প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সাফল্যের ধারা অব্যাহত

গ্রিনফিল্ড স্কুল অ্যান্ড কলেজ

  আফজাল হোসেন ২২ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কয়েকজন বিশিষ্ট মহৎপ্রাণ সমাজসেবক, সমাজ সংস্কারক ও শিক্ষাবিদের সমন্বয়ে ২০০৭ সালে গ্রিনফিল্ড স্কুল অ্যান্ড কলেজ গ্রিনওয়েজ ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই প্রতিষ্ঠানটি সব পাবলিক পরীক্ষায় সাফল্যের ধারা অব্যাহত রেখেছে। ২০১৭ সালের পিইসি, জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলের শতভাগ পাস ও সর্বোচ্চ জিপিএ-৫ নিয়ে মিরপুর থানায় প্রথমস্থান অধিকার করেছে। মিরপুর ১০ নম্বরে অবস্থিত গ্রিনফিল্ড স্কুল অ্যান্ড কলেজটি নানা কারণে বৈশিষ্ট্যপূর্ণ। সমুন্নত অবকাঠামো ও মনোরম পরিবেশ এর মূল বৈশিষ্ট্য। এছাড়া প্রতিষ্ঠানটিতে রয়েছে দক্ষ, মেধাবী, অভিজ্ঞ ও নিবেদিতপ্রাণ শিক্ষকমণ্ডলী। বোর্ড অনুমোদিত সুপরিকল্পিত পাঠ্যক্রম ও আধুনিক শিক্ষণ কৌশল সমন্বয়ে প্রতিটি শিক্ষার্থীর উন্নতিতে শিক্ষকরা তাদের মেধা ও মননের স্বাক্ষর রেখেছে। উল্লেখ্য, এ প্রতিষ্ঠিানটি অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা, জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষা এবং সেকেন্ডারি স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষার কেন্দ্র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে।

এ প্রতিষ্ঠানে বাংলা মাধ্যম ও ইংরেজি মাধ্যমে প্লে গ্রুপ থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদান করা হয়। এ প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে প্রায় ১৬শ’ শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করছে। এখানে রয়েছে সুবিশাল ক্যাম্পাস ও শব্দ দূষণমুক্ত সুবিন্যাস্ত শ্রেণীকক্ষ। আরও রয়েছে সার্বক্ষণিক জেনারেটরের সুবিধাসহ লিফটযুক্ত ১০ তলা ভবনে যুগোপযোগী অত্যাধুনিক কম্পিউটার ল্যাব, বিজ্ঞানাগার, মাল্টিমিডিয়া শ্রেণীকক্ষ, ইন্টারনেট সংযোগ, সিসি ক্যামেরা সমৃদ্ধ পাঠাগার, মনোরম ক্যান্টিন ও যাতায়াতের জন্য রয়েছে আধুনিক যানবাহন। এ প্রতিষ্ঠানে রয়েছে যোগ্য পরিচালনা পর্ষদ ও ৭ সদস্যবিশিষ্ট উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন শিক্ষার মানোন্নয়ন কমিটি। পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি সামছুল আলম ও গ্রিনফিল্ড স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রকল্প পরিচালক ড. রেহানা পারভীন। প্রকল্প পরিচালক ড. রেহানা পারভীন দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই প্রতিষ্ঠানটি সফলতার শীর্ষে অবস্থান করছে। তারই দিকনির্দেশনায় পাবলিক পরীক্ষায় শিক্ষার্থীরা অভূতপূর্ব ফলাফল অর্জন করছে। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটিতে বিভিন্ন বিষয়ে অনার্স কোর্স চালুর বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

প্রকল্প পরিচালক ড. রেহানা পারভীন মনে করেন, উপযুক্ত শিক্ষাব্যবস্থাই সমাজ, সাংস্কৃতিক ও রাষ্ট্রের নানা বৈপরিত্যের মধ্যে ঘটায় সার্থক অভিযোজন। গড়ে তোলে মানবিক ও ভ্রাতৃত্ববোধ। এ বিশ্বাসকে লালন করে এ প্রতিষ্ঠানের ১০ বছরের পথচলার পরিক্রমায় যুক্ত হয়েছে বহু অর্জিত জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা, সৃষ্টি হয়েছে আমাদের শিক্ষাদর্শন। ২০০৭ সালে প্রতিষ্ঠানটির সূচনালগ্নে প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও উপাধ্যক্ষ হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করেন। দায়িত্ব পালনকালে শুধু যুগোপযোগী পাঠদানই নয়, শিক্ষাব্যবস্থাকে পরিপূর্ণ ও গতিশীল করার লক্ষ্যে ডিজিটাল শিক্ষা ব্যবস্থাও প্রণয়ন করেন। এখানে বিজ্ঞান চর্চার জন্য গ্রহণ করা হয়েছে নানা পদক্ষেপ। লেখাপড়ার পাশাপাশি সহশিক্ষা কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করে এ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা তাদের সাফল্যের ধারা অব্যাহত রেখেছে। প্রতি বছরই এখানকার শিক্ষার্থীরা বিজ্ঞান মেলা, পরিবেশ মেলা, গণিত অলিম্পিয়াড ও অন্যান্য সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছে। ৩৬তম জাতীয় বিজ্ঞান মেলায় এ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ২য় স্থান অর্জন করেছে। ২০০৪ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত উপাধ্যক্ষ ও অধ্যক্ষ হিসেবে অভিভাবক, এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীদের অকুণ্ঠ শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা তিনি পেয়েছেন। আগামীতে এ প্রতিষ্ঠানটি ঢাকা শহরের সেরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে আবির্ভূত হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

২০১৬ সালের ১ জুন থেকে আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ লে. কর্নেল মো. আলী আম্বিয়াল হক খান (অব.) এ কলেজের অধ্যক্ষের দায়িত্ব গ্রহণ করে প্রতিষ্ঠানটির বহুমুখী উন্নয়নের প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.