জাতীয় প্রেস ক্লাবে তথ্যমন্ত্রী

নবম ওয়েজবোর্ডের প্রজ্ঞাপন যথাসময়ে

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৫ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রজ্ঞাপন

রাজনীতির চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় গণমাধ্যমের ভূমিকাকে অসামান্য বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। নবম ওয়েজবোর্ডের প্রজ্ঞাপন যথাসময়ে হবে জানিয়ে তিনি বলেন, আগামী ২৮ জানুয়ারির মধ্যে সাংবাদিকদের নবম ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়নের প্রজ্ঞাপন জারির বিষয়ে যা যা করতে হয় করা হবে।

কারণ সরকার অবাধ-মুক্ত গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠায় বিশ্বাসী। সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের নবনির্বাচিত ব্যবস্থাপনা কমিটির সঙ্গে প্রথম বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী নিযুক্ত হওয়ার পর প্রথমবারের মতো সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে পৌঁছলে প্রেস ক্লাব সভাপতি সাইফুল আলমের নেতৃত্বে ব্যবস্থাপনা কমিটির কর্মকর্তারা তাকে স্বাগত জানান। এরপর তথ্যমন্ত্রী প্রেস ক্লাবের ব্যবস্থাপনা কমিটির সঙ্গে মতবিনিময় করেন এবং মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেন। মতবিনিময় সভায় তথ্যমন্ত্রী বলেন, সাংবাদিকতা একটি ঝুঁকিপূর্ণ পেশা। কিন্তু রাজনীতি আরও ঝুঁকিপূর্ণ এবং দেশসেবার মহান ব্রত। দেশের সেবা, সমাজ পরিবর্তন এবং সমাজ উন্নয়নই হচ্ছে রাজনীতির মূল লক্ষ্য। রাজনীতির চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় গণমাধ্যমের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

তথ্যমন্ত্রী হিসেবে সাংবাদিকদের সব উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা আইনের মাধ্যমে সমাধানের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব- উল্লেখ করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আবাসনসহ সাংবাদিকদের কল্যাণের বিষয়টি আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে উল্লেখ রয়েছে। প্রেস ক্লাবের ৩১ তলা ভবন ও বঙ্গবন্ধু স্মৃতি কমপ্লেক্সের কাজ দ্রুততম সময়ে শুরুর লক্ষ্যেও কাজ করবে তথ্য মন্ত্রণালয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যুগান্তকারী নেতৃত্বে সামাজিক ও অনলাইন গণমাধ্যমের বিকাশ গণমাধ্যমের ক্যানভাসকেই পাল্টে দিয়েছে। যে কোনো মানুষ সংবাদমাধ্যমের সাহায্য ছাড়াই নিজের মতামত ও অনুভূতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করতে পারেন, যা বহু মানুষ দেখতে পারেন। এর মাধ্যমে গুজব রটানোর মতো অকল্যাণকর পরিস্থিতিও তৈরি হতে পারে।

এমন পরিস্থিতি আমাদের সম্মিলিতভাবে মোকাবেলা করতে হবে। অনলাইন মিডিয়ার প্রয়োজন আছে, এর বিকাশও প্রয়োজন। এ জন্য একটি নীতিমালা করা হবে বলে স্মরণ করিয়ে দেন তথ্যমন্ত্রী।

এ সময় সাংবাদিকদের বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন প্রেস ক্লাব সভাপতি সাইফুল আলম। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহসভাপতি ওমর ফারুক, সহসভাপতি আজিজুল ইসলাম ভুইয়া, সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, যুগ্ম সম্পাদক শাহেদ চৌধুরী ও মাঈনুল আলম, কোষাধ্যক্ষ শ্যামল দত্ত, ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য জাহিদুজ্জামান ফারুক প্রমুখ। এ সময় তথ্য সচিব আবদুল মালেক এবং আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। এ সময় তিনি বলেন, গণমাধ্যম যেমন রাষ্ট্রের কল্যাণে কাজ করতে পারে, তেমনি অপসাংবাদিকতার মাধ্যমে রাষ্ট্রের বড় ধরনের ক্ষতি হতে পারে।

বিএফইউজে ও ডিইউজে অপসাংবাদিকদের বিরুদ্ধে সংগঠনের পক্ষ থেকেও ব্যবস্থা নেবেন বলে আমার বিশ্বাস। বিএফইউজে সভাপতি মোল্লা জালালের সভাপতিত্বে ও ডিইউজে সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিএফইউজে মহাসচিব শাবান মাহমুদ, ডিইউজের সহসভাপতি খন্দকার মোজাম্মেল হক, যুগ্ম-মহাসচিব আবদুল মজিদ, ডিইউজের যুগ্ম-মহাসচিব আকতার হোসেন, আওয়ামী লীগ উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে- ডিইউজের সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জিহাদুর রহমান জিহাদ, কার্যনির্বাহী সদস্য গোলাম মোস্তফা ধ্রুব, শাকিলা পারভীন, মহিউদ্দিন পলাশসহ ডিইউজের বিভিন্ন ইউনিটের নেতা ও সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

ঘটনাপ্রবাহ : নবম ওয়েজবোর্ড

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×