বাংলাদেশ-ভারত আন্তঃদেশীয় রেল সংযোগ

পার্বতীপুর-কাউনিয়ায় হচ্ছে ডাবল লাইন

ব্যয় হবে ১ হাজার ৬৮৩ কোটি টাকা * ঋণ সহায়তা দিচ্ছে ভারত

  হামিদ-উজ-জামান ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

দিনাজপুরের পার্বতীপুর থেকে রংপুরের কাউনিয়া পর্যন্ত রেল লাইনকে ডুয়েলগেজে (ডাবল লাইন) উন্নীত করা হচ্ছে। ফলে বিরল সীমান্তের মাধ্যমে আন্তঃদেশীয় রেল যোগাযোগ স্থাপিত হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা। ডাবল লাইন স্থাপনে ব্যয় হবে ১ হাজার ৬৮৩ কোটি ২১ লাখ টাকা। এর মধ্যে ভারতীয় লাইন অব ক্রেডিটের (এলওসি) ঋণ থেকে ১ হাজার ৩৬৭ কোটি ২৪ লাখ টাকা এবং সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ৩১৫ কোটি ৯৭ লাখ টাকা ব্যয় করা হবে। রেলপথ মন্ত্রণালয়ের নেয়া উদ্যোগটি বাস্তবায়িত হলে ৫৭ কিলোমিটার মেইন লাইন ও ৯ দশমিক ৮৫ কিলোমিটার লুপ লাইন মিটারগেজ থেকে ডুয়েলগেজে রূপান্তর হবে।

রেলপথ মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বর্তমানে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে আন্তঃদেশীয় রেল যোগাযোগ বৃদ্ধির ওপর গুরুত্বারোপ করা হচ্ছে। রোহনপুর-সিঙ্গাবাদ ব্রডগেজ রেলওয়ে লিংক ও রাধিকাপুর-বিরল ব্রডগেজ রেলওয়ে লিংক করিডোর দুটির মাধ্যমে বাংলাদেশ রেলওয়ে ভারতসহ নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে রেলওয়ে ট্রানজিট স্থাপন করতে পারবে। চিলাহাটি থেকে পার্বতীপুর হয়ে ঈশ্বরদী পর্যন্ত সেকশনটি ব্রডগেজ রয়েছে। কিন্তু পার্বতীপুর থেকে রাধিকাপুর ও পার্বতীপুর থেকে কাউনিয়া পর্যন্ত সেকশনটি মিটারগেজ। এ অবস্থায় বিরল সীমান্ত দিয়ে ব্রডগেজ লাইনের মাধ্যমে আন্তঃদেশীয় রেল যোগাযোগ স্থাপন সম্ভব হচ্ছে না। এজন্য ‘বাংলাদেশ রেলওয়ের পার্বতীপুর হতে কাউনিয়া পর্যন্ত মিটারগেজ রেল লাইনকে ডুয়েলগেজে রূপান্তর’ প্রকল্প হাতে নেয়া হচ্ছে।

পরিকল্পনা কমিশন সূত্র জানায়, রেলপথ মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রকল্প প্রস্তাব করা হয়েছে পরিকল্পনা কমিশনে। এ পরিপ্রেক্ষিতে গত বছরের ৩০ জুলাই প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভার সুপারিশ বাস্তবায়ন করায় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) আগামী সভায় অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করার প্রস্তুতি চূড়ান্ত করা হয়েছে। অনুমোদন পেলে চলতি মাস থেকে ২০২২ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে বাংলাদেশ রেলওয়ে। প্রকল্পটি চলতি অর্থবছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (এডিপি) বৈদেশিক সাহায্য প্রাপ্তির সুবিধার্থে বরাদ্দহীনভাবে অননুমোদিত নতুন প্রকল্প হিসেবে অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

প্রস্তাবিত প্রকল্পের আওতায় প্রধান কাজ হচ্ছে, পরামর্শক সেবা গ্রহণ, ৬৬ দশমিক ৮৫ কিলোমিটার রেলওয়ে ট্র্যাক নির্মাণ, ৬০২ মিটার ব্রিজ নির্মাণ ও সিগন্যালিং সংস্কার কার্যক্রম পরিচালনা করা।

একনেকের জন্য তৈরি করা কার্যপত্রে এ প্রসঙ্গে পরিকল্পনা কমিশনের ভৌত অবকাঠামো বিভাগের সদস্য জুয়েনা আজিজ বলেছেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে পার্বতীপুর থেকে কাউনিয়া পর্যন্ত ডাবল রেললাইন স্থাপন করা হবে। এতে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে রেল যোগাযোগ বৃদ্ধি পাবে। সেই সঙ্গে আধুনিক ও নিরাপদ ট্রেন চলাচল নিশ্চিত করার পাশাপাশি উন্নত যাত্রী সেবা দেয়া সম্ভব হবে।

প্রকল্পের প্রস্তাবে বলা হয়েছে, পার্বতীপুর-কাউনিয়া সেকশনটি ডুয়েলগেজে রূপান্তর হলে যাত্রী, মালামাল পরিবহন ও ট্রান্স বর্ডার রেলওয়ে ট্রাফিক সুযোগ সৃষ্টি হবে। এর পাশাপাশি এ সেকশন বাংলাদেশ রেলের ব্রডগেজ নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত হবে। পার্বতীপুর-কাউনিয়া সেকশনটি প্রধান রেললাইন, যা রংপুর বিভাগীয় সদর দফতরকে যুক্ত করেছে। বিদ্যমান সেকশনটি ১৯৮৭ থেকে ১৯৯২ সাল পর্যন্ত একটি প্রকল্পের মাধ্যমে পুনর্বাসন করা হয়েছিল। বর্তমানে এ সেকশনটির স্লিপারের মেয়াদ উত্তীর্ণসহ অন্যান্য অবকাঠামো উপকরণ জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। ফলে এ সেকশন দিয়ে ইন্টারসিটি ট্রেনসহ অন্যান্য ট্রেন যথাযথ গতিতে চলতে পারছে না। এ সেকশনটিতে ডুয়েলগেজ রেললাইন হলে একই সঙ্গে মিটারগেজ ও ডুয়েলগেজ ট্রেন চলাচল করতে পারবে। এর মধ্যদিয়ে সেকশনাল ক্যাপাসিটি বৃদ্ধির মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন সহজ হবে। এছাড়া বাড়বে ট্রান্স বর্ডার বাণিজ্যও।

সাধারণ অর্থনীতি বিভাগ (জিইডি) সূত্র জানায়, চলতি সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় পাঁচ বছরে ১ হাজার ১১০ কিলোমিটার ডুয়েলগেজ ডাবল ট্র্যাক নির্মাণের লক্ষ্য রয়েছে। প্রস্তাবিত এ প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে বাংলাদেশ রেলওয়ের ৬৬ দশমিক ৮৫ কিলোমিটার ডুয়েলগেজ ট্র্যাক নির্মাণ করা হবে। তাই প্রকল্পটি পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ।

pran
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

mans-world

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.