চট্টগ্রামে প্রস্তুতি সম্পন্ন

গুজব এড়িয়ে নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান প্রশাসনের

  চট্টগ্রাম ব্যুরো ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নির্বাচন কমিশন

চট্টগ্রামে ভোট গ্রহণের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। গুজব এড়িয়ে নির্বিঘ্নে কেন্দ্রে গিয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগের জন্য ভোটারদের আহ্বান জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

পাশাপাশি ভোট কেন্দ্রে গুজব ছড়িয়ে কেউ যাতে নাশকতা করতে না পারে, সে ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানানো হয়েছে। বিভাগীয় কমিশনার আবদুল মান্নান ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মাহাবুবর রহমান শনিবার পৃথক দুটি অনুষ্ঠানে এ আহ্বান জানান।

চট্টগ্রামের ৬টি আসনের রিটার্নিং অফিসার ও বিভাগীয় কমিশনার আবদুল মান্নান সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন হওয়ার কথা উল্লেখ করে ভোটারদের নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোটাধিকার প্রয়োগের জন্য ভোটারদের আহ্বান জানিয়েছেন। শনিবার গণমাধ্যকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ আহ্বান জানান।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মাহাবুবর রহমান সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহণে নগরবাসীর সহযোগিতা চেয়েছেন। ভোট কেন্দ্রে গুজব ছড়িয়ে কেউ যাতে নাশকতা করতে না পারে, সে ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান তিনি। দামপাড়া পুলিশ লাইন্সে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ কমিশনার এ আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, নগরীতে ১৬টি থানা এলাকায় ৫৯৭টি ভোট কেন্দ্র রয়েছে। ভোট কেন্দ্রের নিরাপত্তাসহ নগরীর আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য পুলিশ, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন, আনসার, গ্রামপুলিশ, বিজিবি, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট মোতায়েন করা হয়েছে। নদী এলাকার নিরাপত্তার জন্য পুলিশের নৌটহল এবং পোশাকি পুলিশকে সহযোগিতা করার জন্য সাদা পোশাকেও পুলিশ মোতায়েন থাকবে। নগরীতে টহল পুলিশের পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোয় পুলিশ চেকপোস্টসহ বিভিন্ন স্থানে স্ট্রাইকিং ফোর্স মোতায়েন থাকবে।

যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য কাউন্টার টেরোরিজম, সোয়াত ও বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট প্রস্তুত থাকবে। এছাড়াও র‌্যাব ও সেনাবাহিনী মোতায়েন থাকবে। প্রিসাইডিং অফিসার ও তার সহকারীদের ভোট কেন্দ্রে নিরাপদে আসা-যাওয়া, ভোট কেন্দ্রের মালামাল আনা-নেয়া এবং সংখ্যালঘু সম্প্রদায়সহ নগরীর সব ভোটার যাতে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে সেজন্য সিএমপির পক্ষ থেকে নিরাপত্তামূলক সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। শনিবার সকাল থেকে নগরী ও জেলার ১৬টি আসনে পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাবসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী টহল শুরু করে। এছাড়া মাঠে আছে সেনাবাহিনীও। বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসিয়ে চালানো হয় তল্লাশি।

চট্টগ্রাম বিভাগের স্থানীয় সরকারের পরিচালক দীপক চক্রবর্তী জানান, নগরকেন্দ্রিক ৬টি এবং জেলার ১০টি সংসদীয় আসনে ভোটের দিন ৭৪ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নির্বাচনী আচরণবিধি প্রতিপালনে দায়িত্ব পালন করবেন। সেনাবাহিনী, বিজিবি ছাড়াও চাহিদা অনুযায়ী পুলিশের সঙ্গে প্রতিটি আসনে ৪ থেকে ৫ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন। আইন ও বিধি অনুযায়ী সুষ্ঠু, অংশগ্রহণমূলক একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পন্নের লক্ষ্যে সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করবেন তারা।

ঘটনাপ্রবাহ : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×