ভোলায় কোটি টাকা আত্মসাৎকারী নিজাম ঢাকায় গ্রেফতার

  ভোলা প্রতিনিধি ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গ্রেফতার

ভোলার ৭ কোটি টাকা আত্মসাৎ ও প্রতারণাসহ একাধিক মামলার পলাতক আসামি ইলিশা মডেল কলেজের অধ্যক্ষ (সাময়িক বরখাস্ত) নিজাম উদ্দিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার ভোররাতে ঢাকার পল্লবী ৮নং রোডের ই-ব্লকের ফ্ল্যাট থেকে গ্রেফতারের পর প্রথমে তাকে শেরেবাংলা থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে ভোলায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে জানান পুলিশ সুপার মোকতার হোসেন।

কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাজাহারুল ইসলাম, কলেজ শিক্ষক কামাল হোসেন জানান, ১৯৯৯ সালে কলেজ প্রতিষ্ঠাকাল থেকে নিজাম উদ্দিন নানা অনিয়ম দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। দুদকে তার বিরুদ্ধে প্রায় ৭ কোটি টাকার দুর্নীতির মামলা রয়েছে। এ ছাড়া চাঁদাবাজি মামলাসহ ৫টি মামলা আছে তার বিরুদ্ধে। তিনি তার কথিত এক মামি ইয়াসমিন বেগম, যাকে কলেজের শিক্ষকরা কোনোদিন দেখেননি।

এমন এক মহিলাকে কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি বানিয়ে নিজেই ব্যাংক হিসাব পরিচালনা করতেন। এভাবেই তার টাকা আত্মসাতের কাহিনী ছিল। একপর্যায়ে গত বছর কলেজের ৫৪ জন শিক্ষকসহ ৭২ জন স্টাফ তার দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বিচার দাবি করেন। একই সময়ে কলেজের ১৫৪ জন শিক্ষার্থীর ভর্তি ও রেজিস্ট্রেশনের টাকা শিক্ষা বোর্ডে জমা না দিয়ে আত্মসাৎ করেন।

ওই শিক্ষার্থীদের এইচএসসি পরীক্ষা দেয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়লে শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে নামেন। তারা টানা ১০ দিন, সড়ক অবরোধ, ধর্মঘট ও জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে। ওই ঘটনায় প্রশাসন থেকে তদন্ত টিম গঠন করলে বের হয়ে আসে তার দুর্নীতির নানা কাহিনী। প্রতারণার দায়ে নুরুল ইসলাম নামের এক ছাত্রীর বাবাও তার বিরুদ্ধে মামলা করেন। এসব ঘটনার পর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একটি তদন্ত টিম গঠন করে। ওই টিমের তদন্তকালে তাকে উপস্থিত থাকার জন্য একাধিকবার বলা হলেও তিনি উপস্থিত না থেকে পালিয়ে থাকেন।

এ অবস্থায় গত বছরের ২০ আগস্ট তাকে কলেজ থেকে সাসপেন্ড করা হয়। এ অবস্থায় তিনি উল্টো কলেজ গভর্নিং বডির বর্তমান সভাপতি জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লবের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে মামলা দেন। ভোলার পুলিশ সুপার জানান, প্রতারক নিজাম উদ্দিনের বিরুদ্ধে অনেক আগেই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়। তিনি দীর্ঘদিন পলাতক ছিলেন।

এছাড়া তার বিরুদ্ধে স্ত্রীর ওপর নির্যাতনেরও অভিযোগ রয়েছে। মাদ্রাসার ছাত্র নিজাম উদ্দিনের মাস্টার্স সনদ নিয়েও জালিয়াতির অভিযোগ থাকার কথা জানান শিক্ষকরা। কলেজের কৃষি ডিপ্লোমা বিভাগ খুলে প্রতি বছর শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ আছে। এভাবেই এক সময়ের মাদ্রাসার শিক্ষক নিজাম হয়ে ওঠেন কলেজ শিক্ষক ও কোটিপতি।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×