ফোনে সম্পর্ক পালিয়ে বিয়ে অতঃপর মৃত্যু

  মুলাদী (বরিশাল) প্রতিনিধি ২৭ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মৃত্যু

মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে নারায়ণগঞ্জ থেকে পালিয়ে বরিশালের হিজলায় এসে প্রেমিককে বিয়ে করেন শারমিন। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে স্বামীর বাড়ির লোকজন শারমিনকে মুলাদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। স্বামী ও তার পরিবারের লোকজনের দাবি শারমিন বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন।

প্রায় ৬ মাস আগে হিজলা উপজেলার মেমানিয়া ইউনিয়নের বড়লক্ষ্মীপুর গ্রামের কামাল সরদারের ছেলে আরিফ সরদারের সঙ্গে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার রূপসা গ্রামের শরিফ হোসেনের মেয়ে শারমিন আক্তারের মোবাইল ফোনে পরিচয় হয়। শারমিন তার বাবা-মায়ের সঙ্গে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়ায় থাকতেন। শারমিনের বাবা শরিফ হোসেন জানান, মোবাইল ফোনে পরিচয়ের ২ মাসের মধ্যে শারমিন বাসা থেকে পালিয়ে যায় এরপর থেকে তারা শারমিনের কোনো খোঁজ পাননি। মেয়েকে খুঁজে পেতে ব্যর্থ হয়ে প্রায় হাল ছেড়ে দিয়েছিলেন কিন্তু শনিবার সকাল ৯টার দিকে আরিফ সরদার মোবাইল ফোনে শারমিনের আত্মহত্যার খবর দেয়।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শারমিনকে বিয়ে করায় আরিফের পরিবার মেনে নিতে পারেনি। এ নিয়ে শারমিনের সঙ্গে আরিফ ও তার পরিবারের লোকজনের ঝগড়া লেগেই থাকত। শুক্রবার রাতে শারমিনের সঙ্গে তার শাশুড়ি শাহানুর বেগমের ঝগড়া হয়েছিল বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। শনিবার সকাল ৯টার দিকে আরিফ সরদার ও তার বাবা বাজারে থাকাকালীন মোবাইল ফোনে শারমিনের বিষপানের সংবাদ পান। পরে তারা শারমিনকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হিজলা উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যান।

সেখানে বিষমুক্ত করার ব্যবস্থা না থাকায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদের মুলাদী হাসপাতালে প্রেরণ করে। দুপুর ১২টার দিকে শারমিনকে মুলাদী হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। শারমিনের বাবা অভিযোগ করে বলেন, মেয়ের মৃত্যুর পর থেকে আরিফ ও তার সহযোগীরা মোবাইল ফোনে বিভিন্ন হুমকি দিচ্ছে। এমনকি শারমিনের মৃত্যুর ঘটনায় কোনো অভিযোগ করা হলে তাকেও হত্যা করা হবে বলে হুমকি দিচ্ছে আরিফ ও তার পরিবারের সদস্যরা।

আরিফ সরদার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, শারমিন কী কারণে আত্মহত্যা করেছে তা আমার জানা নেই। তবে শারমিনের পরিবারকে অবহিত করার জন্যই শরিফ হোসেনকে ফোন করেছিলেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×