ঝালকাঠি-১ আসন

সাত মাস পর স্ত্রীর আমন্ত্রণে এলাকায় এমপি হারুন

বৈঠক বর্জন ক্ষুব্ধ আ’লীগ নেতাকর্মীদের

  ঝালকাঠি প্রতিনিধি ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর ও কাঁঠালিয়া) আসনের সংসদ সদস্য বজলুল হক হারুনের নির্বাচনী এলাকায় সফর নিয়ে ক্ষুব্ধ হয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা।

দীর্ঘ সাত মাস পরে তিনি এলাকায় এসে উপজেলা নির্বাচনে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে কেন্দ্রের কারণ দর্শানো নোটিশপ্রাপ্ত দলের বিদ্রোহী প্রার্থী ও তাঁর সমর্থকদের নিয়ে বৃহস্পতিবার বৈঠক করেন। তার কোনো অনুষ্ঠানে যোগদান না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। এমপির সঙ্গে কোনো নেতাকর্মীর যোগাযোগ না রাখারও ঘোষণা দেন তারা।

দলীয় সূত্র জানায়, গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সময় দলীয় মনোনয়ন নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংসদ সদস্য বজলুল হক হারুনের মতবিরোধ সৃষ্টি হয়। রাজাপুর থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অধ্যক্ষ মনিরউজ্জামান মনির ও কাঁঠালিয়া থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এমাদুল হক মনিরকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়। কিন্তু এমপি বজলুল হক হারুন দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে তার ব্যক্তিগত সমর্থিত প্রার্থী (দলের বিদ্রোহী) রাজাপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মিলন মাহমুদ বাচ্চু ও কাঁঠালিয়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মো. গোলাম কিবরিয়া সিকদারের পক্ষে মাঠে নামেন। তাদের আর্থিক সহায়তা প্রদান এবং দলীয় কয়েকজন নেতাকর্মীকে বিদ্রোহী প্রার্থীদের পক্ষে কাজ করার অনুরোধ করেন। এ খবর জানতে পেরে দুই উপজেলার আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা এমপির ওপর ক্ষুব্ধ হন। নেতাকর্মীরা এমপির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে লিখিতভাবে চিঠি দেন। বজলুল হক হারুন ওই সময় এলাকা থেকে ঢাকায় চলে যান। এরপর তিনি আর নির্বাচনী এলাকায় আসেননি। সেই থেকে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন এমপি। তবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলের বিদ্রোহী প্রার্থীর সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করতেন তিনি।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট খাইরুল আলম সরফরাজ বলেন, সংসদ সদস্য বজলুল হক হারুন কোনো জাতীয় দিবসে এলাকায় আসেন না। ১৫ আগস্ট শোক দিবসের কোনো অনুষ্ঠানেও তিনি যাননি। দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে অভিযুক্তর সঙ্গে তিনি বৈঠক করেছেন। ফলে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতাকর্মীরা এমপি হারুনের সঙ্গে সাক্ষাৎ না করার বিষয়ে সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত নেন। তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করছি। এ ব্যাপারে ঝালকাঠি-১ আসনের সংসদ সদস্য বজলুল হক হারুনের সঙ্গে তার মুঠোফোনে কল করলেও তিনি তা রিসিভ করেননি। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তার নিজ বাড়িতে এক বৈঠকে তিনি বলেন, আমি কোনো সরকারি সফরে আসিনি। আমার স্ত্রীর অনুরোধে একটি মসজিদ দেখার জন্য ব্যক্তিগত সফরে এসেছি। উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান যারা হয়েছেন তাদের আমি স্বাগত জানাই। আমি বেঁচে থাকতে দলকে বিভক্ত হতে দেব না।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×