আলাউদ্দীন আলীকে দেখতে সিআরপিতে হাদী ও সাবিনা

  যুগান্তর রিপোর্ট ০২ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

আলাউদ্দীন আলীকে দেখতে সিআরপিতে হাদী ও সাবিনা

ঠিকমতো কথা বলতে পারেন না বরেণ্য সঙ্গীতজ্ঞ আলাউদ্দীন আলী। সাভারের পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্রে (সিআরপি)-তে চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি।

৮ এপ্রিল সিআরপিতে ভর্তি করা হয় আলাউদ্দীন আলীকে। ৩১ মে তাকে দেখতে সিআরপিতে গিয়েছিলেন কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী সৈয়দ আবদুল হাদী ও সাবিনা ইয়াসমিন।

সেখানে তারা প্রখ্যাত এ সঙ্গীতজ্ঞের সঙ্গে কিছুক্ষণ সময় কাটান। আলাউদ্দীন আলীর বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, ‘আলাউদ্দীন আলী ভাই খুব একটা ভালো নেই। শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলেও ভালো করে কথা বলতে পারেন না। তার জন্য সবাই দোয়া করবেন।’

সৈয়দ আবদুল হাদী বলেন, ‘বরেণ্য এ সঙ্গীতজ্ঞের সঙ্গে কিছুসময় কাটালাম। আমাদের একসঙ্গে অনেক কাজ আছে। তিনি আমাদের দেশের সম্পদ। আগের চেয়ে কিছুটা সুস্থ তিনি।

তবে তার প্যারালিটিক্যাল সমস্যা রয়েছে। এজন্য ফিজিওথেরাপি চলছে। আমাকে দেখে তিনি খুব খুশি হয়েছেন। শুনেছি এ অবস্থায়ও তিনি একটি গান লিখেছেন। আমি চাই আলাউদ্দীন আলী সুস্থ হয়ে আবার ফিরে আসুক গানের ভুবনে। সবাই তার জন্য দোয়া করবেন।’

প্রসঙ্গত, অসুস্থতার কারণে ২২ জানুয়ারি রাত ১১টায় আলাউদ্দীন আলীকে রাজধানীর ইউনিভার্সেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে দুই মাসের বেশি চিকিৎসায় তিনি অনেকটা সুস্থ হয়ে ওঠেন। এরপর তাকে সাভারের সিআরপিতে স্থানান্তর করা হয়। আর সুস্থ হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার্থে থাইল্যান্ডে নিয়ে নেয়ার চিন্তা-ভাবনা করছে বলে জানিয়েছে পরিবার।

আলাউদ্দীন আলী বাংলা চলচ্চিত্রে অসংখ্য জনপ্রিয় গান সৃষ্টি করেছেন। তিনি একাধারে সঙ্গীত পরিচালক, সুরকার, বেহালাবাদক ও গীতিকার। আটবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। ‘সুখে থাকো ও আমার নন্দিনী’, ‘সূর্যোদয়ে তুমি সূর্যাস্তেও তুমি’, ‘বন্ধু তিন দিন তোর বাড়ি গেলাম’, ‘যেটুকু সময় তুমি থাকো কাছে’, ‘প্রথম বাংলাদেশ আমার শেষ বাংলাদেশ’, ‘আছেন আমার মুক্তার’, ‘জন্ম থেকে জ্বলছি মাগো’, ‘ভালোবাসা যত বড় জীবন তত বড় নয়’, ‘সবাই বলে বয়স বাড়ে’, ‘আমায় গেঁথে দাওনা মাগো একটা পলাশ ফুলের মালা’, ‘যে ছিল দৃষ্টির সীমানায়’সহ অনেক কালজয়ী গানের স্রষ্টা আলাউদ্দীন আলী।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×