই-বোন-আত্মীয়-স্বজন-পাড়া-প্রতিবেশীসহ জীবন-প্রাণ নিয়ে অনিশ্চয়তার মাঝে দিনাতিপাত করতে বাধ্য হয় তখন শিক্ষক হিসেবে আমাদের মানবিক-নৈতিক দায়িত্ব-দায়বদ্ধতা শতগুণ বেড়ে যায়, এটাই স্বাভাবিক। যত দূর জানে করোনাভাইরাসের জীববিজ্ঞানগত-রোগতত্ত্বগত কার্যকারণ-বিবর্তন নিয়ে সংশ্লিষ্ট গবেষকরা এখন পর্যন্ত খুব বেশি জানেন না। একই সঙ্গে আমরা জানি না যে, এ রোগের সম্ভাব্য সামাজিক ও অর্থনৈতিক প্রভাব-অভিঘাত এলে কেমন হতে পারে, জানি না।