টাঙ্গাইলে গৃহবধূ ও মেয়েকে গলা কেটে হত্যা

  টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

টাঙ্গাইল পৌরসভায় সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ লাকি বেগম (২২) ও তার মেয়ে আলিফাকে (৪) গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার রাতে পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের ভাল্লুককান্দী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ রাতেই লাশ দুটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

স্থানীয়রা জানান, লাকি বেগমের স্বামী আল আমিন পৌর এলাকার আসাদ মার্কেটে মোবাইল ফোন-ফ্যাক্সের ব্যবসা করেন। ব্যবসার কারণে প্রায়ই তিনি মধ্যরাতে বাড়িতে ফেরেন। বাড়িতে শুধু তার স্ত্রী ও সন্তান থাকত। এ সুযোগে দুইজনকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা ঘর থেকে বিকাশ ও বিদ্যুৎ বিলের আট লাখ টাকা নিয়ে গেছে।

আল আমিন জানান, শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বাড়ি ফিরে তিনি দরজা খোলা দেখতে পান। এ সময় ঘরে উচ্চশব্দে টেলিভিশন চলছিল। ভেতরে ঢুকতেই উঠানে রক্তাক্ত অবস্থায় মেয়েকে পড়ে থাকতে দেখে তিনি চিৎকার দেন। তার চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। উঠানেই লাকীর রক্তাক্ত লাশ পড়ে ছিল।

লাকীর মামা ফেরদৌস হিরা জানান, আল আমিন প্রায়ই বাড়িতে অনেক টাকা রাখত। বৃহস্পতিবার বিকালে স্ত্রী লাকীকে আল আমিন ফোনে জানায় তার এক লাখ টাকা প্রয়োজন। শাকিল ও রাইচ উদ্দিনকে পাঠালাম। তাদের কাছে টাকা দিয়ে দিও। ওই দু’জনের সামনে ওয়্যারড্রপ থেকে লাকী এক লাখ টাকা বের করে দেন। এর পরদিন শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে শাকিল আবার আল আমিনের বাড়িতে যায় এবং খাওয়া-দাওয়া করে চলে আসে। এ হত্যাকাণ্ডের পর থেকে শাকিলের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানান হিরা। এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে শাকিলের সম্পৃক্ততা থাকতে পারে বলে ধারণা করছেন তারা। আলিফা কচুয়াডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণিতে পড়ত।

লাকীর বাবা হাসমত আলী জানান, বাসায় তার মেয়ে একা থাকত এবং বাড়িতে অনেক টাকা আছে- এটা কাছের লোক ছাড়া অন্য কারও জানার কথা নয়। এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে পরিচিত লোকজনই জড়িত। এ ঘটনায় তিনি অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা করেছেন।

টাঙ্গাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মোশাররফ হোসেন জানান, টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে লাশ দুটি হাসমত আলীর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় জানান, সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে হত্যাকারীদের খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। এ হত্যার রহস্য শিগগিরই উদ্ঘাটন করা হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×