জাবালে নূর পরিবহন চলছে অন্য নামে

  আফজাল হোসেন ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৪:১৮ | প্রিন্ট সংস্করণ

আগারগাঁওয়ে জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাসের নাম পরিবর্তন করা হচ্ছে। ছবি: যুগান্তর
আগারগাঁওয়ে জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাসের নাম পরিবর্তন করা হচ্ছে। ছবি: যুগান্তর

জাবালে নূর পরিবহনের বাস অন্য নামে চলছে। এ নামে কোনো বাস এখন আর সড়কে দেখা যাচ্ছে না। একই রুটে বিভিন্ন কোম্পানিতে চলছে তাদের বাস। তবে জাবালে নূর কর্তৃপক্ষ বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

২৯ জুলাই রেডিসন হোটেলসংলগ্ন সড়কে দুই বাসের রেষারেষিতে দুই শিক্ষার্থী নিহত ও ৯ জন আহত হওয়ার ঘটনায় আলোচনায় আসে জাবালে নূর পরিবহন। দুই রুটে জাবালে নুরের ৭৯টি বাস চলাচলের অনুমোদন থাকলেও আনসার ক্যাম্প থেকে বাড্ডা ও আগারগাঁও থেকে আব্দুল্লাহপুর পর্যন্ত প্রায় দেড় শতাধিক বাস চলাচল করত।

সরেজমিন দেখা গেছে, আগারগাঁও এলাকায় জাবালে নূরের পার্কিং জোনে ভাঙাচোরা ৩-৪টি বাস পড়ে আছে। অন্যদিকে মিরপুর ১ নম্বর আনসার ক্যাম্পে এ পরিবহনের কোনো বাস দেখা যায়নি। পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকা দুটি বাসে ঘষামাঝার কাজ চলছে। জাবালে নূর ঘষে সেখানে তেঁতুলিয়া পরিবহন লেখা হচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক শ্রমিক বলেন, আগে এখানে ৬০-৭০টি বাস ছিল। এখন আছে ৪-৫টি। ২-৩ দিন পর এটাও থাকবে না। আগারগাঁও ও মিরপুর ২ নম্বর স্টেডিয়ামের গলিতে অবস্থিত জাবালে নূরের অফিসে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি।

এ পরিবহনের নিজস্ব পার্কিংয়ের জন্য কোনো জায়গা ছিল না। মিরপুর ১ নম্বর আনসার ক্যাম্প ও আগারগাঁওয়ে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরসংলগ্ন খালি জায়গা পার্কিং হিসেবে ব্যবহার করা হতো। এ দুই স্থানে দেড় শতাধিক বাস থাকত।

গত মাসের প্রথম সপ্তাহে র‌্যাবের অভিযানে এ পরিবহনের ৬টি বাস আটক হলে আতংঙ্কগ্রস্ত বাস মালিকরা নিজেদের জিম্মায় বাসগুলো সরিয়ে নেয়। বাসগুলো মহল্লার অলিগলিসহ মিরপুর ১ নম্বর বেড়িবাঁধ ও ইস্টার্ন হাউসিং এলাকার বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে রাখা হয়।

বাস মালিক রেশমা আক্তার বলেন, জাবালে নূর পরিবহনে আমার ৬টি বাস ছিল। র‌্যাবের অভিযানে ৪টি আটক হয়েছে। দুটি ছাড়িয়েছি, বাকি দুটি এখনও ছাড়াতে পারিনি। শুনেছি রুটপারমিট বাতিল হয়েছে।

এখানে আর বাস দেব না। তাই ব্যানার পরিবর্তন করে ৪টি বাস আকিক পরিবহনকে দিয়েছি। আমার মতো বাকি সবাই ব্যানার পরিবর্তন করেছেন। মিরপুর ১ নম্বর বেড়িবাঁধ ও ইস্টার্ন হাউসিং এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, নির্জন ও নিরিবিলি বিধায় এখানকার বিভিন্ন গ্যারেজ ও খোলা জায়গায় জাবালে নূরের বেশির ভাগ বাসের পেইন্টিংয়ের কাজ করানো হয়েছে।

এখানকার গ্যারেজে জাবালে নূরের ২-৩টি ভাঙাচোরা বাসও দেখা গেছে। ঈদের আগেই বেড়িবাঁধের লিটনের গ্যারেজে ৪০-৪৫টি বাসের ব্যানার পরিবর্তন করে আকিক পরিবহনের ব্যানারে নামানো হয়েছে বলে স্বীকার করেছেন গ্যারেজে কর্মরত এক শ্রমিক।

কাঁচা হাতের পেইন্টিংয়ে ঝকঝকে রং করা আকিক পরিবহনের অনেক বাসে জাবালে নূরের অস্পষ্ট ছাপও রয়েছে। বাসচালক মনির হোসেন বলেন, ঈদের আগেই জাবালে নূরের ৩০টি বাস আকিকের লাইনে ঢুকেছে।

আকিক পরিবহনের এমডি আশিকুল ইলাম আশিক বলেন, আমার কাছে জাবালে নূরের মালিকপক্ষ এসেছিল। আমি তাদের নিষেধ করেছি। কারণ ওদের ড্রাইভার ভালো না। ব্যানার পরিবর্তন করে জাবালে নূরের কোনো বাস তার কোম্পানিতে নেই বলে তিনি দাবি করেন।

মিরপুর বিআরটিএ ঢাকা বিভাগের উপ-পরিচালক মো. মাসুদ আলম বলেন, জাবালে নূরের রুট পারমিট বাতিল হয়নি। তাদের শুধু দুটি বাসের রুট পারমিট ও রেজিস্ট্রেশন বাতিল হয়েছে। যে দুটি বাস ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছিল সেগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

জাবালে নূর পরিবহনের অপারেশন ম্যানেজার শাকিল হাজারি বলেন, আমদের দুই রুটের মধ্যে এক রুটে দুর্ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু অন্য রুটও বন্ধ রাখতে হয়েছে। আমাদের তো আর রুট পারমিট বাতিল হয়নি। তাই বন্ধ হবে কেন? কিছু দিনের মধ্যেই দুই রুটে গাড়ি চলবে।

ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক (মিরপুরের দায়িত্বে) হুমায়ন কবির তপন বলেন, জাবালে নূর পরিবহনের রুট পারমিট বাতিল হয়নি। কিছু দিনের মধ্যেই তাদের বাসগুলো চলবে বলে শুনেছি। ব্যানার পরিবর্তন করে অন্য কোথাও জাবালে নূরের কোনো বাস চলে কিনা এ ব্যাপারে তিনি কিছু বলতে রাজি হননি।

পল্লবী জোনের এসি (ট্রাফিক) সাইকা ইয়াসমিন পাশা বলেন, রুট পারমিট, লাইসেন্স ও কাগজপত্র ঠিক না থাকলে কোনো যানবাহনই রাস্তায় চলতে পারবে না। এ ব্যাপারে কঠোর নির্দেশনা রয়েছে। মিরপুরের এডিসি এবিএম জাকির হোসেন বলেন, কোন বাস রং ঘষামাঝা করে ব্যানার পরিবর্তন করে রাস্তায় নামানো হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ঘটনাপ্রবাহ : বিমানবন্দর সড়কে দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যু

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter