কুলাউড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনা

ট্রেন দুর্ঘটনার খবর ৯৯৯-এ পুলিশকে জানান শাহান

  আজিজুল ইসলাম, কুলাউড়া ২৫ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কুলাউড়ার বরমচাল স্টেশনের কাছে ট্রেন দুর্ঘটনার খবর ৯৯৯ নাম্বার থেকে জানতে পারে পুলিশ। আর খবরটি দেন শাহান মিয়া নামের এক যুবক। মধ্যরাতে তার ফোন পেয়ে চমকে ওঠেন কুলাউড়া থানায় দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা। তারা দ্রুত ঘটনাস্থলের উদ্দেশে রওনা দেন। পৌঁছেই উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেন। থানার অফিসার ইনচার্জ ইয়ারদৌস হাসান জানান, ওই যুবক সময়মতো খবর না দিলে প্রাণহানি অনেক হতো। শাহন মিয়া কুলাউড়া ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী। বাড়ি উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নের আকিলপুর গ্রামে। রোববার রাত পৌনে ১২টার দিকে বরমচাল বড়ছড়া সেতু ভেঙে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ট্রেনটি।

শাহান মিয়া যুগান্তরকে জানান, তিনি বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। হঠাৎ বরমচাল সেতুতে বিকট শব্দ শুনতে পান। এরপরই ভেসে আসে মানুষের কান্নার আওয়াজ। তাকিয়ে দেখেন, সেতু ভেঙে ট্রেনের বগি নিচে পড়ে গেছে। কাছে গিয়ে মানুষের কান্নার আওয়াজ আরও জোরে শুনতে পান। দ্রুত ৯৯৯ নম্বরে ফোন দেন তিনি। সঙ্গে সঙ্গে রিসিভও হয়। তিনি পুলিশকে দুর্ঘটনার খবর জানান।

কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ইয়ারদৌস হাসান জানান, রাত ১২টার কিছু আগে এক ব্যক্তি ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে ট্রেন দুর্ঘটনার খবর জানান। খবর পেয়েই দ্রুত ঘটনাস্থলের উদ্দেশে রওনা দেই। ঘটনাস্থলে গিয়ে ৪ জনের মরদেহ এবং অন্তত দুই শতাধিক মানুষকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করি। ওসি বলেন, ইতিমধ্যে উদ্ধার কাজ শেষ হয়েছে। আহতরা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। উদ্ধার কাজে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও বিজিবি সদস্যরা অংশ নেন। সিলেট থেকে তিন শতাধিক যাত্রী নিয়ে উপবন এক্সপ্রেস ঢাকা যাচ্ছিল। পথে কুলাউড়ার বরমচাল স্টেশনের পাশের একটি সেতুতে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ট্রেনটি।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×