জিয়ার কবর সরানোর দাবি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর

৯২ লাখ এনআইডি কার্ডধারীকে কর দিতে হবে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  সংসদ রিপোর্টার ৩০ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জিয়াউর রহমানের কবরসহ জাতীয় সংসদের ‘মূল নকশার বাইরে’ যেসব স্থাপনা রয়েছে তা অপসারণ করতে বললেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। শনিবার জাতীয় সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ দাবি জানান। মন্ত্রী বলেন, ‘জাতীয় সংসদ চত্বরে মূল নকশার বাইরে জিয়ার কবরসহ যেসব স্থাপনা হয়েছে, এখানে আরও কিছু কবর দেয়া হয়েছে, সেগুলো অপসারণের অনুরোধ করছি।’

‘শোষিতদের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় বঙ্গবন্ধু বাকশাল (বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক আওয়ামী লীগ) গঠন করেছিলেন’ উল্লেখ করে বাজেট আলোচনায় মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলে, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে জিয়া ও তার তাঁবেদাররা সবাই মিলে যে বাকশালকে গালিতে পরিণত করেছিল। বস্তুত বাকশালের মাধ্যমে কোনো রাজনৈতিক দলকে বন্ধ করা হয়নি। রাজনৈতিক দলের কার্যক্রম সাময়িকভাবে স্থগিত করে জাতীয় দল গঠন করা হয়েছিল। আওয়ামী লীগকেও তখন স্থগিত করা হয়ছিল।’

বাজেট আলোচনায় অংশ নিয়ে কর নেটের আওতা বাড়ানোর নতুন প্রস্তাব দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘দেশের লোকসংখ্যার অনুপাতে করদাতার সংখ্যা অত্যন্ত কম। সেক্ষেত্রে করদাতার সংখ্যা বৃদ্ধির জন্য আমার একটি প্রস্তাব হচ্ছে, যাদের এনআইডি আছে, তাদের মধ্যে কর দেয়ার যোগ্য ৯২ লাখ। এ ৯২ লাখ এনআইডি কার্ডধারী সবাইকে কর দিতে হবে। তারা কর দেবেন কিনা সেটা দ্বিতীয় কথা। সব কোম্পানি টিআইএনের মাধ্যমে কর দেবে। এটা করলে ১১ শতাংশ থেকে অনেক বেশি বাড়বে এবং ঘাটতিও কমবে।’

নুসরাত-রিফাত হত্যার বিচার দ্রুত নিষ্পত্তির দাবি : সম্প্রতি বরগুনায় রিফাত হত্যা এবং কিছুদিন আগে নুসরাত হত্যার মতো ন্যক্কারজনক হত্যাকাণ্ডের বিচার নিষ্পত্তি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সাবেক আইন প্রতিমন্ত্রী অ্যাড. কামরুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘নিম্ন আদালতে বিচার সম্পন্ন হলেও দুঃখজনক সত্য, উচ্চ আদালতে গিয়ে সেই মামলাগুলো আটকে যাচ্ছে।’ কামরুল বলেন, ‘আমাদের দেশে সামাজিক অবক্ষয় হয়েছে। আমাদের মধ্যে পশুবৃত্তি বৃদ্ধি পেয়েছে। যার কারণে আমাদের বিপদগ্রস্ত হতে হচ্ছে। দুই দিন আগে বরগুনায় রিফাতের হত্যাকাণ্ড। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হচ্ছে অথচ যারা ভাইরাল করছে কেউ এগিয়ে যাচ্ছে না।’

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×