ফুলগাজীর হুমায়ুন কবির হত্যা

আদালতে পিতা হত্যার বর্ণনা দিলেন রিফাত

  পরশুরাম ও ফুলগাজী প্রতিনিধি ০৪ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ফেনীর ফুলগাজীর হুমায়ুন কবির (৪৫) হত্যার দায় স্বীকার করে তাকে কীভাবে খুন করা হয়, আদালতে তারই বর্ণনা দিলেন ছেলে শাহাদাত হোসেন রিফাত (২৪)। ২ জুন বিকালে ফেনীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জাকির হোসাইনের আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন রিফাত। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সাইফুল ইসলাম বলেছেন, রিফাত তার বাবা হুমায়ুন কবিরকে কেন হত্যা করেছেন, তার কারণও ব্যাখ্যা করেছেন। বলেছেন, বিদেশ থেকে ফেরত আসার পর বাবা আমাকে ওঠতে-বসে বকাঝকা ও মারধর করতেন। এতে আমি অতিষ্ঠ হয়ে উঠি। এরই জেরে ২৮ মে ঘরে ঝগড়ার সময় ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে সজোরে ধাক্কা দিলে তিনি ঘরের ফ্রিজের ওপর গিয়ে আছড়ে পড়েন। মাথায় প্রচণ্ড আঘাত পান এবং বাবা জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে স্ট্রোকে মারা গেছেন বলে প্রচার করা হয়। পরের দিন ২৯ মে তড়িঘড়ি করে দাফনের উদ্যোগ নেয়া হয়। উপজেলার মুন্সীরহাটের জগৎপুর নিজ গ্রামে জানাজার ঘোষণাও দেয়া হয়। তবে গোসল করানোর সময় লাশের মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন দেখে সন্দেহ হয় প্রতিবেশীদের। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠায়। গ্রেফতার করা হয় শাহাদাত হোসেন রিফাতকে। ময়নাতদন্ত শেষে পরের দিন তার লাশ দাফন করা হয়। ফুলগাজীর সদর ইউনিয়নের দক্ষিণ গাবতলা গ্রামের আবদুর রশীদের ছেলে হুমায়ুন কবির ২০ বছর ধরে চট্টগ্রামে আবাসিক হোটেল ব্যবসা করতেন।

মামলার বাদী ও হুমায়ুন কবিরের বোন ছলিমা আক্তার মায়া জানান, আমার ভাইকে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে গলায় রশি প্যাঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করেছে রিফাত ও তার মা মনোয়ারা বেগম মণি। ওরা আমাকে ফোন করে বলে আমার ভাই স্ট্রোক করে মারা গেছে।

ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সাজেদুল ইসলাম জানান, আসামি শাহাদাত হোসেন রিফাত বাবা হত্যার দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। ফুলগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূর কুতুবুল আলম জানান, ২৯ মে বুধবার বিকালে লাশের গোসল করানোর সময় আত্মীয়স্বজন ও স্থানীয়রা গলা, মাথা ও বুকে আঘাতের চিহ্ন দেখে থানায় খবর দেয়। স্ট্রোকে মৃত্যুর কথা বলা হলেও পরিবারের সদস্য হাসপাতালের কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। শেষ পর্যন্ত পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী সদর হাসপাতালে পাঠায়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×