প্রচারণায় ব্যাপক সাড়া

ভোলায় নির্বাচনী রাজনীতিতে নতুন মাত্রা উঠান বৈঠক

  অমিতাভ অপু, ভোলা ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গ্রামের সাধারণ ভোটারদের মতামত জানা ও তাদের সমস্যা চিহ্নিত করে সমাধানের উৎকৃষ্ট মাধ্যম উঠান বৈঠক। ১০ থেকে ২০টি বাড়ি নিয়ে একেকটি বৈঠকের আয়োজন করা হয়। এতে নারীর অংশগ্রহণ সর্বাধিক। নারীরা কাছ থেকে নেতা ও জনপ্রতিনিধির বক্তব্য শুনতে পারছেন। তাদের কথা বলতে পারছেন। ভোলার দুই সংসদ সদস্য গত একশ’ দিন এমন টানা বৈঠকের আয়োজন করে রাজনীতির মাঠে নতুন মাত্রা যোগ করেছেন। নির্বাচনী হাওয়ায় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু এখন উঠান বৈঠক। ওই দুই সংসদ সদস্য হচ্ছেন ভোলা-২ (দৌলতখান ও বোরহানউদ্দিন উপজেলা)-এর আলী আজম মুকুল ও ভোলা-৩ (লালমোহন ও তজুমদ্দিন উপজেলা)-এর নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন। এদিকে আওয়ামী লীগ দলীয় এই দুই প্রার্থী মাঠ চষে বেড়ালেও দেখা নেই বিএনপি দলীয় প্রার্থীদের। এই দুটি আসনে বিএনপির প্রার্থীদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য রয়েছেন কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ৬ বারের সাবেক এমপি মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বীরবিক্রম ও সাবেক এমপি হাফিজ ইব্রাহিম। এছাড়া ওই দলের প্রার্থীর তালিকায় রয়েছেন ভোলা-২ আসনে চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী কেন্দ্রীয় শ্রমিক দলের উপদেষ্টা রফিকুল ইসলাম মমিন, জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক আমিনুল ইসলাম। ভোলা-৩ আসনের তালিকায় রয়েছেন তজুমদ্দিন উপজেলা বিএনপির বিদ্রোহী গ্রুপের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ও লালমোহন উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম-সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান টিটপ। অবশ্য সময় হলেই এরা মাঠে যাবেন বলে জানান জেলা বিএনপির সম্পাদক হারুন অর রশিদ। তিনিও উঠান বৈঠকের প্রশংসা করেন। অপরদিকে ভোলা-৩ আসনের এমপি নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন যুগান্তরকে জানান, তিনি এক বছর আগ থেকেই নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন। বিশেষ করে গত নভেম্বরে পার্লামেন্ট সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনী প্রচারণার কথা প্রথম তুলে ধরেন। ওই সময় থেকেই উঠান বৈঠক কার্যক্রম শুরু করেন এমপি শাওন। টানা ১০০ দিনে (৩ মাস ১০ দিন) তিনি এলাকায় ছিলেন ৮০ দিন। দৈনিক উঠান বেঠক করেছেন ৫ থেকে ৭টি। এ হিসাবে বৈঠক করেছেন ৫০০টি। ১০টি বাড়ি নিয়ে উঠান বৈঠকের ছক করা হয়। এতে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। এক এক বৈঠকে অংশ নেন দেড়শ’ নারী ও পুরুষ ভোটার। ওই বৈঠক থেকেই সমস্যা চিহ্নিত করে সমাধান করা হয়। ৩ দিন আগে ধলিগৌর নগর এলাকার হাওলাদার বাড়িসহ ৩ কিলোমিটার এলাকায় বিদ্যুৎ সমস্যা ছিল দীর্ঘদিন। বৈঠক চলাকালীন ওই সমস্যা সমাধান করা হয়। মসজিদের ঘাটলা, বাড়ির ঘাটলা সংস্কার করে দেয়া হয়। একই কথা জানান ভোলা-২ আসনের এমপি আলী আজম মুকুল। তিনি জানান, উঠান বৈঠকের মাধ্যমে ভোটারদের মতামত কাছ থেকে জানার সুযোগ হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বার্তা গ্রামের অতি সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়ার একটি মাধ্যমই হচ্ছে উঠান বৈঠক। তিনি বলেন, ওই বৈঠকেই জানা যায় কোন বাড়িতে কারা অর্থাভাবে চিকিৎসা পাচ্ছেন না। তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করা। মুকুল জানান, শুক্রবার রাতে তিনি বৈঠক করেছেন কাচিয়া ইউনিয়ন চকঢোষ গুচ্ছগ্রামে। ওই গ্রামের ২শ’ পরিবারের স্যানিটেশন সমস্যা ছিল দীর্ঘদিনের। তাৎক্ষণিক ২৫ হাজার টাকা দিয়ে ব্যক্তি উদ্যোগে ওই সমস্যা সমাধান করা হয়। একই সঙ্গে পুকুরের দুটি ঘাটলার ব্যবস্থা করা হয়। তার এলাকায় ২০টি বাড়ি নিয়ে একটি বৈঠকের ছক করা হয়। গত এক মাসে তিনি শতাধিক বৈঠক করেছেন। ওই বৈঠকেই তিনি এলাকার সমস্যা চিহ্নিত করে তার সমাধান এলাকায় বসেই করে দেন। নিজ অর্থায়নে ছোট ছোট রাস্তা, কালভার্ট মেরামত করে দেয়ার ব্যবস্থা করেন। খাবার পানি সরবরাহের জন্য টিউবওয়েলের ব্যবস্থা করেন। এমন সরাসরি গ্রামীণ রাজনীতির নামই হচ্ছে উঠান বৈঠক। জেলা নির্বাচন অফিসার মো. আলাউদ্দিন আল মামুন জানান, দৌলতখান উপজেলার ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ২৬ হাজার ৮৭১ জন। নারী ভোটার ৬০ হাজার ৯৪৭ জন। বোরহানউদ্দিন উপজেলার ভোটার সংখ্যা এক লাখ ৫৬ হাজার ৭ জন। নারী ভোটার ৭৭ হাজার ৬৩ জন। অপরদিকে লালমোহন উপজেলার ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ১০ হাজার ৯১ জন। নারী ভোটার ১ লাখ ৩ হাজার ৮৬৪। তজুমদ্দিন উপজেলার ভোটার সংখ্যা ৮৬ হাজার ৮৫৬ জন। নারী ভোটার ৪২ হাজার ১৬৫ জন। নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না হলেও এমন প্রচারণায় আইনগত বাধা নেই বলেও জানান তিনি।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter