ভোলায় বাণিজ্যমন্ত্রী

ব্যারিস্টার মইনুল রাজনৈতিক চরিত্রহীন

বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী খুনি মোশতাকের দলেও ছিল

  ভোলা প্রতিনিধি ২২ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চরিত্রহীন

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে রাজনৈতিক চরিত্রহীন উল্লেখ করে বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী খুনি মোশতাকের রাজনৈতিক দলেও মইনুল ভাড়াটে হিসেবে যোগ দেয়।

আর এখন ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় যাদের ফাঁসি হয়েছে, যাবজ্জীবন হয়েছে, তাদের দল এক হয়ে মইনুল ও ড. কামাল ঐক্য করেছেন।

বাংলাদেশের মানুষ, যারা জাতির পিতার আদর্শে বিশ্বাসী, ’৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে এক হয়ে স্লোগান দিয়েছিল, স্বাধীনতাবিরোধীদের তারা কোনো দিন স্থান দেবে না। রোববার ভোলার বাপ্তা ইউনিয়নে টবগী মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের নির্বাচনী কেন্দ্র কমিটি গঠন সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী এ সময় বিএনপিকে উদ্দেশ করে বলেন, দলটি এখন নেতৃত্বশূন্য হয়ে পড়েছে। এজন্য ভাড়ায় ড. কামাল হোসেনকে নেতা বানিয়েছে। দলের বড় নেতা, চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া দুর্নীতি মামলায় জেলে রয়েছেন।

আরেক ছেলে (তারেক রহমান) দেশের টাকা লুট করার পাশাপাশি, খুন মামলায় বিদেশে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। একটা খুনিকে বানিয়েছে দলের চেয়ারম্যান। দেশে-বিদেশে এ নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে। বিদেশ নেতারা পছন্দ করেনি।

তাই ড. কামাল হোসেনকে ভাড়া করা হয়েছে। ওই দলের নেতারা এখন মইনুল ও ড. কামালের ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে। মন্ত্রী এ সময় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের সমালোচনা করে বলেন, ২০০৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর জামায়াত-শিবিরের প্রতিনিধি সম্মেলনে মইনুল বলেছেন, শিবির একটা নামকরা দল, আমি তার পক্ষে আছি।

এ হচ্ছে ব্যরিস্টার মইনুলের চরিত্র। এ সময় মন্ত্রী ২০০১ সালের পর ভোলাসহ দেশে বিএনপি সরকারের লুটপাট, হত্যা, নারী নির্যাতনের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, এদের আর ক্ষমতায় মানুষ দেখতে চায় না।

ভোলার উন্নয়নের বর্ণনা দিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, শুধু বাপ্তা ইউনিয়নেই ১০ বছরে ৬০ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ হয়েছে। সভাপতির বক্তেব্যে জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ইয়ানুর রহমান বিপ্লব, বিএনপি জোটের সংসদ সদস্য প্রার্থীর তীব্র সমালোচনা করে বলেন, ২০০৮ সালে এমপি হওয়ার পর তিনি নদীভাঙন রোধে কোনো পদক্ষেপ নেননি। এমনকি সংসদেও কোনো বক্তব্য রাখেননি। ওই সাবেক সংসদ সদস্যের পরিবারকে ইয়ানুর রহমান বিপ্লব তার ভাই বাবুল মোল্লা হত্যাকারী হিসেবে উল্লেখ করে তীব্র সমালোচনা করেন।

ইয়ানুর রহমান বিপ্লবের সভাপতিত্বে এ সময় আরও বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক আবদুল মমিন টুলু, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগ সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক জহরুল ইসলাম নকিব।

এ সময় মন্ত্রীপতœী আনোয়ারা বেগম, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি দোস্ত মাহামুদ, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক এনামুল হক আরজু, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব, উপজেলা আওয়ামী লীগ যুগ্ম সম্পাদক মো. সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল ইসলামসহ জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

পরে মন্ত্রী নির্বাচনী কেন্দ্র কমিটি ঘোষণার পাশাপাশি নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে প্রচারণা চালাতে নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter