না’গঞ্জে ধর্ষণের ভিডিও ছড়ানোর হুমকি

  যুগান্তর ডেস্ক ১৭ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ধর্ষণ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে ফের ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার ওই ধর্ষিতা আড়াইহাজার থানায় চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় শ্যালিকাকে অপহরণ করে আবাসিক হোটেলে আটকে রেখে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে দুলাভাই। এ ঘটনায় দুলাভাইয়ের এক সহযোগীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ময়মনসিংহের ইশ্বরগঞ্জে ধর্ষণের শিকার দ্বিতীয় শ্রেণীর এক শিশু। কুমিল্লার বুড়িচংয়ে বিয়ের প্রলোভনে এক কিশোরীকে দুই বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া রাজশাহী, দিনাজপুর, টাঙ্গাইল, গাইবান্ধা ও টঙ্গীতে ধর্ষণ ও ধর্ষণ চেষ্টার মামলায় আরও পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়। ভৈরবে কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে ৪ বখাটের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

নারায়ণগঞ্জ : আড়াইহাজারে গৃহবধূকে ধর্ষণের ঘটনায় করা মামলার আসামিরা হল- আড়াইহাজার থানার গাজীপুরা এলাকার ছায়েদ আলীর ছেলে সেলিম, ছালামের ছেলে নাঈমউদ্দিন, কফিলউদ্দিনের ছেলে সোহেল ও একই এলাকার নিজামউদ্দিনের ছেলে আবুল। মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, দীর্ঘদিন ধরে এলাকার চার বখাটে স্থানীয় এক দরিদ্র যুবকের স্ত্রীকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল।

৬ মে সন্ধ্যায় বাড়ির বাইরে বের হলে সেলিম তার মুখ চেপে ধরে পাশেই একটি পুকুর পাড়ে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকেই অপেক্ষায় ছিল একই এলাকার আবুল, সোহেল ও নাঈমউদ্দিন। সহযোগীরা হাত-পা ও মুখ চেপে ধরে রাখে এবং সেলিম তাকে ধর্ষণ করে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়। এ সময় নাঈমউদ্দিন মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে। পরে সেই ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে তাকে আবারও ধর্ষণের চেষ্টা করে তারা। আড়াইহাজার থানার এসআই ফায়জুর রহমান বলেন, অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) : মামলার বিবরণে জানা গেছে, ৮ মে বেলা ৩টার দিকে কলাপাড়া পৌরশহর থেকে দশম শ্রেণীর ছাত্রী শ্যালিকাকে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে যায় দুলাভাই ও তার কয়েকজন সহযোগী। পরে তাকে কুয়াকাটার একটি আবাসিক হোটেলে আটকে রেখে এসিড নিক্ষেপের হুমকি দিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে। বুধবার ওই ছাত্রী পালিয়ে বাসায় এলে রাতে কলাপাড়া থানায় দুলাভাই ও তার সহযোগী মো. মিলনকে আসামি করে ভিকটিমের ভাই নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেছেন। পুলিশ মিলনকে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার আদালতে সোপর্দ করেছে। কলাপাড়া থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম জানান, মূল আসামিকে গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

বুড়িচং (কুমিল্লা) : বুড়িচং উপজেলার কংশনগর গ্রামের এক কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সোহেল নামে এক বখাটে ২ বছর ধরে ধর্ষণ করে আসছে। এমন অভিযোগে মঙ্গলবার কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে কুমিল্লার আদালতে একটি মামলা করেন। ওইদিনই বুড়িচং থানার দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই শাহিন কাদির অভিযুক্ত যুবক সোহেলকে গ্রেফতার করে।

এদিকে বুড়িচং উপজেলার মনিপুর এলাকায় এক ভ্যানচালকের ঘরে প্রবেশ করে তার নয় বছরের শিশু সন্তানকে ধর্ষণ করেছে কবির হোসেন নামে এক যুবক। বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। পরে ধর্ষণের ঘটনার চার ঘণ্টার মাথায় ধর্ষক কবিরকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছেন স্থানীয় জনতা।

এ ঘটনার পর কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। শিশুটির বাবা বাদী হয়ে বুড়িচং থানায় একটি মামলা করেছেন।

