৫৪ নম্বর ওয়ার্ড

জলাবদ্ধতা দূর করার অঙ্গীকার

  সৈয়দ আমানত আলী ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জলাবদ্ধতা দূরীকরণে কাজ করে যেতে চান ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) নবসৃষ্ট ৫৪ নম্বর ওয়ার্ডের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা। খানাখন্দ আর জলাবদ্ধতা এই ওয়ার্ডের মানুষের নিত্যদিনের সঙ্গী। সড়ক এত খারাপ যে পায়ে হাঁটাও অনেক কষ্ট। এই এলাকাটি আবাসিক এলাকা হলেও এই এলাকায় গড়ে উঠে বিভিন্ন শিল্প-কারখানা। সরু রাস্তায় মানুষের চলাচলে খুব সমস্যা হচ্ছে। শীত শুরু হলেই তীব্র গাসের সমস্যা শুরু হয়। স্যুয়ারেজের লাইন বেশিরভাগ এলাকায় নেই যার কারণে সারা বছর জলাবদ্ধতা লেগে থাকে। ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি কোনো দুর্ঘটনা ঘটলে দ্রুত এলাকায় প্রবেশ করতে পারে না। এত ঘিঞ্জি পরিবেশ যে কোনো রকম দুর্ঘটনা হলে দ্রুত পৌঁছানো যায় না। নেই সড়কবাতি যার ফলে সন্ধ্যা নামতেই চুরি-ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। সারা বছরই রাস্তায় পানি জমে থাকে। ড্রেনেজ ব্যবস্থা নেই বললেই চলে। গ্যাসের রয়েছে মারাত্মক সমস্যা। চারদিকে মাদকের ছড়াছড়ি।

সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগ নেতা মো. জবেদ আলী (মেম্বার), আওয়ামী লীগের তুরাগ থানার সহ-সভাপতি ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. নূরুল ইসলাম মোল্লা সুরুজ, জাতীয় পার্টির ঢাকা মহানগর উত্তরের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও তুরাগ থানার সভাপতি মো. আলউদ্দিন (আলাল), আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের তুরাগ থানার সাধারণ সম্পাদক মো. শাহীন হোসেন, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের তুরাগ থানার সহ-সভাপতি মো. রমজান আলী, বিএনপির তুরাগ থানার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. হারুন-অর-রশীদ। নবসৃষ্ট ৫৪ নম্বর ওয়ার্ড রোশাদিয়া, কালিয়ারটেক, খায়েরটেক, কামারপাড়া, ভাটুলিয়া, নয়ানীচালা, রাজাবাড়ী, ধউর, আশুতিয়া, গ্রাম ভাটুলিয়া নিয়ে গঠিত। এই ওয়ার্ডে ৭০ হাজার মানুষ বসবাস করে। এলাকার মোট ভোটারের সংখ্যা ২৩ হাজার। এর মধ্যে পুরুষ ভোটারের সংখ্যা ১১ হাজার ৯শ’ আর নারী ভোটার ১১ হাজার। আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী মো. জবেদ আলী চলেন, আমার নেত্রী শেখ হাসিনা। তিনি সব সময় জনগণের কল্যানে কাজ করছেন। আমি উন্নয়নের রূপকার গণতন্ত্রের মানসকন্যার স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে জনগণকে পাশে নিয়ে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করব। জলাবদ্ধতা দূরীকরণসহ সড়কের প্রশস্তকরণের মাধ্যমে মানুষের চলাচলের ব্যবস্থা করব। আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী মো. নূরুল ইসলাম মোল্লা সুরুজ বলেন, আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করি। যদি নির্বাচিত হই তাহলে আমার ওয়ার্ডকে জলাবদ্ধতা দূরীকরণ, সড়ক প্রশস্তকরণ ও ড্রেনেজের ব্যবস্থা করব। শিশু-কিশোরদের বিপথ থেকে রক্ষা করার জন্য মাদক নির্মূল করব।

আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী মো. রমজান আলী যুগান্তরকে বলেন, আমি এই ওয়ার্ডে জনগণের পাশে সব সময় আছি। আমি তরুণ যুব সমাজকে কাজে লাগাতে চাই। যুব সমাজকে সঙ্গে নিয়ে এই ওয়ার্ডের সব সমস্যা চিহ্নিত করে পর্যায়ক্রমে তার সমাধান করব।

জাতীয় পার্টির সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী মো. আলাউদ্দিন (আলাল) বলেন, ৫৪ নম্বর ওয়ার্ডের প্রধান সমস্যা জলাবদ্ধতা ও স্যুয়ারেজ লাইন। আমি যদি নির্বাচিত হই তাহলে জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী মো. শাহীন হোসেন বলেন, আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ ও চেতনায় বিশ্বাস করি। মুক্তিযোদ্ধাদের আদর্শ বাস্তবায়নে কাজ করে আসছি। আমি নির্বাচিত হলে ওয়ার্ডকে আধুনিক, উন্নত পরিবেশ, আধুনিক যোগাযোগ ব্যবস্থা, ঈদগাহ ময়দান, সরকারি মেডিকেল, শিশুদের জন্য পার্ক, রাস্তায় দুই পাশে সোডিয়াম বাতি, ড্রেনেজ ব্যবস্থা করব। ডিজিটাল সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে ওয়ার্ডের নিরাপত্তা নিশ্চিত করব। প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে মাদকমুক্ত সমাজ গঠন করব।

বিএনপির সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী মো. হারুন-অর-রশিদ চলেন, আমি জিয়ার আদর্শে রাজনীতি করি। আমার নেতা সব সময় জনগণের উন্নয়নে কাজ করে গেছেন। আমি তারই ধারাবাহিকতায় আমার এলাকাকে একটি আদর্শ ওয়ার্ড হিসেবে গড়ে তুলব।

 

 

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.