চবি পুনর্মিলনী

ইচ্ছে করে আবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই জীবনে ফিরে যেতে

তথ্যমন্ত্রী

  চট্টগ্রাম ব্যুরো ২৩ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

উৎসবমুখর পরিবেশে শেষ হয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীদের সংগঠন অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের প্রথম পুনর্মিলনী। অনুষ্ঠানটি পরিণত হয়েছিল সাবেকদের পুরনো দিনের তারুণ্য আর প্রাণের উৎসবে। শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে নগরীর জিইসি কনভেনশন সেন্টারে পুনর্মিলনী শুরু হয়। উদ্বোধন করেন চবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীন আখতার। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের পরিবেশনায় জাতীয় সঙ্গীত এবং স্বাধীনতাযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালনের পর চলে আলোচনা ও স্মৃতিচারণা। দীর্ঘদিন পর সহপাঠীদের কাছে পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে ওঠেন অনেকে। আড্ডা আর ক্যাম্পাস জীবনের পুরনো দিনের স্মৃতি হাতড়ে দিনটি কাটিয়ে দেন সাবেক শিক্ষার্থীরা।

পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে স্মৃতিচারণা করতে গিয়ে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এমন একটি বিশ্ববিদ্যালয় যেটিকে প্রকৃতি অপরূপ সাজে সাজিয়েছে। পৃথিবীর বহু বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার আমার সৌভাগ্য হয়েছে। কিন্তু এমন সুন্দর প্রকৃতির শোভা পৃথিবীর খুব কম বিশ্ববিদ্যালয়ে আছে। প্রকৃতি যেন নিজের কোলে লালন করছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে। ইচ্ছে করে আবার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই জীবনে ফিরে যেতে।

উপাচার্য ড. শিরীন আখতার বলেন, আমি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ছিলাম। তারপর শিক্ষক ও বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব পালন করছি। জ্ঞান ও গবেষণার মাধ্যমে যেন বিশ্ববিদ্যালয়কে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি। সে জন্য অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সবার সহযোগিতা চাই।

৩০তম ব্যাচের শিক্ষার্থী আ জ ম ছালেহ তার অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, এমন আনন্দের মুহূর্ত জীবনে খুব কমই আসে। প্রায় ২০ বছর আগে পাস করে বেরিয়েছি। বন্ধুবান্ধদের অনেকের সঙ্গে দেখা হল। এই অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। মনে হয়েছে, সবুজে ঘেরা সেই চবি ক্যাম্পাসেই ফিরে গেছি। অনুষ্ঠানটি শহরে হলেও চবি ক্যাম্পাসের আবহ তৈরির চেষ্টা করা হয়েছে। পরিচিত মউর দোয়ান (মামুর দোকান), শাটল ট্রেনের ডামিসহ নানা স্থাপনা তৈরি করে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করা হয়েছে ক্যাম্পাসের প্রতিচ্ছবি।

বিকেল ৩টায় নৃগোষ্ঠীর সম্মিলিত নৃত্য দিয়ে শুরু হয় দ্বিতীয় পর্ব। এরপর পর্যায়ক্রমে সাবেক শিক্ষার্থীদের নানা পরিবেশনা। যা চলে সন্ধ্যা পর্যন্ত। শাটল ট্রেনে বছরের পর বছর শিক্ষার্থীদের কণ্ঠে গাওয়া ‘এই মুখরিত জীবনের চলার পথে’ ‘কফি হাউসের সেই আড্ডাটা আজ আর নেই’সহ বিভিন্ন গান পরিবেশন করেন সাবেকরা।

অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলমের সঞ্চালনায় ও সভাপতি আবদুল করিমের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন সাবেক তথ্য সচিব মোসলেম চৌধুরী, সাবেক মুখ্য সচিব আবদুল করিম, সাবেক সচিব আবদুস শহীদ, বিদ্যুৎ সচিব ড. আহমদ কায়কাউস, আওয়ামী লীগের দক্ষিণ জেলার সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ, চাকসুর ভিপি নাজিম উদ্দীন, মাজহারুল হক শাহ চৌধুরী প্রমুখ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব বন্ধে বিধিমালা হচ্ছে : তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিশ্বে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা তথ্যে বিভ্রান্তি, চরিত্রহনন ও গুজব ছড়ানো এখন বড় সমস্যা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভ্রান্তি ছড়ালে সার্ভিস প্রোভাইডরকে আইনের আওতায় আনতে উন্নত দেশের মতো বাংলাদেশেও বিধিমালা তৈরি করা হচ্ছে। ‘বিশ্ব টেলিভিশন দিবস’ উপলক্ষে শুক্রবার চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসের সম্মেলন কক্ষে গোলটেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্র, চট্টগ্রাম টিভি জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন ও টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন যৌথভাবে এ বৈঠকের আয়োজন করে। বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের মহাব্যবস্থাপক নিতাই কুমার ভট্টাচার্যের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান, বাংলাদেশ টেলিভিশনের উপ-মহাপরিচালক (বার্তা) অনুপ কুমার খাস্তগীর। ইনডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের ব্যুরো প্রধান অনুপম শীলের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন বিএফইউজের সহসভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, বাসসের চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান কলিম সরওয়ার, একুশে পত্রিকার সম্পাদক আজাদ তালুকদার, চট্টগ্রাম টিভি জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নাসির উদ্দিন তোতা, সাধারণ সম্পাদক লতিফা আনসারী রুনা, টিভি ক্যামেরা জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শফিক আহমেদ। উপস্থিত ছিলেন সিইউজের সভাপতি নাজিমুদ্দীন শ্যামল।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×