২৫ মার্চের আলোচনা সভা

আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৬ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি বলেছেন, ২৫ মার্চের গণহত্যা বিষয়ে জাতীয়ভাবে দিবস পালিত হলেও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি এখনও আমরা পাইনি। ২৫ মার্চের গণহত্যা দিবসের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ে প্রয়োজনীয় সব উদ্যোগ নেয়া হবে। এ লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এ লক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় সহায়তা করা হবে।

সোমবার জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আয়োজিত ২৫ মার্চের গণহত্যা সংক্রান্ত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব এসএম আরিফ-উর-রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি শাজাহান খান এমপি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত বীরপ্রতীক লে. কর্নেল (অব.) কাজী সাজ্জাদ আলী জহির, ২৫ মার্চ রাজারবাগে প্রতিরোধযোদ্ধা বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান মিয়া প্রমুখ।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ ’৭০-এর নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনে বিজয়ী হলেও পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠী ক্ষমতা হস্তান্তরে টালবাহানা শুরু করে। এতে বাঙালি ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। সারা বাংলায় স্লোগান ওঠে ‘তুমি কে আমি কে, বাঙালি বাঙালি; তোমার আমার ঠিকানা পদ্মা মেঘনা যমুনা; বীর বাঙালি অস্ত্র ধরো, বাংলাদেশ স্বাধীন করো।’ স্বাধীনতা কেবল ৯ মাসের সশস্ত্র সংগ্রামের ফসল নয়। ’৪৭-এর দেশ ভাগ, ’৫২-এর ভাষা আন্দোলন থেকে ধারাবাহিক সংগ্রামের চূড়ান্ত পরিণতি মুক্তিযুদ্ধ। স্বাধীনতার ইশতেহার প্রণয়নের সময়ই জাতির পিতা, জাতীয় সঙ্গীত ও জাতীয় নীতি চূড়ান্ত করা হয়। আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলায় আইয়ুব খানের বিরুদ্ধে অভিযোগেই জানা যায়, দেশকে স্বাধীন করার জন্য বঙ্গবন্ধু অনেক আগে থেকেই প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ছিল স্বাধীনতা যুদ্ধের পরিপূর্ণ নির্দেশনা। বঙ্গবন্ধু ভবিষ্যদ্বাণী করে বলেছিলেন, ‘আমি যদি হুকুম দিবার নাও পারি, তোমরা সবকিছু বন্ধ করে দেবে, যার যা কিছু আছে তাই নিয়ে শত্রুর মোকাবেলা করতে হবে।’ মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে রাজনৈতিক স্বাধীনতা অর্জিত হলেও অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য আমাদের কাজ করতে হবে। আলোচনা সভার আগে একাত্তরের গণহত্যা বিষয়ে ডকুমেন্টারি প্রদর্শিত হয়।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×