ঘুষসহ গ্রেফতার হলে সঙ্গে সঙ্গে বাসায় তল্লাশি

-দুদক চেয়ারম্যান

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৮ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ঘুষসহ হাতেনাতে গ্রেফতার হলে সঙ্গে সঙ্গেই বাসায় তল্লাশির তাগিদ দিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। দুর্নীতিপ্রবণ ২৮টি দফতরের কর্মকর্তাদের গতিবিধির ওপর নজরদারির নির্দেশও দিয়েছেন তিনি। বলেন, দুদক ভারতের তদন্ত সংস্থা সিবিআইয়ের আদলে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত অবৈধ সম্পদ অর্জনের ক্ষেত্রে মামলা দায়েরের পর আইনি প্রক্রিয়ায় ওই সম্পদ জব্দ করতে পারে। দুদক প্রধান কার্যালয়ে বৃহস্পতিবার ভারতের সিবিআইয়ের সঙ্গে যৌথভাবে আয়োজিত প্রশিক্ষণে অংশ নেয়া দুদক কর্মকর্তাদের সঙ্গে অভিজ্ঞতা বিনিময়কালে এসব কথা বলেন তিনি।

ইকবাল মাহমুদ বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশনের যেসব কর্মকর্তা বিদেশে গিয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করছেন এবং করবেন তাদের স্ব-স্ব দাফতরিক কাজে এর অন্তত একটি লার্নিংয়ের প্রয়োগ ঘটাতে হবে। এক্ষেত্রে সমস্যা হলে সবার মতামত নিয়ে তারা একটি পদ্ধতি উদ্ভাবন করবেন এবং তা কমিশন বিচার-বিশ্লেষণ করে কমিশনের কর্মপ্রক্রিয়ায় সংযুক্ত করবে।

তিনি বলেন, দুদক আইন অনুসারে অত্যন্ত শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান। তবে আমাদের সক্ষমতার কিছুটা ঘাটতি রয়েছে। আর সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যেই কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দেশ-বিদেশে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, দেশের মানুষের প্রতি আমাদের দায়বদ্ধতা রয়েছে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমাদের যে অঙ্গীকার তা বাস্তবায়নে সবাইকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে। নিজের প্রতি যেমন নিজের অঙ্গীকার রয়েছে, তেমনি নিজের দায়িত্বের প্রতিও অঙ্গীকার থাকতে হবে। এ সময় তিনি দুদকের গোয়েন্দা ইউনিটের প্রধানকে উদ্দেশ করে বলেন, দুর্নীতিপ্রবণ ২৮টি দফতরের কর্মকর্তাদের গতিবিধির প্রতি দৃষ্টি রাখতে হবে। যাতে তারা ঘুষ খাওয়ার সুযোগ ও সাহস না পায়। যেন দুর্নীতি করার ধৃষ্টতা না দেখায়। তারপরও দুর্নীতি করলে তাৎক্ষণিক আইন প্রয়োগ করতে হবে।

এ সময় কমিশনার ড. মো. মোজাম্মেল হক খান বলেন, প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞানকে কাজে লাগাতে হবে। একটি উন্মুক্ত কর্মশালার মাধ্যমে যেসব সিস্টেম গ্রহণ করা যায় তা যাচাই-বাছাই করে কমিশনের কর্মপ্রক্রিয়ায় আমরা সম্পৃক্ত করব।

এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দুদক সচিব মুহাম্মদ দিলোয়ার বখ্ত, মহাপরিচালক এএনএম আল ফিরোজ, মহাপরিচালক (বিশেষ তদন্ত) সাঈদ মাহবুব খান, মহাপরিচালক (প্রশাসন) মো. জহির রায়হান, মহাপরিচালক (প্রশিক্ষণ ও আইসিটি) একেএম সোহেল, পরিচালক মীর মো. জয়নুল আবেদীন শিবলী, মো. মঞ্জুর মোর্শেদ প্রমুখ।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×