বঙ্গবন্ধু-প্রধানমন্ত্রীর ছবি অবমাননা ও মানহানি

যবিপ্রবির ভিসি ও দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

  যশোর ব্যুরো ১৫ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) ভিসি প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন, অনুজীব বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ও শিক্ষক পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ইকবাল কবীর জাহিদ এবং সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হাসানের বিরুদ্ধে আদালতে দুটি মামলা হয়েছে। ডেস্ক ক্যালেন্ডারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি অবমাননা এবং ছাত্রলীগের সাবেক নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করায় মামলা দুটি করা হয়। সোমবার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বিপুল অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পৃথক দুটি মামলা করেন। বিকালে বিচারক মুহাম্মদ আকরাম হোসেন কোতোয়ালি থানার ওসিকে অভিযোগ তদন্ত করে আগামী ১৩ মের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছেন।

জানা যায়, মামলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেস্ক ক্যালেন্ডারে ছবি অবমাননার অভিযোগে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করা হয়েছে। এ মামলায় বিবাদী করা হয়েছে ভিসি প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন ও অধ্যাপক ইকবাল কবীর জাহিদকে। এ ছাড়া ৫০০ কোটি টাকার মানহানির মামলায় অধ্যাপক কবীর জাহিদ ও সহযোগী অধ্যাপক নাজমুল হাসানকে বিবাদী করা হয়েছে।

সোমবার দুপুরে প্রেস ক্লাব যশোর মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করেন মামলার বাদী আনোয়ার হোসেন বিপুল। তিনি অভিযোগ করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেস্ক ক্যালেন্ডারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি পরিকল্পিতভাবে বিকৃত করা হয়েছে। ২০১৮ সালের ডেস্ক ক্যালেন্ডারে বঙ্গবন্ধুর ছবির ওপর নিজের নাম লিখে রাখেন ভিসি প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন। আর চলতি বছর ক্যালেন্ডারের ছবিতে ভিসি নিজেকে খুব স্মার্টভাবে উপস্থাপন করলেও বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ছিদ্র করে দিয়েছেন। তাই এর সঙ্গে জড়িত ভিসি ও দুই শিক্ষকের শাস্তি দাবি করে তিনি যশোর আদালতে মামলা করেছেন।

মানহানির মামলা প্রসঙ্গে বিপুল বলেন, আমার বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক পরিষদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক রীতিমতো মিথ্যাচার করে পত্রিকায় বিবৃতি দিয়েছেন, যা রোববার বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশ হয়েছে। আমার বিরুদ্ধে মশিয়ূর রহমান হলে নিুমানের আসবাবপত্র সরবরাহের অভিযোগ মিথ্যা। কোনো শিক্ষককে হুমকিও দেইনি।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×