আখাউড়ায় আইনমন্ত্রী

তারেককে শিগগিরই দেশে এনে রায় কার্যকর করা হবে

মন্ত্রীর সম্মানে কয়েকশ’ তোরণ সোনার নৌকা

  আখাউড়া ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত তারেক রহমানকে লন্ডন থেকে দেশে এনে বিচার করা হবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় আয়োজিত এক গণসংবর্ধনায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

দ্বিতীয় মেয়াদে আইনমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ায় আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠন শুক্রবার বিকালে উপজেলা পরিষদ মাঠে সংবর্ধনার আয়োজন করে।

বিএনপির সমালোচনা করে আনিসুল হক বলেন, তাদের নেত্রী খালেদা জিয়া এতিমের টাকা চোর। আদালতের রায়ে এখন জেল খাটছেন। এ কথা কিন্তু আমি বলিনি? আদালত স্বীকৃতি দিয়েছে।

তিনি বলেন, ওনার ছেলে তারেক, যাকে রাজপুত্র নামে ডাকে বিএনপি’র লোকজন। সেই তারেক হচ্ছে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত আসামি। তাকে শিগগিরই ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে।

ড. কামাল হোসেনের সমালোচনা করে মন্ত্রী বলেন, ‘তিনি প্রেস ক্লাবে বসে সংবাদ সম্মেলন করেন। আর খবরের কাগজের শিরোনাম হন। অথচ জনগণের কাছে আসেন না। শেষ পর্যন্ত তিনি ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করলেন। ক্ষমতায় যাওয়ার আগেই সাংবাদিক ভাইদের বললেন খামোশ। পুলিশকে গালি দিলেন। কাকে কী বলবেন বুঝে উঠতে পারেননি। জনগণ যখন তাদেরকে ভোটের মাধ্যমে প্রত্যাখ্যান করলেন, তখন তিনি বললেন জামায়াতকে নিয়ে নির্বাচন করা আমার ভুল হয়েছে।’

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ জয়নাল আবেদীন। এ সময় অন্যদের মধ্যে যুগ্ম আহ্বায়ক আবুল কাশেম ভূঁইয়া, সেলিম ভূঁইয়া, পৌর মেয়র তাকজিল খলিফা, পৌর যুবলীগ সভাপতি মনির খান, ছাত্রলীগ সভাপতি শাহাবুদ্দীন বেগ শাপলু, সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন নয়ন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রীর সম্মানে কয়েকশ’ তোরণ, সোনার নৌকা : বৃহস্পতিবার কসবা ও শুক্রবার আখাউড়া উপজেলায় মন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেয়া হয়। সংবর্ধনা কেন্দ্র করে দুই উপজেলায় সাজ সাজ রব পড়ে যায়। বিভিন্ন স্থানে নির্মাণ করা হয় কয়েকশ’ তোরণ। আখাউড়া রেলস্টেশন থেকে উপজেলা পরিষদ পর্যন্ত এক কিলোমিটারের কম দূরত্বের মধ্যে নির্মাণ করা হয় ৪০/৪৫টি তোরণ। দল ছাড়াও ব্যক্তি উদ্যোগে তোরণ নির্মাণ করা হয়। আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামছুজ্জামানও নির্মাণ করেন তোরণ। সংবর্ধনাস্থলে প্রবেশের মুখে আখাউড়া-আগরতলা সড়কের পাশে অফিসার্স ক্লাবের ব্যানারে এই তোরণ নির্মাণ করা হয়। তোরণে দুই পাশে মন্ত্রীর ছবির নিচে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ছবি ছিল। শুক্রবারের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আখাউড়া পৌরসভা মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল আনিসুল হককে স্বর্ণের নৌকা উপহার দেন। সেটি গ্রহণ করলেও মন্ত্রী তাৎক্ষণিক দাঁড়িয়ে মাইকে বলেন, আপনারা দেখেছেন আমাকে একটি স্বর্ণের নৌকা দেয়া হয়েছে। আমি সেটি পরে ফিরিয়ে দেব।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×