ফলাফল প্রত্যাখ্যান তাবিথ-ইশরাকের
jugantor
ঢাকার উত্তর-দক্ষিণের ভোট
ফলাফল প্রত্যাখ্যান তাবিথ-ইশরাকের
ঘোষিত ফল মনগড়া

  যুগান্তর রিপোর্ট  

০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বেসরকারিভাবে ইসির ঘোষিত ফলাফল প্রত্যাখ্যান করেছেন বিএনপি মনোনীত দুই মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ও প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন। রোববার নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করে বিএনপির ডাকা হরতাল কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে তারা গণমাধ্যমে এ প্রতিক্রিয়া দেন।

উত্তরে ধানের শীষ প্রতীকে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা তাবিথ আউয়াল বলেন, ‘১ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ন্যূনতম সুষ্ঠু কোনো ভোট হয়নি। এ রকম নির্বাচন আমরা কখনোই আশা করিনি। এই ভোট চুরির নির্বাচন ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করছি।’ তিনি বলেন, ভোটে অনিয়মের কারণে হরতালের দাবি জনগণের কাছ থেকে এসেছে। আমরা সাধারণ জনগণের পাশে আছি, তাদের পক্ষে আছি।

ধানের শীষের দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন বলেন, ‘সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের যে ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে, তা সম্পূর্ণ মনগড়া ও সাজানো। এতে জনগণের মতামতের প্রতিফলন ঘটেনি। এ ফলাফল প্রত্যাখ্যান করছি। নির্বাচনের ফলাফলে যে পরিমাণ ভোট কাস্ট দেখানো হয়েছে, তার চেয়ে অনেক কম ভোট কাস্ট হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

ইশরাক বলেন, সরকার ও নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে বারবার বলা হয়েছে, ইভিএমে দ্রুত ফলাফল দেয়া যাবে। কিন্তু বাস্তবে তার উল্টো হয়েছে। সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত দক্ষিণে প্রায় সাতশ কেন্দ্রের ফল ঘোষণা করা হয়। এরপর ধীরে ধীরে বাকি কেন্দ্র ঘোষণা করে। উত্তরেও ফল প্রকাশে ধীরগতি ছিল। কিন্ত এটা কেন। আমাদের কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়ে কারচুপি করেও তারা দেখেছে ধানের শীষের জয় আটকাতে পারছে না। তাই ফলাফলেও ঘষামাজা করা হয়েছে। একটি সাজানো ফল ঘোষণা করতে গিয়ে তারা দেরি করেছেন।

ঢাকার উত্তর-দক্ষিণের ভোট

ফলাফল প্রত্যাখ্যান তাবিথ-ইশরাকের

ঘোষিত ফল মনগড়া
 যুগান্তর রিপোর্ট 
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বেসরকারিভাবে ইসির ঘোষিত ফলাফল প্রত্যাখ্যান করেছেন বিএনপি মনোনীত দুই মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ও প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন। রোববার নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করে বিএনপির ডাকা হরতাল কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে তারা গণমাধ্যমে এ প্রতিক্রিয়া দেন।

উত্তরে ধানের শীষ প্রতীকে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা তাবিথ আউয়াল বলেন, ‘১ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ন্যূনতম সুষ্ঠু কোনো ভোট হয়নি। এ রকম নির্বাচন আমরা কখনোই আশা করিনি। এই ভোট চুরির নির্বাচন ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করছি।’ তিনি বলেন, ভোটে অনিয়মের কারণে হরতালের দাবি জনগণের কাছ থেকে এসেছে। আমরা সাধারণ জনগণের পাশে আছি, তাদের পক্ষে আছি।

ধানের শীষের দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন বলেন, ‘সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের যে ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে, তা সম্পূর্ণ মনগড়া ও সাজানো। এতে জনগণের মতামতের প্রতিফলন ঘটেনি। এ ফলাফল প্রত্যাখ্যান করছি। নির্বাচনের ফলাফলে যে পরিমাণ ভোট কাস্ট দেখানো হয়েছে, তার চেয়ে অনেক কম ভোট কাস্ট হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

ইশরাক বলেন, সরকার ও নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে বারবার বলা হয়েছে, ইভিএমে দ্রুত ফলাফল দেয়া যাবে। কিন্তু বাস্তবে তার উল্টো হয়েছে। সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত দক্ষিণে প্রায় সাতশ কেন্দ্রের ফল ঘোষণা করা হয়। এরপর ধীরে ধীরে বাকি কেন্দ্র ঘোষণা করে। উত্তরেও ফল প্রকাশে ধীরগতি ছিল। কিন্ত এটা কেন। আমাদের কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়ে কারচুপি করেও তারা দেখেছে ধানের শীষের জয় আটকাতে পারছে না। তাই ফলাফলেও ঘষামাজা করা হয়েছে। একটি সাজানো ফল ঘোষণা করতে গিয়ে তারা দেরি করেছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন