প্রতিশ্রুতির ১০ ভাগও বাস্তবায়ন হয়নি

  মো. সাজজাত হোসেন, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র সাহাদৎ হোসেন সুমনের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির ১০ ভাগও বাস্তবায়ন হয়নি। বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ, ময়লা-আবর্জনা ফেলার জন্য নির্দিষ্ট জায়গা নির্ধারণ, পরিচ্ছন্ন শহর গড়ে তোলা এবং গ্যাসলাইন সংযোগসহ নানা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মেয়র সুমন। রাস্তাঘাট ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার কোনো উন্নয়ন হয়নি।

পৌরসভা নির্বাচনের আগে ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী ও বিএনপি নেতাদের সঙ্গে আঁতাত করে এক শ্রেণীর বাটপার অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে পৌরবাসীর কাছ থেকে কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। কিন্তু এ অবৈধ গ্যাস সংযোগ উচ্ছেদ করা হয়। গ্যাস সংকট সমাধানে নির্বাচনের আগে পৌরবাসীকে আশার বাণী শুনিয়েছিলেন সুমন। নিজের ভাই ও আওয়ামী লীগ দলীয় স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ মো. একাব্বর হোসেনের সহায়তায় গ্যাস সংকট সমাধানের কথা বলে তিনি ভোট প্রার্থনা করেন। কিন্তু জয়লাভের পর এ সমস্যা সমাধানে মেয়র সুমন কোনো উদ্যোগ নেননি। জানা গেছে, এই অবৈধ গ্যাস সংযোগের জন্য অনেকে শেষ সম্বল গরু-ছাগল বিক্রি করেছে, এমনকি চড়া সুদে টাকা ধার নিয়েছে।

যুগান্তরের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে মেয়র সুমন বলেন, নির্বাচনের আগে পৌরবাসীকে বেশকিছু আশ্বাস ও প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম। অনেক প্রতিশ্রুতিই বাস্তবায়ন করেছি। সব সমস্যা সমাধানের আপ্রাণ চেষ্টা করছি। তিনি বলেন, এ জন্য অবশ্য বড় বরাদ্দের প্রয়োজন। বরাদ্দ পেলে জনগণের এ দুর্ভোগ লাঘব হবে।

আগামী নির্বাচনে অংশ নেবেন কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে মেয়র সুমন বলেন, জনগণের আশা আকাক্সক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। বিশ্বাস করি পৌরবাসী কাজ দেখে সিদ্ধান্ত নেবেন। উন্নয়নমূলক কাজের তথ্যের জন্য পৌরসভার সচিব মো. আবদুল হাইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি তা দিতে অস্বীকৃতি জানান।

২০০০ সালে মির্জাপুর পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রায় ৮ দশমিক ২১ বর্গকিলোমিটার আয়তনের এ পৌরসভায় ৩৫ হাজার লোকের বাস। ২০০২ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত পৌরসভার প্রথম নির্বাচনে মেয়র নির্বাচিত হন মোশারফ হোসেন মনি। ২০১১ সালে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বিজয়ী হন মো. শহিদুর রহমান শহিদ। ২০১৬ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থীকে পরাজিত করে আওয়ামী লীগ প্রার্থী হিসেবে জয়লাভ করেন সাহাদৎ হোসেন সুমন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×