সোহরাওয়ার্দীতে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য নিষ্ঠুর রসিকতা: রিজভী

  যুগান্তর রিপোর্ট ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সোহরাওয়ার্দীতে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য নিষ্ঠুর রসিকতা: রিজভী

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের জনসভায় গণতন্ত্র হত্যার উৎসব আখ্যা দিয়ে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, জনগণের পকেট কাটার টাকায় বর্ণাঢ্য র‌্যালি ছিল রাষ্ট্রের মালিক জনগণের সঙ্গে আরেকটি অবজ্ঞাভরা মশকরা। এ ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানকে গণতন্ত্র হত্যার উৎসবে পরিণত করা হল।

রোববার নয়াপল্টনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে রিজভী বলেন, তিনি (শেখ হাসিনা) বলেছেন, জনগণ নাকি এবার স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোট দিয়েছে। তার এমন বক্তব্যে জনগণ হাসবে না কাঁদবে তা তারা ভেবে পাচ্ছে না। যখন মহাভোট ডাকাতিতে ভোটাধিকার হারা জনগণ ব্যথিত, বিমর্ষ ও বাক্যহারা তখন তাদেরকে নিয়ে এ ধরনের বক্তব্য নিষ্ঠুর রসিকতা ছাড়া আর কিছুই নয়।

ভোটের পর ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা ‘পৈশাচিক উল্লাসে বেপরোয়া’ এমন অভিযোগ করেন রিজভী। নোয়াখালীর কবিরহাটের স্থানীয় যুবদল নেতার স্ত্রীর নির্যাতনের ঘটনা তুলে ধরে তিনি বলেন, ধানের শীষের ভোট দেয়ার অপরাধে সুবর্ণ চরের নির্যাতিতা পারুল বেগমের আহাজারি ও গোঙানি থামতে না থামতেই নোয়াখালীর কবিরহাটে ঘরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে মা ও ছেলেমেয়েদের জিম্মি করে তিন সন্তানের মাকে স্থানীয় যুবলীগের কর্মীরা গণধর্ষণ করেছে।

ধর্ষিতার স্বামী আবুল হোসেন ধানসিঁড়ি ইউনিয়ন যুবদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক যিনি মিথ্যা মামলায় কারাগারে বন্দি। এ গণধর্ষণ শুধু হৃদয় বিদারকই নয়, মনুষ্যত্বহীনতার এক ভয়ঙ্কর দৃষ্টান্ত।

রিজভী বলেন, লক্ষ্মীপুরের বসিকপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে স্থানীয় বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নুরুন নবীকে সন্ত্রাসীরা গুলিবর্ষণ করে গুরুতর আহত করার ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে দোষীদের গ্রেফতার দাবি করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভুঁইয়া, আতাউর রহমান ঢালী, কেন্দ্রীয় নেতা এবিএম মোশাররফ হোসেন, আবদুস সালাম আজাদ, তাইফুল ইসলাম টিপু, মুনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×