গুণগত মানের উচ্চশিক্ষা প্রসারে বিইউবিটি

  আফজাল হোসেন ১৫ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি (বিইউবিটি) গুণগত মানের উচ্চশিক্ষা প্রসার করে যাচ্ছে। শিক্ষার্থীদের পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে আর্থ-সামাজিক দিক দিয়ে জাতিকে এগিয়ে নেয়ার প্রত্যয়ে ২০০৩ সালে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু হয়। তখন মাত্র ৬৭ জন শিক্ষার্থী ছিল। উত্তর আমেরিকার পাঠ্যক্রমের আলোকে প্রতিষ্ঠিত এ বিশ্ববিদ্যালয়টিতে বর্তমানে প্রায় ১০ হাজার শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত। দেড় দশকের বেশি সময় ধরে বিশ্ববিদ্যালয়টি বাণিজ্যিক দৃষ্টিভঙ্গির বাইরে এসে মধ্যবিত্তের নাগালে উচ্চশিক্ষা বিকাশে প্রশংসনীয় ভূমিকা রাখছে। বাংলাদেশে মানসম্পন্ন ও প্রযুক্তিনির্ভর শিক্ষাব্যবস্থার জন্য ইতিমধ্যে যে কয়টি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষানুরাগীসহ সর্বমহলের আস্থা অর্জন করতে পেরেছে বিইউবিটি তার মধ্যেও সেরা। ইতিমধ্যে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) ও শিক্ষা মন্ত্রণালয় বেঁধে দেয়া নির্ধারিত সময়ের মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রম স্থানান্তর করা হয়েছে। ঢাকার রূপনগর (মিরপুর) থানায় প্রায় সাড়ে আট একর জমির ওপর নির্মাণ করা হয়েছে স্থায়ী ক্যাম্পাস। বিউবিটিতে মোট ছয়টি অনুষদের অধীনে ম্যানেজমেন্ট, অ্যাকাউন্টিং, ফিন্যান্স, মার্কেটিং, ইকোনমিক্স, ইংরেজি, হিউম্যান রিসোর্স, আইন, কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং, টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ও এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ইকোনমিক্স- এই ১২টি বিষয়ে অনার্স ও সময়োপযোগী নয়টি বিষয়ে মাস্টার্স কোর্স চালু রয়েছে।

এছাড়া শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার পাশাপাশি সৃজনশীল প্রতিভা জনসম্মুখে প্রকাশ করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়মিত বিজ্ঞান মেলা, স্কিল কম্পিটিশন, ডিজিটাল ও উদ্ভাবনী মেলার আয়োজন করা হয়। বিইউবিটিতে নিয়মিত শিক্ষার পাশাপাশি শিক্ষাসহায়ক কার্যক্রমের ওপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করা হয়। সাবেক শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নবীনদের সেতুবন্ধনের জন্য রয়েছে অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন। বিইউবিটির প্রতিটি শিক্ষার্থী নিয়মিত বিষয়ভিত্তিক কার্যক্ষেত্র পরিদর্শন ও প্রতি সেমিস্টারেই ডিপার্টমেন্ট-ভিত্তিক ইন্ডাস্ট্রিয়াল ট্যুরের সুযোগ পায়। শিক্ষার্থীদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে বিইউবিটিতে রয়েছে দুটি পৃথক লাইব্রেরি। শিক্ষার্থীদের গবেষণাধর্মী নিবন্ধ প্রকাশের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতি বছর বিইউবিটি জার্নাল প্রকাশ করে থাকে। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়টি শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার ফলাফলের ওপর ভিত্তি করে নানা ধরনের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করে আসছে। বিশ্ববিদ্যালয়টির ১২ থেকে ১৫ ভাগ শিক্ষার্থী নানা ধরনের শিক্ষাবৃত্তিসহ শতভাগ পর্যন্ত ওয়েভার নিয়ে লেখাপড়ার সুযোগ পাচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার (জনসংযোগ) জিসান আল যুবাইর বলেন, বিইউবিটি বাংলাদেশ পুলিশ ও দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কর্মকর্তাদের সাইবার অপরাধ তদন্তের কারিগরি প্রশিক্ষণ প্রদান করে আসছে। বিইউবিটিতে রয়েছে বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় সমৃদ্ধ ল্যাঙ্গুয়েজ ল্যাব, খেলার মাঠ, ক্যারিয়ার গাইড্যান্স অফিসসহ নানা কার্যক্রম। তাছাড়া শিক্ষার্থীদের পেশাগত মানোন্নয়নের লক্ষ্যে প্রতিনিয়ত কর্মশালা, সভা, সেমিনারের আয়োজন করা হয়। এ লক্ষ্যে তৈরি করা হয়েছে একটি আন্তর্জাতিক কনফারেন্স হল। দেশ-বিদেশের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বিইউবিটির রয়েছে শিক্ষা ও গবেষণা সমঝোতা চুক্তি। যার আওতায় শিক্ষার্থীরা ক্রেডিট ট্রান্সফারের সুবিধা পায়। বিইউবিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর মো. আবু সালেহ বলেন, আমরা শিক্ষকদের তাদের একাডেমিক অর্জন ও যোগ্যতা নিশ্চিত করে নিয়োগ দিয়ে থাকি। যোগদানের পর সব শিক্ষককে গবেষণা বিষয়ে প্রশিক্ষণ ও ফলপ্রসূ শিক্ষাদান পদ্ধতি নিয়ে আলাদাভাবে প্রশিক্ষণ দেই। আমাদের প্রতিটি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা শতভাগ স্বচ্ছতার সঙ্গে সুন্দরভাবে পরিচালিত হয়। নতুন প্রজন্মকে দক্ষ জনগোষ্ঠীতে পরিণত করতে প্রযুক্তিনির্ভর কর্মমুখী শিক্ষা ব্যবস্থার বিকল্প নেই। তাই কর্মমুখী শিক্ষা প্রদানের পাশাপাশি প্রতিটি শিক্ষার্থীকে সাফল্যের চূড়ান্ত শিখরে পৌঁছে দিতে আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ। আমরা গবেষণা খাতে যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছি। আমাদের নিজস্ব রিসোর্স সেন্টার আছে। শিক্ষার্থীদের মাঝে শৃঙ্খলাবোধ, দেশপ্রেম, সামাজিক ও মানবিক মূল্যবোধ জাগ্রত করতে আমাদের

নানা পদক্ষেপ রয়েছে। আমরা যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক দিবসগুলো পালন করি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter