হজযাত্রীদের ৩৪৬ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার পাঁয়তারা

বিমানের এমডির অপসারণ দাবি

  যুগান্তর রিপোর্ট ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশ বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের অপসারণ ও আর্থিক দুর্নীতির কারণে দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ হজযাত্রী ও হাজী কল্যাণ পরিষদ।

রোববার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে পরিষদ সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুল্লাহ আল নাসের এ দাবি জানান। তিনি বলেন, গত বছর হজে বিমান ভাড়া এক লাখ ২৪ হাজার ৭২৩ টাকা থাকলেও এ বছর ১৬৩৩ মার্কিন ডলার বা প্রায় এক লাখ ৩৫ হাজার টাকা করার প্রস্তাব করেছে বিমান, যা সম্পূর্ণ অন্যায় সিদ্ধান্ত। এতে হাজীদের কাছ থেকে ৩৪৫ কোটি ৮৯ লাখ টাকা বেশি নেয়ার পাঁয়তারা করা হচ্ছে। যে টাকা বিদেশে পাচার করা হতে পারে বলে আশঙ্কা করে এজন্য তার অপসারণ দাবি করছি এবং দুদককে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। নাসের আরও বলেন, বর্তমানে ঢাকা-জেদ্দা-ঢাকা মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক এয়ারলাইন্সে ভাড়া নেয়া হয় ৩৮ থেকে ৪২ হাজার টাকা। সৌদি এয়ারলাইন্স নেয় ৪৮ হাজার টাকা। এ বছরের ওমরায় বাংলাদেশ বিমান জেদ্দা যাওয়া-আসা ভাড়া নিচ্ছে ৫২ হাজার টাকা। অথচ সেই ভাড়া হজের সময় এক লাখ ৩৫ হাজার টাকা করা কোনোমতেই যুক্তিসঙ্গত হতে পারে না।

তিনি বলেন, হজের সময় বিমান জেদ্দা গিয়ে খালি ফিরে আসে এবং হজ শেষে হাজীদের নিয়ে আসার পর খালি ফিরে যায়- এ যুক্তিতে ভাড়া দ্বিগুণ করে ৪৮ হাজার থেকে ৯৬ হাজার করা যেতে পারে, কিন্তু তা কোনোভাবেই তিনগুণ হতে পারে না। সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আবদুল বাতেন, সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আজাদ হোসেন ও কামরুজ্জামান প্রমুখ।

এ প্রসঙ্গে বিমানের মুখপাত্র ও জেনারেল ম্যানেজার (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ যুগান্তরকে বলেন, হজে বিমান ভাড়া বাড়ানোর বিষয়টিতে বিমান এমডির একার কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। কাজেই তার বিরুদ্ধে দুদকে অভিযোগ দেয়া ঠিক হয়নি। তিনি বলেন, নানা কারণে সরকার হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া বাড়িয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে জেট ফুয়েলের দাম বৃদ্ধি। গত বছরের তুলনায় এক বছরে ৪ দফা জেট ফুয়েলের দাম বাড়ানো হয়েছে। এছাড়া হজের সময় সৌদি আরব সরকার হজ ফ্লাইট সংক্রান্ত বিভিন্ন সার্ভিস চার্জের ওপর ৫ শতাংশ হারে সার্ভিস চার্জ আরোপ করেছে। আগে এসব সার্ভিস চার্জ ছিল না। তার মতে, গত বছর বিমান ভাড়া ছিল ১৪৭৫ মার্কিন ডলার। এবার তা বাড়িয়ে করা হয়েছে ১৬৩৫ ডলার। যদি সবকিছু ধরে ভাড়া বাড়ানো হতো তাহলে এ ভাড়া ১৮শ’ ডলার ছাড়িয়ে যেত।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter