জৈন্তাপুর আ’লীগের সম্মেলন

বিতর্কিত লিয়াকতকে সাধারণ সম্পাদক করতে শফিকের গোঁ

ক্লিন ইমেজ না বিতর্কিত তর্কে সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয়েছে প্রস্তুতি কমিটির সভা

  মাহবুবুর রহমান রিপন, সিলেট ব্যুরো ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

একদিকে রাজাকার পুত্র। তদন্তাধীন রয়েছে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের-দুদক করা মামলা। পাথরকোয়ারি দখল নিয়ে হত্যা মামলার প্রধান আসামি ও জৈন্তাপুর আওয়ামী লীগের চার বছর আগের সম্মেলনে ৪ সদস্যের কমিটির সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত আলীর বিরুদ্ধে এতসব অভিযোগ থাকার কারণে রোববার রাতে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির বৈঠকে জেলার অধিকাংশ নেতা বিরোধিতা করা সত্ত্বেও তাকেই আবারো সাধারণ সম্পাদক বানাতে চান সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী। যদিও শেষ পর্যন্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারেননি তিনি। শফিকুর রহমান চৌধুরীও বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, সব স্থানেই তিনি দলের ভালো কর্মীর পক্ষে থাকেন।

সিলেটে অন্যান্য উপজেলার মতো চার বছর আগে করা জৈন্তাপুরের চার সদস্যের কমিটির মেয়াদ শেষ এক বছর আগে। এর মধ্যে সভাপতি মো. আবদুল্লাহ মারা গেছেন দুই বছর আগে। সবশেষ জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ নির্দেশ দেন জৈন্তাপুরের কমিটি ভেঙে দিয়ে নতুন কমিটি গঠনের। অদৃশ্য কারণে পুরনো কমিটি রাখতেই তোড়জোড় চালান জেলা আওয়ামী লীগ। পুরনো কমিটি পূর্ণাঙ্গ করতে ১৭ নভেম্বর জৈন্তাপুর আওয়ামী লীগের সম্মেলনের ঘোষণা দেয়া হয়।

১৪ নভেম্বর ‘দুই রাজাকার পুত্রকে পদে রাখতে কেন্দ্রের নির্দেশ অমান্য’ শিরোনামে দৈনিক যুগান্তরে খবর প্রকাশের পর পরিস্থিতি পাল্টে যায়। ১৭ নভেম্বর অনিবার্য কারণে জৈন্তাপুরের সম্মেলন স্থগিত করে জেলা আওয়ামী লীগ। এর আগে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার দলকে কলুষমুক্ত করতে বর্তমান দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে ত্যাগি এবং ক্লিন ইমেজের নেতাদের দিয়ে কমিটি গঠনের জন্য ১৩ সদস্যের প্রস্তুতি কমিটি গঠন করেন জৈন্তাপুর-গোয়াইনঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য এবং প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ। সম্মেলন স্থগিত করলেও ১৩ সদস্যের প্রস্তুতি কমিটির সঙ্গে রোববার রাতে সিলেট নগরীতে বৈঠকে বসেন জেলা আওয়ামী লীগ নেতারা। জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের দায়িত্বপ্রাপ্ত সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট শাহ ফরিদ আহমেদের বাসায় বৈঠকে উপস্থিত হন জৈন্তাপুর থেকে আসা প্রস্তুতি কমিটির ১২ সদস্য, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট লুৎফর রহমান ও সম্মেলনের দায়িত্বপ্রাপ্ত সদস্য শাহদত রুহিন।

জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন কমিটির দায়িত্বপ্রাপ্ত জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহ ফরিদ আহমেদ যুগান্তরকে জানান, জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক একজন যোগ্য ক্লিন ইমেজের নেতাকেই এই উপজেলায় সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আমার চাওয়া।

লিয়াকত আলীকে সাধারণ সম্পাদক বানাতে গোঁ ধরেছেন কিনা জানতে চাইলে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী জানান, শুধু লিয়াকত আলী নয়, সব উপজেলাতেই আমি দলের ভালো কর্মীর পক্ষেই থাকি। এ ছাড়া চার বছর আগে লিয়াকত আলীকে তো আমি সাধারণ সম্পাদক বানাইনি। সেই কমিটির তো মেয়াদ শেষ হয়েছে এক বছর আগে- এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, সেটা সাংগঠনিক বিষয়, সংগঠন চাইলে সেই কমিটিকেই পূর্ণাঙ্গ করা যায়।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×