বাঘা (রাজশাহী) : বাঘা উপজেলার খায়েরহাট গ্রামের আবদুল কাদের মণ্ডলের ছেলে জনি মণ্ডল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে পূর্ব পরিচয়ের সুবাদে পাশের গ্রামে এক গৃহবধূর ঘরে যায়। এ সময় কথাবার্তার একপর্যায়ে জনি তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। গৃহবধূর চিৎকারে প্রবিবেশীরা এসে জনিকে আটক করে। পরে তাকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরে গৃহবধূ বাদী হয়ে জনি মণ্ডলের নামে থানায় ধর্ষণ চেষ্টার মামলা করেন। স্থানীয়রা জানান, জনি মণ্ডল বিবাহিত ও প্রভাবশালী। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

টাঙ্গাইল : স্বামীকে মারধর করে মির্জাপুর শিল্প এলাকার পোশাক শ্রমিককে গণধর্ষণ মামলার পলাতক আরও এক আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই আসামির নাম মো. উজ্জ্বল মিয়া (২৫)। তিনি সদর উপজেলা বাঘিল ইউনিয়নের ফৈলারঘোনা গ্রামের ফরজ আলীর ছেলে।

গাইবান্ধা : সাঘাটা উপজেলার বাদিনার পাড়া গ্রামে ৮ম শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলার অন্যতম আসামি রাঙ্গা মিয়াকে গ্রেফতার করেছে পিবিআই। বুধবার রাতে বগুড়ার চারমাথা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। জানা যায়, ৫ মে রাতে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে আসামি রাঙ্গা তার শয়নঘরে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে।

ঢাকা (উত্তর) : টঙ্গীর পূর্ব থানার গোপালপুর সাতরং এলাকায় চকলেট খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে ৪ বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার মামলার আসামি ওমর ফারুক মিদুলকে (১৫) গ্রেফতার করেছেন র‌্যাব-১ এর সদস্যরা। র‌্যাব-১ জানায়, ২৩ এপ্রিল অভিযুক্ত মিদুল তার নানা গিয়াস উদ্দিনের বসতঘরে ৪ বছরের এক শিশুকে চকলেট খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) : পার্বতীপুর উপজেলার শেরপুর ভবানীপুর গ্রামে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে মোস্তফা তামিম অনিক (১৯) নামের এক যুবক। পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার দিনাজপুর আদালতে পঠিয়েছে। অন্যদিকে ধর্ষিতাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য এম রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ভৈরব : শুক্রবার সন্ধ্যায় ভৈরবের কালিকাপ্রসাদ গ্রামের হাইস্কুল পাড়া এলাকায় এক কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টায় ৪ বখাটের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছেন তার মা। বখাটেদের ভয়ে থানায় মামলা দিতে পারেননি তিনি। ঘটনার পরপর বখাটের অভিভাকদের ঘটনা জানালে তারা উল্টো ভয়ভীতি দেখাচ্ছে কিশোরীর পরিবারকে। বৃহস্পতিবার কিশোরীর পরিবার স্থানীয় সাংবাদিকদের বিষয়টি মোবাইলে জানায়। অভিযুক্তরা হল- কালিকাপ্রসাদ এলাকার হেদায়েত উল্লার ছেলে শরীফ, মন্নাফ মিয়ার ছেলে ফাইম, লবু মিয়ার ছেলে বায়েজিদ ও আউয়াল মিয়ার ছেলে তৌহিদ। ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) : উপজেলার আঠার বাড়ি ইউনিয়নের কালান্দর গ্রামে বৃহস্পতিবার বিকালে দ্বিতীয় শ্রেণীর এক শিশুকে ধর্ষণ করেছে এক লম্পট। ধর্ষিতার পরিবার জানায়, মঙ্গলবার দুপুরে শিশুটি বাড়ির পাশে একটি দোকানের সামনে খেলা করছিল। এ সময় দোকানদার মজনু (৩৫) শিশুটিকে বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে পাশের পাট ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে শিশুটির কান্নাকাটি শুনে এক প্রতিবেশী নারী ঘটনাস্থলে গেলে লম্পট মজনু পালিয়ে যায়।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×